সর্বশেষ

  গ্রিক দেবীর ভাস্কর্য সরানোর কাজ চলছে   প্রধানমন্ত্রী ও প্রশাসনের কাছে জগন্নাথপুরে স্কুলছাত্র শুকুর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি   ‘যুদ্ধ বিধ্বস্ত পৃথিবীতে নজরুল সাম্যের কথা বলে গেছেন’   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের নতুন সদস্যদের অভিষেক আজ   মাহে রমজান উপলক্ষে জগন্নাথপুরে প্রবাসীদের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ   জগন্নাথপুরে অস্ত্রসহ ৬ ডাকাত গ্রেফতার   বিয়ানীবাজারে সড়ক সংস্কারের দাবিতে গ্রামবাসীর অবরোধ   শাহী ঈদগাহ থেকে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার   রামপুরে বাগান কর্তৃপক্ষের সাথে শ্রমিকদের বিরোধ নিষ্পত্তি করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে বিভিন্ন সংস্থার উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ ও ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প   জৈন্তাপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রকে সিলেটে হস্তান্তর না করতে প্রতিমন্ত্রীকে স্মারকলিপি   নবীগঞ্জের ২নং ইউনিয়নে শেখ হাসিনা’র শতভাগ বিদ্যুৎ উপহার দিলেন কেয়া চৌধুরী   আজ ওসমানীনগরের বুরুঙ্গা গণহত্যা দিবস   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হবিগঞ্জের সর্বত্র ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে : এমপি আবু জাহির   সুনামগঞ্জে হামের প্রাদুর্ভাব : আতঙ্কে অভিভাবকরা   অনিল কিষণ সিংহের ৮০তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন শুক্রবার   হবিগঞ্জে ক্ষুদে নৃত্য শিল্পীর সংবর্ধনা   সাংবাদিক মামুন চৌধুরী’র পিতা ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত   কৃষকদের ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন   সনামগঞ্জ জেলা কৃষক লীগের আহবায়ক কমিটি গঠন

হাথুরুর কারণেই ‘ব্যাটসম্যান’ মাশরাফি

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২৫ ০১:১৬:৩৭

ক্রীড়া ডেস্ক : বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৫ ॥ নিয়মিতই দেখা যাচ্ছে দৃশ্যটা। ইনিংসের শেষের দিকে ব্যাট করতে নেমে বেশ দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিচ্ছেন মাশরাফি। রান করছেন ১৪-১৫ কিংবা ২০। তার এই ১৪-১৫ রানের ইনিংসটা যেন ১০০-১৫০ রানের সমতুল্য। বাংলাদেশ দলের যে ইনিংসটা শেষ হয়ে যেতো ২৪৫-২৫০-এর মধ্যে, সে ইনিংসটাকে মাশরাফি নিয়ে যাচ্ছেন ২৭৫-২৮০-তে।

এ তো গেলো জাতীয় দলের কথা। ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগ, বিপিএলে কিন্তু ‘ব্যাটসম্যান’ মাশরাফি যেন আরও বেশি প্রস্ফুটিত। আরও বেশি বিধ্বংসী। মূলতঃ তার ব্যাটিংয়ের কাছেই আজ দিনের প্রথম ম্যাচে ১৭৬ রান করেও হেরে যেতে হলো চিটাগাং ভাইকিংসকে। ৩২ বলে তিনি অপরাজিত ছিলেন ৫৬ রানে।

এমন অসাধারণ ব্যাটিংয়ের রহস্য কি? এর আগেও জানতে চেয়েছিল সাংবাদিকরা। আজও জানতে চাইলেন। জানার ইচ্ছা ছিল, ব্যাটিং নিয়ে আলাদাভাবে কোন কাজ-টাজ করছেন মাশরাফি? এই জানতে চাওয়াতেই বের হয়ে এলো মাশরাফির ব্যাটিংয়ের আসল রহস্য। তিনিই জানালেন, জাতীয় দলের কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের কারণে কিভাবে এমন একজন কার্যকরী ব্যাটসম্যান হয়ে উঠছেন তিনি।

রীতিমত একজন ব্যাটসম্যান হয়ে ওঠার পেছনের গল্প জানাতে গিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আসলে এ জন্য হাথুরুসিংহেকে ধন্যবাদ। কারণ, (জাতীয় দলে) সাধারণত আমরা এখন সাতজন ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলতে নামি। নরম্যালি আমি আটে ব্যাটিংয়ে যাই। তো সে আমার সাথে (ব্যাটিং নিয়ে) অনেক কথা বলেছে। অনেকবারই বলেছে যে, কিভাবে ব্যাটিংটা ভালো করতে পারি। হয়তো বা আগের মত সেভাবে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করি না। আগেও বলেছিলাম, আমি ব্যাটিং প্র্যাকটিস করি না। তারপরও ও (হাথুরু) সব সময় আমাকে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করার জন্য বলে।’

শুধু তাই নয়, জেনুইন ব্যাটসম্যানরা যখন গ্রানাইটের ওপর প্র্যাকটিস করে, তখনও মাশরাফিকে সেখানে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করার জন্য বলেন কোচ হাথুরু। সেটাই জানালেন মাশরাফি। বললেন, ‘ব্যাটসম্যানরা গ্রানাইটে যে অনুশীলন করে, সেখানেও আমাকে প্র্যাকটিস করতে বলে হাথুরু।’

কেন হাথুরুসিংহে মাশরাফিকে ব্যাটসম্যান হিসেবেও গড়ে তুলতে চান, সেটা জানালেন ম্যাশ নিজেই। তিনি বলেন, ‘যেহতু (জাতীয় দলে) সাতজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করে। শেষ দিকে যেন দলের উপকার হয়, সে জন্য সে (হাথুরু) আমাকে সব সময় সহযোগিতা করেছে যেন ব্যাট ভালো করতে পারি। অনেক মোটিভেটও করেছে যে, আমার থেকে যদি ১৫-২০টা রান আসে, তাহলে অন্য পাশে যে ব্যাটসম্যান থাকে সে ১৫টা রান করলো। তাহলেও তো অনেক, অথ্যাৎ ৩০-৩৫ রানের পার্টনারশিপ হয়ে গেলো। যেটা দলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

এর ফলে কী উপকার হচ্ছে সেটাও বললেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘এ কারণে দলের অনেক উপকারও হচ্ছে। এটা অন্তত আমার মাথায় ঢুকেছে যে, আমি যদি শটস না খেলে রানটা ধরতে পারি। যদি দল ২২০-৩০ রানে আটকে যেতে চায়, আমি যদি ওখানে নেমে ১৫-২০ করে দিতে পারি, তাহলে পার্টনারশিপ ৩০ রানের হয়ে যাবে। তাহলে রানটা বেড়ে যাবে অনেকখানি। এজন্যই বলি যে, হাথুরুসিংহে আমাকে অনেক হেল্প করেছে। এবং সব সময় ব্যাটিংয়ের সুযোগ করে দেয়। অনেক সময় দেখা গেলো আমিই ইচ্ছা করেই করি। তবে সে সব সময় চায়, যেন আমি ব্যাটিং করি।’

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত