সর্বশেষ

  হাওরবাসীর দুর্যোগ নিয়ে তামাশা করবেন না   “আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, আমার কোন চাওয়া পাওয়া নেই”   গোলাপগঞ্জে বিদ্যুতায়িত হয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু   রশিদিয়া দাখিল মাদরাসায় বিশ্ব বই দিবস উদযাপন   এনইইউবিতে ‘ক্যারিয়ার ক্লাব’র যাত্রা শুরু   ধর্মপাশা সদর ইউনিয়নের বাজেট ঘোষণা   জামালগঞ্জে এক কিশোরীর দুই জন্ম নিবন্ধন: বাল্যবিবাহ সম্পন্ন, এলাকায় তোলপাড়   বিশ্বনাথে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে র‌্যালী   কাউন্সিলর আফতাবকে ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সংর্বধনা   সব চেষ্টা ব্যর্থ, তলিয়ে গেল শনি: হাওরপাড়ে চলছে কৃষকের আহাজারি   হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার পাবে মাসে ৩০ কেজি চাল ও নগদ অর্থ   মহাজনী ও এনজিও ঋনের চাপ: সব হারিয়ে দিশেহারা হাওরবাসী   বাবাকে ছাপিয়ে যেতে চান টাইগার শ্রফ   বাজারে আসুসের তিন জেনফোন   সুনামগঞ্জে শনির হাওরের বাঁধে ৩টি স্থানে ভাঙন   মহামতি লেনিনের জন্মবার্ষিকীতে সিলেটে লাল পতাকা মিছিল   ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে   লাখাইয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ ৩ ডাকাত গ্রেফতার   আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন তারেকের শাশুড়ি সিলেটের সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানু   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি হয়েছে : সিলেটে খাদ্যমন্ত্রী

গাঁদাছড়া থেকে প্রতিদিন পাচার হচ্ছে ১০ লাখ টাকার বালু

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৬ ০১:৩৮:৫৩

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : সোমবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৫ ॥ হবিগঞ্জ জেলার সংরক্ষিত বনাঞ্চল ও চা-রাবার বাগানকে হুমকীতে ফেলে গাঁদাছড়া থেকে অপরিকল্পিভাবে প্রতিদিন ১০ লাখ টাকার বালু পাচার করছে সংঘবদ্ধচক্র। এতে করে শুধু সংরক্ষিত বনাঞ্চল নয় হুমকীতে পড়েছে চা ও রাবার বাগানকে । তার সাথে হুমকীতে পড়ছে দেউন্দি-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কটিও। কারণ প্রতিদিন গাঁদাছড়া থেকে বড় ট্রাকে করে এ সড়ক দিয়ে বালুগুলো পাচার করা হচ্ছে। সড়কের সাথে হুমকীতে পড়েছে এ সড়কের ব্রিজগুলোও। রেহাই পাচ্ছে না দেউন্দি চা-বাগানের রাস্তাগুলো।
 
প্রতিদিন ৪০/৫০ ট্রাক সড়ক দিয়ে এসে শায়েস্তাগঞ্জে দেউন্দি সড়কে প্রবেশ করে দেউন্দি চা-বাগানের ভেতরের ইট সলিং রাস্তা করে প্রায় এককিলোমিটার অতিক্রম করে গাঁদাছড়া পৌঁছে বালু বোঝাই করে নিয়ে আসতে হচ্ছে। এসব বালু দেশের বিভিন্নস্থানে বিক্রি করে চক্রটি প্রতিদিন ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা লাভবান হলেও প্রাকৃতিক পরিবেশ পড়েছে হুমকীর মুখে।

সংরক্ষিত রঘুনন্দন বনাঞ্চলের আওতাধীন হলেও গাঁদাছড়া থেকে কিভাবে কারা বালু উত্তোলন করছেন এনিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যাইহোক এসব প্রশ্ন উপেক্ষা করে এ বালু উত্তোলনের ফলে শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, রঘুনন্দন বনাঞ্চল, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগানের টিলাগুলো ক্ষয় হচ্ছে।  রঘুনন্দন বনাঞ্চল কর্তৃপক্ষ কিছু না বললেও শাহজিবাজাবার রাবার বাগান, দেউন্দি, লালচান্দ চা-বাগান কর্তৃপক্ষ প্রভাবশালীদের সাথে কোন ভাবেই  পেরে উঠছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেউন্দি চা-বাগানের এক কর্মকর্তা বলেন- প্রতিযোগিতামূলকভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করা হচ্ছে।  এতে করে চা ও রাবার বাগান এবং সংরক্ষিত বনাঞ্চল হুমকীর মখে পড়েছে। তার সাথে পরিবেশ হচ্ছে বিপন্ন।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম বলেন, অবৈধভাবে বালু করা চলবে না। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মো. ছালাহ্ উদ্দীন চৌধুরী বলেন, হবিগঞ্জের পরিবেশ রক্ষায় তারা সার্বক্ষণিক কাজ করছেন। আর এভাবে কাজ করায় পরিবেশ রক্ষা পাচ্ছে। তিনি বলেন, তারপরও আমাদের নজর সব সময় রয়েছে। নিয়মবর্হিভূতভাবে পরিবেশ বিপন্ন করা হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি বলে, হবিগঞ্জে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন অফিস নেই। তাই এখানের কাজ তাদের করতে হচ্ছে। পরিশেষে তিনি বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে সবাই একযোগে কাজ করলে আর কোন সমস্যা থাকবে না।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমএমসি/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত