সর্বশেষ

  মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে খাদিমনগর যুব কল্যাণ পরিষদের শ্রদ্ধাঞ্জলি   সিলেটে কাল থেকে শুরু হচ্ছে ‘বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎস’   রশিদিয়া দাখিল মাদরাসায় মাতৃভাষা দিবস উদযাপন   সিলেটে জুতা পায়ে শহীদ মিনারে উঠে শ্রদ্ধা জানালেন বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তারা!   ‘বাংরেজি’ ছাড়াতে হবে: শেখ হাসিনা   কমলগঞ্জে ধলাই নদীতে পড়ে শিশুর মৃত্যু   কমলগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত   নানা আয়োজনে মাতৃভাষা দিবস পালন করলো মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি   ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে সিলেটে শুরু হচ্ছে ‘লন্ডন ১৯৭১’ আলোকচিত্র প্রদর্শনী   স্কলার্স একাডেমিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন   জগন্নাথপুরে জুয়ার আসর থেকে আটক ৫   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে কিশোরী ধর্ষিত : ধর্ষক আটক   ব্লগার রাজীব হত‌্যা মামলার আসামি জঙ্গি রানা রিমান্ডে   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সিলেট জেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের পুষ্পস্তবক অর্পণ   সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়া হত্যা মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার   কমলগঞ্জে আইনজীবির বাড়িতে ডাকাতি : আহত ১   শাবিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের পুষ্পস্তবক অর্পণ   যেভাবে গ্রেফতার হলো ব্লগার রাজীব হত্যার মূল আসামি রানা   কমলগঞ্জের ধলাই নদী থেকে স্কুলছাত্রের মৃতদেহ উদ্ধার

গাঁদাছড়া থেকে প্রতিদিন পাচার হচ্ছে ১০ লাখ টাকার বালু

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৬ ০১:৩৮:৫৩

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : সোমবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৫ ॥ হবিগঞ্জ জেলার সংরক্ষিত বনাঞ্চল ও চা-রাবার বাগানকে হুমকীতে ফেলে গাঁদাছড়া থেকে অপরিকল্পিভাবে প্রতিদিন ১০ লাখ টাকার বালু পাচার করছে সংঘবদ্ধচক্র। এতে করে শুধু সংরক্ষিত বনাঞ্চল নয় হুমকীতে পড়েছে চা ও রাবার বাগানকে । তার সাথে হুমকীতে পড়ছে দেউন্দি-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কটিও। কারণ প্রতিদিন গাঁদাছড়া থেকে বড় ট্রাকে করে এ সড়ক দিয়ে বালুগুলো পাচার করা হচ্ছে। সড়কের সাথে হুমকীতে পড়েছে এ সড়কের ব্রিজগুলোও। রেহাই পাচ্ছে না দেউন্দি চা-বাগানের রাস্তাগুলো।
 
প্রতিদিন ৪০/৫০ ট্রাক সড়ক দিয়ে এসে শায়েস্তাগঞ্জে দেউন্দি সড়কে প্রবেশ করে দেউন্দি চা-বাগানের ভেতরের ইট সলিং রাস্তা করে প্রায় এককিলোমিটার অতিক্রম করে গাঁদাছড়া পৌঁছে বালু বোঝাই করে নিয়ে আসতে হচ্ছে। এসব বালু দেশের বিভিন্নস্থানে বিক্রি করে চক্রটি প্রতিদিন ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা লাভবান হলেও প্রাকৃতিক পরিবেশ পড়েছে হুমকীর মুখে।

সংরক্ষিত রঘুনন্দন বনাঞ্চলের আওতাধীন হলেও গাঁদাছড়া থেকে কিভাবে কারা বালু উত্তোলন করছেন এনিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যাইহোক এসব প্রশ্ন উপেক্ষা করে এ বালু উত্তোলনের ফলে শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, রঘুনন্দন বনাঞ্চল, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগানের টিলাগুলো ক্ষয় হচ্ছে।  রঘুনন্দন বনাঞ্চল কর্তৃপক্ষ কিছু না বললেও শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগান কর্তৃপক্ষ প্রভাবশালীদের সাথে কোন ভাবেই  পেরে উঠছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেউন্দি চা-বাগানের এক কর্মকর্তা বলেন- প্রতিযোগিতামূলকভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করা হচ্ছে।  এতে করে চা ও রাবার বাগান এবং সংরক্ষিত বনাঞ্চল হুমকীর মখে পড়েছে। তার সাথে পরিবেশ হচ্ছে বিপন্ন।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম বলেন, অবৈধভাবে বালু করা চলবে না। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মো. ছালাহ্ উদ্দীন চৌধুরী বলেন, হবিগঞ্জের পরিবেশ রক্ষায় তারা সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। আর এভাবে কাজ করায় পরিবেশ রক্ষা পাচ্ছে। তিনি বলেন, তারপরও আমাদের নজর সব সময় রয়েছে। নিয়মবর্হিভূতভাবে পরিবেশ বিপন্ন করা হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি বলে, হবিগঞ্জে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন অফিস নেই। তাই এখানের কাজ তাদের করতে হচ্ছে। পরিশেষে তিনি বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে সবাই একযোগে কাজ করলে আর কোন সমস্যা থাকবে না।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমএমসি/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত