সর্বশেষ

  বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ওয়ান ডে সিরিজ শুরু   যাদুকাটা নদীর তীরে পণতীর্থ বারুণী স্নান আজ   ধন্যবাদ ১৭ পদাতিক ডিভিশনকে : আতিয়া মহলের বাসিন্দারা উদ্ধার   সিলেটের জঙ্গি আস্তানায় অপারেশন ‘স্প্রিং রেইন’ চলছে   সিলেটে জঙ্গি আস্তানায় প্যারা-কমান্ডোর অভিযান শুরু   সিলেটে জঙ্গি আস্তানা : ঘটনাস্থলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম   ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে সদর উপজেলা যুবলীগের বিক্ষোভ   আজ জাতীয় গণহত্যা দিবস   আতিয়া মহলের বাসিন্দার প্রশ্ন : আমরা কি জিম্মি?   পুলিশ বক্সে ঢোকার চেষ্টা করেছিল আত্মঘাতী যুবক!   টুকের বাজারে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন   কী আছে জঙ্গি আস্তানার আতিয়া মহলের জিম্মিদের ভাগ্যে?   ঢাকায় বিমানবন্দরের সামনে আত্মঘাতী হামলায় এক জঙ্গি নিহত   আতিয়া মহলে অভিযান এসেস করতে ঘটনাস্থলে প্যারা-কমান্ডো দল   আতিয়া মহলে জিম্মি আছেন দু’শতাধিক মানুষ   জঙ্গি আস্তানায় অভিযান: উৎকণ্ঠায় অপেক্ষা উৎসুক জনতার   অশ্রুসিক্ত নয়নে স্বামী মহসীন আলীর স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করলেন স্ত্রী সায়রা মহসীন   জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে সোয়াত, অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশ   দক্ষিণ সুরমায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘিরে ফেলেছে সোয়াত: যে কোন সময় অভিযান   সিলেট পৌঁছেছে সোয়াত টিম : চলছে মূল অভিযানের প্রস্তুতি

হাথুরুর কারণেই ‘ব্যাটসম্যান’ মাশরাফি

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২৫ ০১:১৬:৩৭

ক্রীড়া ডেস্ক : বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৫ ॥ নিয়মিতই দেখা যাচ্ছে দৃশ্যটা। ইনিংসের শেষের দিকে ব্যাট করতে নেমে বেশ দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিচ্ছেন মাশরাফি। রান করছেন ১৪-১৫ কিংবা ২০। তার এই ১৪-১৫ রানের ইনিংসটা যেন ১০০-১৫০ রানের সমতুল্য। বাংলাদেশ দলের যে ইনিংসটা শেষ হয়ে যেতো ২৪৫-২৫০-এর মধ্যে, সে ইনিংসটাকে মাশরাফি নিয়ে যাচ্ছেন ২৭৫-২৮০-তে।

এ তো গেলো জাতীয় দলের কথা। ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগ, বিপিএলে কিন্তু ‘ব্যাটসম্যান’ মাশরাফি যেন আরও বেশি প্রস্ফুটিত। আরও বেশি বিধ্বংসী। মূলতঃ তার ব্যাটিংয়ের কাছেই আজ দিনের প্রথম ম্যাচে ১৭৬ রান করেও হেরে যেতে হলো চিটাগাং ভাইকিংসকে। ৩২ বলে তিনি অপরাজিত ছিলেন ৫৬ রানে।

এমন অসাধারণ ব্যাটিংয়ের রহস্য কি? এর আগেও জানতে চেয়েছিল সাংবাদিকরা। আজও জানতে চাইলেন। জানার ইচ্ছা ছিল, ব্যাটিং নিয়ে আলাদাভাবে কোন কাজ-টাজ করছেন মাশরাফি? এই জানতে চাওয়াতেই বের হয়ে এলো মাশরাফির ব্যাটিংয়ের আসল রহস্য। তিনিই জানালেন, জাতীয় দলের কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের কারণে কিভাবে এমন একজন কার্যকরী ব্যাটসম্যান হয়ে উঠছেন তিনি।

রীতিমত একজন ব্যাটসম্যান হয়ে ওঠার পেছনের গল্প জানাতে গিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আসলে এ জন্য হাথুরুসিংহেকে ধন্যবাদ। কারণ, (জাতীয় দলে) সাধারণত আমরা এখন সাতজন ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলতে নামি। নরম্যালি আমি আটে ব্যাটিংয়ে যাই। তো সে আমার সাথে (ব্যাটিং নিয়ে) অনেক কথা বলেছে। অনেকবারই বলেছে যে, কিভাবে ব্যাটিংটা ভালো করতে পারি। হয়তো বা আগের মত সেভাবে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করি না। আগেও বলেছিলাম, আমি ব্যাটিং প্র্যাকটিস করি না। তারপরও ও (হাথুরু) সব সময় আমাকে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করার জন্য বলে।’

শুধু তাই নয়, জেনুইন ব্যাটসম্যানরা যখন গ্রানাইটের ওপর প্র্যাকটিস করে, তখনও মাশরাফিকে সেখানে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করার জন্য বলেন কোচ হাথুরু। সেটাই জানালেন মাশরাফি। বললেন, ‘ব্যাটসম্যানরা গ্রানাইটে যে অনুশীলন করে, সেখানেও আমাকে প্র্যাকটিস করতে বলে হাথুরু।’

কেন হাথুরুসিংহে মাশরাফিকে ব্যাটসম্যান হিসেবেও গড়ে তুলতে চান, সেটা জানালেন ম্যাশ নিজেই। তিনি বলেন, ‘যেহতু (জাতীয় দলে) সাতজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করে। শেষ দিকে যেন দলের উপকার হয়, সে জন্য সে (হাথুরু) আমাকে সব সময় সহযোগিতা করেছে যেন ব্যাট ভালো করতে পারি। অনেক মোটিভেটও করেছে যে, আমার থেকে যদি ১৫-২০টা রান আসে, তাহলে অন্য পাশে যে ব্যাটসম্যান থাকে সে ১৫টা রান করলো। তাহলেও তো অনেক, অথ্যাৎ ৩০-৩৫ রানের পার্টনারশিপ হয়ে গেলো। যেটা দলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

এর ফলে কী উপকার হচ্ছে সেটাও বললেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘এ কারণে দলের অনেক উপকারও হচ্ছে। এটা অন্তত আমার মাথায় ঢুকেছে যে, আমি যদি শটস না খেলে রানটা ধরতে পারি। যদি দল ২২০-৩০ রানে আটকে যেতে চায়, আমি যদি ওখানে নেমে ১৫-২০ করে দিতে পারি, তাহলে পার্টনারশিপ ৩০ রানের হয়ে যাবে। তাহলে রানটা বেড়ে যাবে অনেকখানি। এজন্যই বলি যে, হাথুরুসিংহে আমাকে অনেক হেল্প করেছে। এবং সব সময় ব্যাটিংয়ের সুযোগ করে দেয়। অনেক সময় দেখা গেলো আমিই ইচ্ছা করেই করি। তবে সে সব সময় চায়, যেন আমি ব্যাটিং করি।’

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত