সর্বশেষ

  মিঠু ব্যাংকার হতে চায়   আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা : মুফতি হান্নানের মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত রায় প্রকাশ   ওসমানীনগরে যুবকের আত্মহত্যা   চলে গেলেন প্রখ্যাত অভিনেত্রী গীতা সেন   সিলেট সোসিও ইকোনোমিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন কমিটি পুনর্গঠন   ফেঞ্চুগঞ্জে নবগঠিত উপজেলা ছাত্রলীগ দু’টি ধারায় বিভক্ত   ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স : লোকবল ও যন্ত্রপাতির অভাবে চিকিৎসাসেবা ব্যাহত   আদালতে জাকারবার্গ, অস্বীকার করলেন অভিযোগ   সাক্ষী না আসায় পেছালো কিবরিয়া হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ   শ্রীমঙ্গলে তক্ষক পাচারকারী চক্রকে কারাদণ্ডসহ জরিমানা   কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ : বাধা নেই উপনির্বাচনে   বালাগঞ্জ উপজেলায় অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী আজ   সিলেট জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ   হবিগঞ্জে ডিজিটাল মেলার প্রতি তরুণ প্রজন্মকে আকৃষ্ট করতে হবে : জেলা প্রশাসক সাবিনা   ডব্লিউইএফের সভায় প্রধানমন্ত্রী   হবিগঞ্জে বর্ণিল আলোয় উদ্বোধন হল অস্কার এমপি আবু জাহির টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট   ‘মতিউর রহমান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন’   হাওর অঞ্চলের শিক্ষকদেরকে আরো দায়িত্বশীল ও সচেতন হতে হবে : জেলা প্রশাসক   কাউন্সিলর আজাদ কাপ ফুটসালের মঙ্গলবারের ৬টি খেলা সম্পন্ন   রিকাবীবাজারে বৃহৎ পানির স্তরের সন্ধান

বড়লেখা পৌরসভা নির্বাচনে মাঠে আওয়ামী লীগ : প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপি

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৭ ২১:০৭:৫২

জালাল আহমদ : বড়লেখা, মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৫ ॥ মৌলভীবাজারের বড়লেখা পৌরসভা নির্বাচনের আমেজ ক্রমেই জমে উঠেছে। স্থানীয়দের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুও এখন পৌর নির্বাচন। আওয়ামী লীগ-বিএনপির পাশাপাশি স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তফসিল ঘোষণার আগেই ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য ব্যানার, বিলবোর্ড ও পোস্টারকেন্দ্রিক প্রচারের পাশাপাশি বাড়ি বাড়ি গিয়েও জনসংযোগ করছেন প্রার্থীরা। পৌর শহরে বিলবোর্ড, ব্যানার আর পোস্টারের তাই ছড়াছড়ি। ধর্মীয় ও সামাজিক উৎসবকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের সঙ্গে মতবিনিময়ও করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। পাড়া-মহল্লার ঘরোয়া ও চায়ের দোকানের আড্ডায় ছড়িয়ে গেছে নির্বাচনী আমেজ। কোনো কোনো প্রার্থীও এসব আড্ডায় অংশ নিচ্ছেন। ইতোমধ্যে পৌর এলাকার মুরব্বি ও যুবকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন বড়লেখা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও সম্ভাব্য মেয়র পদপ্রার্থী আবুল ইমাম মো: কামরান চৌধুরী, পৌরসভার দু’বারের ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক তাজ উদ্দিন, পৌরসভার দু’বারের ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আলী আহমদ চৌধুরী জাহেদ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সাবেক কৃতি ফুটবলার আব্দুল আহাদ প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত বড়লেখা পৌরসভা এলাকায় ২০১১ সালের নির্বাচনে মেয়র পদে বিজয়ী হন বিএনপি প্রার্থী প্রভাষক ফখরুল ইসলাম। ওই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন আওয়ামী লীগের দুই নেতা। দলীয় বিভক্তির কারণেই মেয়র পদটি হাতছাড়া হয় বলে মনে করেন ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা। যদিও ওই নির্বাচনে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭টি ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদের সব ক’টিতেই আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা জয়ী হন।
আগামী পৌর নির্বাচনে মেয়র পদটির দখল নিতে একক প্রার্থী দেওয়ার ব্যাপারে বদ্ধপরিকর আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের মনোয়নপ্রত্যাশীদের সাথে আলাপকালে জানা গেছে, যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হোক, দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েই কাজ করবেন তারা।

দলীয় প্রতীকে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত আসায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীরা শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের সন্তুষ্টি লাভের জন্যও দৌঁড়ঝাপও শুরু করেছেন।
 
এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ক্ষমতাসীন দলের অন্তত ৬ প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। তারা মাঠে থেকে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অন্যদিকে বিএনপি থেকেও শোনা যাচ্ছে অন্তত ৩ জন প্রার্থীর নাম। যদিও বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, পৌরসভা নির্বাচনের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নির্দেশনার অপেক্ষায় আছেন এখনও। নির্দেশনা পাবার পর পুরোদমে মাঠে নামবে তারা।
 
বড়লেখা পৌরসভায় মেয়র পদে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের ৬ নেতা দলের মনোনয়ন লাভে জোর লবিং চালাচ্ছেন।

তারা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আবুল ইমাম মো: কামরান চৌধুরী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক কৃতি ফুটবলার আব্দুল আহাদ, পৌরসভার দু’বারের নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক তাজ উদ্দিন, পৌরসভার দু’বারের নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আলী আহমদ চৌধুরী জাহেদ, পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য ও প্রয়াত পৌর মেয়র আব্দুল মালিকের ছোট ভাই আব্দুন নূর, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক রায়না বেগম।

এদিকে বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী ৩ জন হচ্ছেন- পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র মতিউর রহমান ইরাজ আলী, পৌর বিএনপির সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রদল সভাপতি ও বর্তমান পৌর যুবদল সভাপতি সাইফুল ইসলাম খোকন।

অপরদিকে জামায়াতের একক প্রার্থী হিসেবে প্রস্তুতি নিচ্ছেন খিজির আহমদ। যদিও দলীয়ভাবে জামায়াতের নির্বাচনে অংশগ্রহণের কোনো সুযোগ নেই। তবে জানা গেছে, জামায়াতের এ প্রার্থী স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে অংশ  নেবেন। এছাড়া নির্বাচনে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী কারও নাম শোনা যায়নি এখনও।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/জেএ/এমওআর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত