সর্বশেষ

  ঢাবির রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট নির্বাচন: আ.লীগপন্থী ২৪, বিএনপিপন্থীরা ১টিতে জয়ী   প্রধানমন্ত্রীর সিলেট আগমন উপলক্ষ্যে মহানগর শ্রমিকলীগের সভা   অর্থমন্ত্রীর জীবনী ডকুমেন্টারিতে সুযোগ পেল মুক্তাক্ষরের শিক্ষার্থীরা   জাগো সিলেট আন্দোলনের আলোচনা সভা   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে দি হাঙ্গার প্রজেক্টেরে আলোচনা সভা   দক্ষিণ সুরমায় ২য় দিনের মত সিএইচসিপিদের কর্মবিরতি পালন   আম্বরখানার মণিপুরি পাড়া মাতালেন নকুল কুমার   চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠের যৌথ চ্যাম্পিয়ন সুনামগঞ্জের হাওর কন্যা ঐশি   নগরীর সোবহানীঘাটে আবাসিক হোটেল থেকে তরুণ-তরুণীর লাশ উদ্ধার   এতিমদের সাথে রোটারী মিডটাউনের মধ্যাহ্নভোজ   রোটারী ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের শীতবস্ত্র বিতরণ   স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করলেন অর্থমন্ত্রী   জামালগঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিকের কর্মরতদের অবস্থান কর্মসূচি   বিয়ানীবাজারে অগ্নিকাণ্ডে আড়াই লাখ টাকার ক্ষতি   ছুটির দিনে রান্নাঘরে প্রধানমন্ত্রী   রাজনগরে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত   সিলেটে ‘আত্মা’র আঞ্চলিক সভা অনুষ্ঠিত   চলে গেল প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে পুরষ্কার গ্রহণকারী বর্ণা : জকিগঞ্জে শোকের ছায়া   এলাকার উন্নয়নে স্থানীয়দের নির্বাচিত করুণ, মাগুড়ার কাউকে নয় : এহিয়া চৌধুরী   সালমান শাহ’র হত্যাকারীদের বিচারে দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন

গাঁদাছড়া থেকে প্রতিদিন পাচার হচ্ছে ১০ লাখ টাকার বালু

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৬ ০১:৩৮:৫৩

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : সোমবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৫ ॥ হবিগঞ্জ জেলার সংরক্ষিত বনাঞ্চল ও চা-রাবার বাগানকে হুমকীতে ফেলে গাঁদাছড়া থেকে অপরিকল্পিভাবে প্রতিদিন ১০ লাখ টাকার বালু পাচার করছে সংঘবদ্ধচক্র। এতে করে শুধু সংরক্ষিত বনাঞ্চল নয় হুমকীতে পড়েছে চা ও রাবার বাগানকে । তার সাথে হুমকীতে পড়ছে দেউন্দি-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কটিও। কারণ প্রতিদিন গাঁদাছড়া থেকে বড় ট্রাকে করে এ সড়ক দিয়ে বালুগুলো পাচার করা হচ্ছে। সড়কের সাথে হুমকীতে পড়েছে এ সড়কের ব্রিজগুলোও। রেহাই পাচ্ছে না দেউন্দি চা-বাগানের রাস্তাগুলো।
 
প্রতিদিন ৪০/৫০ ট্রাক সড়ক দিয়ে এসে শায়েস্তাগঞ্জে দেউন্দি সড়কে প্রবেশ করে দেউন্দি চা-বাগানের ভেতরের ইট সলিং রাস্তা করে প্রায় এককিলোমিটার অতিক্রম করে গাঁদাছড়া পৌঁছে বালু বোঝাই করে নিয়ে আসতে হচ্ছে। এসব বালু দেশের বিভিন্নস্থানে বিক্রি করে চক্রটি প্রতিদিন ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা লাভবান হলেও প্রাকৃতিক পরিবেশ পড়েছে হুমকীর মুখে।

সংরক্ষিত রঘুনন্দন বনাঞ্চলের আওতাধীন হলেও গাঁদাছড়া থেকে কিভাবে কারা বালু উত্তোলন করছেন এনিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যাইহোক এসব প্রশ্ন উপেক্ষা করে এ বালু উত্তোলনের ফলে শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, রঘুনন্দন বনাঞ্চল, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগানের টিলাগুলো ক্ষয় হচ্ছে।  রঘুনন্দন বনাঞ্চল কর্তৃপক্ষ কিছু না বললেও শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগান কর্তৃপক্ষ প্রভাবশালীদের সাথে কোন ভাবেই  পেরে উঠছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেউন্দি চা-বাগানের এক কর্মকর্তা বলেন- প্রতিযোগিতামূলকভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করা হচ্ছে।  এতে করে চা ও রাবার বাগান এবং সংরক্ষিত বনাঞ্চল হুমকীর মখে পড়েছে। তার সাথে পরিবেশ হচ্ছে বিপন্ন।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম বলেন, অবৈধভাবে বালু করা চলবে না। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মো. ছালাহ্ উদ্দীন চৌধুরী বলেন, হবিগঞ্জের পরিবেশ রক্ষায় তারা সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। আর এভাবে কাজ করায় পরিবেশ রক্ষা পাচ্ছে। তিনি বলেন, তারপরও আমাদের নজর সব সময় রয়েছে। নিয়মবর্হিভূতভাবে পরিবেশ বিপন্ন করা হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি বলে, হবিগঞ্জে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন অফিস নেই। তাই এখানের কাজ তাদের করতে হচ্ছে। পরিশেষে তিনি বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে সবাই একযোগে কাজ করলে আর কোন সমস্যা থাকবে না।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমএমসি/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত