সর্বশেষ

  মৌলভীবাজারে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আটক ৩   সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সাত্তার আর নেই: এমপি মানিকের শোক   ছাতকে আওয়ামী লীগ নেত্রীর মাতৃ বিয়োগ : এমপিসহ বিভিন্ন মহলের শোক   বিশ্বনাথের খেলাফত মজলিসের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন   বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১   শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আজ দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ :শফিক চৌধুরী   সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু   মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে ৩ ভাইয়ের মৃত্যু   সিলেটে ছাত্রলীগ কর্মী মিন্নতের কব্জিকর্তন মামলার প্রধান আসামী শাহীনসহ গ্রেফতার ২   ছাতকে সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের   কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি-লিট ডিগ্রি পেলেন শেখ হাসিনা   ছাতকে পৃথক সংঘর্ষে আহত ৫০, গ্রেফতার ১   জকিগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার   এতিমদের নিয়ে ক্যাডেট কলেজ ক্লাব সিলেটের ইফতার মাহফিল   শাবিতে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ওয়েবসাইট উদ্বোধন   শাবির স্বপ্নোত্থানের ঈদবস্ত্র বিতরণ   সেই কলকাতাকে হারিয়ে ফাইনালে সাকিবদের হায়দরাবাদ   ‘আদর্শ সমাজ গঠনে রমজানের শিক্ষাকে কাজে লাগাতে হবে’   সাচনা বাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানপাঠ পরিদর্শনে রঞ্জিত সরকার   জামালগঞ্জে আগুনে পুড়ে ছাই ৯ দোকান: দেড় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

নবীগঞ্জে বউ-শাশুড়ি খুন

প্রকাশিত : ২০১৮-০৫-১৫ ০১:৫৭:১২

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : ॥ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে লন্ডনপ্রবাসী এক ব্যক্তির মা ও স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার রাত ১১টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের সাদুল্লাপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে বলে নবীগঞ্জ থানার ওসি এসএম আতাউর রহমান জানান।

নিহতরা হলেন- ওই গ্রামের লন্ডন প্রবাসী আকলাক চৌধুরীর মা মালা বেগম (৫০) এবং স্ত্রী রুমি বেগম (২২)।

স্থানীয়রা জানান, মৃত রাজা মিয়ার ছেলে আকলাক দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন। দুই বছর আগে একই গ্রামের রুমির সঙ্গে তার বিয়ে হয়। ওই বাড়িতে কেবল মালা আর রুমিই থাকতেন। দিনের বেলায়ও বাড়ির কলাপসিবল গেইটে তালা লাগানো থাকত।

রোববার রাত ১১টার দিকে হঠাৎ ‘আগুন আগুন’ চিকিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা বেরিয়ে এসে আকলাক মিয়ার বাড়ির বাইরে রুমি এবং বাড়ির ভেতরে মালা বেগমকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।

ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় তাদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, দুজনেরই মৃত্য হয়েছে আগেই।

খবর পেয়ে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসম সামছুল ইসলাম, সার্কেল এসপি পারভেজ আলম রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

রুমির বড় ভাই পল্লী চিকিৎসক নজরুল ইসলাম বলেন- প্রতিদিনই তিনি তার বোনের বাড়ির লোকজনের খোঁজ খবর রাখতেন। রোববার রাতে রুমি ফোন করে চোখের ব্যথার ওষুধ চেয়েছিলেন। এক প্রতিবেশীর মাধ্যমে রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি বোনের জন্য ওষধ পাঠিয়ে দেন। তার ঘণ্টা দেড়েক পর তিনি লাশ উদ্ধারের খবর পান।

সাদুল্লাপুর গ্রামের এক ব্যক্তি জানান- আকলাকের বাড়ি থেকে তার মা ও স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় ঘরের একটি টেবিলে চারটি চায়ের কাপ দেখেছেন তারা। তা থেকে তার ধারণা হয়েছে, হত্যাকারীরা হয়ত আগে থেকেই ওই বাড়িতে ছিল, তারা চাও খেয়েছে।   

তবে বাড়ি থেকে কোনো মালামাল খোয়া গেছে কি না, তা নিশ্চিত করতে পারেননি নিহতদের আত্মীয়রা। পুলিশ ঘরের ভেতরে একপাটি জুতা ও একটি হাতঘড়ি পেয়েছে পড়ে থাকা অবস্থায়। সেগুলো কাদের, তাও নিশ্চিত করা যায়নি।

ওসি আতাউর রহমান বলেন, “ধারণা করা হচ্ছে, পরিকল্পিতভাবে তাদের হত্যা করা হয়েছে। নিহতদের শরীরে ধারারো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ বিষয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।”
উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত