সর্বশেষ

  সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কর্মসূচি পালিত   আম্বরখানায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের সংঘর্ষ: আহত ৬   রাজনগরে যৌতুকের দায়ে বিয়ে ভঙ্গ: অভিমানে যুবতীর আত্মহত্যা   তারেক রহমানের জন্মদিনে ছাত্রদলের শোভাযাত্রা ও মিন্টুর মুক্তির দাবি   বিশ্বনাথে ওসির বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্তের অভিযোগ কলেজছাত্রীর   “গ্রাম আদালত গ্রামের মানুষের আদালত”   মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিল: এমপি মানিক   চেষ্টা করলেও ইতিহাস বদলানো যায় না: শেখ হাসিনা   খাদিমপাড়ায় অবৈধভাবে পাহাড় কাটার দায়ে একজনকে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা   শাহ খুররম ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক জাকির হোসেন   কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন সম্পন্ন: নতুন নেতৃত্বের অপেক্ষায় নেতাকর্মীরা   সিলেট মেরিট কেয়ার একাডেমির ম্যানেজিং কমিটি গঠন   সিলেট সদর উপজেলা জমিয়তের কাউন্সিল সম্পন্ন   আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হলেই সামাজিক শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব: আসাদ উদ্দিন আহমদ   এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে অগ্নিসংযোগে ছাত্রলীগ: গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি   মৌলভীবাজারে কলেজছাত্রীর ওপর হামলা, আটক ১   বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্ব ঐতিহাসিক স্মারক   ১১ বছর পর আজ কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন   ইলিয়াস আলীর সন্ধানে বিশ্বনাথে বিএনপি দু’গ্রুপের পৃথক মিছিল-সভা   দক্ষিণ সুরমার বীর মুক্তিযোদ্ধা অনিল সিংহ বর্মণকে রাস্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

সিলেটে কঠোর নজরদারিতে জামায়াতের প্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২০ ০০:০০:৩৫

তুহিনুল হক তুহিন : শুক্রবার, ২০ নভেম্বর ২০১৫ ॥ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জামায়াত-শিবিরের নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানের উপর কঠোর নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে- জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানে বসে বিভিন্ন অপকর্মের ছক কষা হয়। তাই এসব প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকাণ্ডের ওপর নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরও নজরদারিতে রাখতে বলা হয়েছে। এমনকি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত জামায়াত-শিবিরের নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানের তালিকাও প্রকাশ করা হয়।

সে প্রকাশিত তালিকাতে সিলেটে জামায়াত-শিবিরের নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানসমূহের নাম প্রকাশিত হয়। এদিকে, সিলেট নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টসহ বেশ কিছু এলাকায় নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। পোশাকধারী পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি নিরাপত্তা দিচ্ছে সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। 

সূত্রে জানা যায়- সিলেটে জামায়াত-শিবিরের নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা নির্দেশনা পাওয়ার পর পরই প্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরকে নজরদারিতে রেখেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এমনকি কারা কোন প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত আর প্রতিষ্ঠানগুলো কারা পরিচালিত করছেন এবং তাদের অর্থের উৎসও কারা যোগান দিচ্ছেন সেসব তালিকা তৈরি করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে গোয়েন্দা পুলিশ।

এছাড়াও ২৯ অক্টোবর জারি করা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, শিক্ষামন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ এবং অর্থমন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব ও সচিবদের কাছে পাঠানো আদেশে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এ চার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ও সচিবের কাছে পাঠানো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গোপন নথিতে বলা হয়েছে- বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠান পরিচালনার নামে এসব প্রতিষ্ঠান বিদেশ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ এনে তা নিজেদের সংগঠনের কাজে ব্যয় করার পাশাপাশি জঙ্গি সংগঠনকে আর্থিক সাহায্য করার কাজে ব্যবহার করছে।

সিলেটে নজরদারির আওতায় আনা জামায়াত-শিবির পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- ইসলামী ব্যাংক ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি, রেটিনা, ইবনে সিনা মেডিক্যাল হসপিটাল, মা-মনি ক্লিনিক, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সিলেট ক্যাডেট মাদরাসা, সিলেট রেসিডেন্সিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, মিশন ডেভেলপারস, সোনারগাঁ হাউজিং, ইয়ুথ গ্রুপ, মিশন গ্রুপ, আল-হামরা শপিং সেন্টার, রাজমহল, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স কোং লিমিটেড, ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, তাকাফুল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, অনাবিল, সৌদিয়া, আবাবিল, ছালছাবিল, ফুয়াদ আল খতিব মেডিকেল ট্রাস্ট, সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী, সিএনসি, ফুলকুঁড়ি আসর, ফোকাস, কনসেপ্ট, ওমেকা। এছাড়াও সিলেট নগরীতে পরিচালিত জামায়াত-শিবিরের কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও তাদের সুদি ব্যবসার তালিকা তৈরি করে সেগুলোকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

নাম প্রকাশে না করার শর্তে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান- নির্দেশনা পাওয়ার পর পরই গোয়েন্দা পূর্বের তৈরি তালিকাটি একটু হালনাগাদ করতে হয়েছে। তালিকার বাইরেও নামে-বেনামে গড়ে ওঠা জামায়াত-শিবিরের নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানের উপর কঠোর নজরদারি চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এছাড়াও তিনি আরো জানান- শুধু বেসরকারি প্রতিষ্ঠান নয়, সরকারি অনেক প্রতিষ্ঠানে কমর্রত জামায়াত-শিবিরপন্থি কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী কাজে সক্রিয়। জামায়াত-শিবিরের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সমিতি থেকে সংগঠনের ব্যয় নির্বাহের পাশাপাশি জঙ্গিদেরও অর্থায়ন করা হয়।

সিলেট মেট্রাপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) রহমত উল্লাহ জানান- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নির্দেশনা জারি হওয়ার পর সিলেটে জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে গোয়েন্দা পুলিশ। এসব প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকাণ্ডের ওপর নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরও নজরদারিতে রাখতে বলা হয়েছে।

এদিকে, আজতের হরতালকে ও রায় কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত যে কোন ধরণের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড ঠেকাতে প্রস্তুত রয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশ। নগরীর বিভিন্ন পয়েন্ট ও এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিভিন্ন পয়েন্টে সন্দেভাজন ব্যক্তিদের তল্লাশি করা হচ্ছে।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/টিএইচটি/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত