সর্বশেষ

  কমলগঞ্জে গুরু নীলেশ্বর মুখার্জী স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন   জৈন্তাপুরে ‘বিশ্ব যক্ষ্মা দিবস’ পালিত   আত্মসমর্পণের আহ্বানে সাড়া দিচ্ছে না জঙ্গিরা   ‘আতিয়া মহল’ থেকে জঙ্গিদের হুঙ্কার : ‘আমরা আল্লাহর রাস্তায় আছি, তোমরা শয়তানের রাস্তায় অাছো’   মেসির একমাত্র গোলে চিলির হার   উরুগুয়ের বিপক্ষে ৪-১ গোলে ব্রাজিলের জয়   দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে যেভাবে খোঁজ মিললো জঙ্গি আস্তানার!   ময়মনসিংহে ট্রাক উল্টে নিহত ১০   দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘিরে অভিযানের প্রস্তুতি   দক্ষিণ সুরমার ‘আতিয়া মহল’ ও পাশের ভবনে থাকতেন ৩ পুলিশ   সরিয়ে নেওয়া হয়েছে দক্ষিণ সুরমার ‘আতিয়া মহল’র বাসিন্দাদের   জানুয়ারিতে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ‘আতিয়া মহল’র বাসাটি ভাড়া নেয় জঙ্গিরা   দক্ষিণ সুরমায় অভিযানে অংশ নিতে ঢাকা থেকে আসছে সোয়াত   দক্ষিণ সুরমায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে বাড়ি ঘেরাও   বাংলাদেশ ব্যাংক ভবনে আগুনের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন   সাউথ এশিয়ায় সন্ত্রাস বন্ধে লন্ডনে পাকিস্তান হাইকমিশন ঘেরাও   জাতীয় যক্ষ্মা দিবস উপলক্ষ্যে যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি   ‘শিশুদের বইপত্রের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে’   সিলেটে উদ্বোধন হলো মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস কাবাডি প্রতিযোগিতা   জগন্নাথপুরে হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার

বাইক্কাবিলের পাখিপ্রেমী মিরাশ মিয়া আর নেই

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৭ ১২:৪৬:৫৭

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : মঙ্গলবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৫ ॥ বাইক্কাবিলের পাখিপ্রেমী মিরাশ মিয়া আর নেই (ইন্না...রাজিউন)। ১৭ নভেম্বর (মঙ্গলবার) সকাল সাড়ে ১০টায় পাখিদের বন্ধু, রক্ষক মিরাশের দাফন হাজিপুর গ্রামের পৈত্রিক বাড়িতে সম্পন্ন হয়।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তা‍ঁর মৃত্যুর খবরে পাখি পর্যবেক্ষক, আলোকচিত্রী ও গবেষকদের মাঝে গভীর শোক নেমে আসে।

ক্লাইমেট-রেজিলিয়েন্ট ইকোসিস্টেমস্ অ্যান্ড লাইভলিহুডস্ (ক্রেল) প্রকল্পের বাইক্কাবিল সাইট অফিসার মো. মনিরুজ্জামান বলেন- হাওরের প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণে এবং ব্যবস্থাপনায় মিরাশ মিয়ার কর্মদক্ষতা অতুলনীয়। গ্রামের মানুষ হয়েও জীববৈচিত্র্য রক্ষণাবেক্ষণে তার ভূমিকা অনস্বীকার্য।
 
তিনি আরও বলেন- মিরাশ মিয়া পরিযায়ী পাখিদের ইংরেজি ও বাংলা নাম জানতেন। শুধু তা-ই নয়, চিনতেন কোনটা কোন পাখি। বাইক্কাবিলের পাখি পর্যবেক্ষণ টাওয়ারে টেলিস্কোপ দিয়ে আগত পর্যটকদের পাখির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতেন তিনি।

বাইক্কা বিলে কোন পাখি কখন ‍আসে, কখন যায়, কোনে পাখিটি এবার নতুন এলো- এসব তথ্য সবার আগে মিলতো মিরাশ মিয়ার কাছে। কনকনে শীত উপেক্ষা করে পাখিরক্ষায় বিলের পর্যবেক্ষণ টাওয়ারেই রাতযাপন করতেন তিনি।
 
মৃত্যুকালে স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে ছাড়াও তিনি বহু গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন পরোপকারী, বিনয়ী ও প্রকৃতিপ্রেমী।

বড়গাঙ্গিনা সম্পদ ব্যবস্থাপনা সংগঠনের (আরএমও) প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারি ছিলেন মিরাশ মিয়া। 

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি
 

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত