সর্বশেষ

  উত্তরপূর্ব’র ঈদ শুভেচ্ছা   ইলিয়াস পত্নী তাহসিনা রুশদী লুনা’র ঈদ শুভেচ্ছা   ঈদের নামাজের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন মুসল্লিরা: সিলেটে ঈদগাহে জামাত আদায় নিয়ে শঙ্কা   হতবাক অপু   সিলেটে ঈদ জামাত কখন কোথায়   ইসকন সিলেটের রথযাত্রা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অন্যন্য ঐতিহ্য : মেয়র আরিফ   চাঁদ দেখা গেছে : কাল প্রতীক্ষার ঈদ উৎসব   ইংল্যান্ডের নিউক্যাসেলে ঈদ উৎসবের ভিড়ে গাড়ি : আহত ৬   ইতিহাস-ঐতিহ্য ধরে রাখতে প্রকাশনার বিকল্প নেই : শফিকুর রহমান চৌধুরী   নামতে হবে ব্যাটিংয়ে, মগ্ন তিনি বইয়ের পাতায়   তারেক মাসুদকে উৎসর্গ করে পতুর্গালে প্রথম চলচ্চিত্র উৎসব   ওসমানীনগরে মোবাইল ফোনে উপবৃত্তির টাকা উত্তোলনে বিড়ম্বনার শিকার শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা   লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত ফুটবলারকে লন্ডন প্রবাসী ও বন্ধু মহলের সাহায্য প্রদান   বিশ্বনাথে ভিক্ষুকদের মধ্যে শফিকুর রহমান চৌধুরীর অর্থ বিতরণ   জগন্নাথপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মোয়াজ্জিনের মৃত্যু   ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের শুভেচ্ছা   ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নগরবাসীর প্রতি সিসিক মেয়রের শুভেচ্ছা   এসএসসির পর ভর্তি উদ্বেগ   বরমচাল দরিদ্র কল্যাণ সংগঠনের উদ্যোগে দুস্থদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ   পাকিস্তানে তেলের লরিতে আগুন : নিহত ১৪০

আল আমিনকে রাগিয়ে দিয়েছিলেন শহিদ!

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২৫ ০০:২২:২২

ক্রীড়া ডেস্ক : বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৫ ॥ বরিশাল বুলসের ডানহাতি পেসার আল আমিন এবারের বিপিএলের প্রথম হ্যাটট্রিকের মালিক হয়ে গেছেন। সব মিলিয়ে এটি বিপিএলের দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। প্রথমটি করেছিলেন মোহাম্মদ সামি। মজার ব্যাপার হলো ড্রেসিংরুমে বসে সামিও দেখেছেন আল আমিনেরর কীর্তি! ১০৯ রানের লক্ষ্য ব্যাটিংয়ে নামা সিলেটের টপঅর্ডার গুড়িয়ে দিয়েছেন তিনিই। আল আমিনের এমন অগ্নিরূপের কারণ হতে পারেন সিলেটের মোহাম্মদ শহিদ। তিনিই তো রাগিয়ে দিয়েছিলেন আল আমিনকে!

ঘটনা বরিশালের ইনিংসের শেষ দিকে। দলের দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে আল আমিনকে বোল্ড করেন শহিদ। আল আমিনের বিদায়ের মাধ্যমে ১০৮ রানে গুটিয়ে যায় বরিশাল।

সরাসরি বোল্ড হওয়ার কষ্টটা হয়তো নিয়ন্ত্রণ করতে পারেননি আল আমিন। বোলার শহিদের দিকে তেড়েফুড়ে ছুটে যান তিনি। শরীর দিয়ে ধাক্কাও দিয়ে বসেন। এ নিয়ে সৃষ্টি হয় উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়। পরে তা সামাল দিতে হস্তক্ষেপ করতে হয় দুই আম্পায়ারকে। এগিয়ে আসেন সিলেটের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও। সবার প্রচেষ্টায় নিবৃত্ত হন আল আমিন। কিন্তু মনের ভিতরে রাগ ঠিকই পুষে রেখেছিলেন তিনি।

আল আমিনের রাগটা প্রকাশ পেলো সিলেট ব্যাটিংয়ে নামার পর। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসেই মুমিনুল হককে বিদায় করেন তিনি। মুমিনুলকে আউট করেই রাগের আগুনটা জ্বালান আল আমিন। সেই আগুনে পুড়ে সিলেটের টপ অর্ডারকে ভষ্ম করেন তিনি পরের ওভারে।

ওই ওভারের প্রথম বলে তাকে চার মারেন রবি বোপারা। পরের বলটা কিছুটা ফুলটস ছিলো। তাতে ব্যাট বাড়িয়ে দিয়ে উইকেটকিপার ব্রেন্ডন টেলরের কাছে ক্যাচ দিয়ে বসেন বোপারা। পরের বলে আল আমিনের বিষাক্ত সুইংয়ের শিকার হন নুরুল হাসান সোহান। পরপর দুই উইকেট নিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলেন আল আমিন।

কিন্তু তখনো কেউ আশা করতে পারেনি যে, হ্যাটট্রিক হতে পারে। কারণ স্ট্রাইকে যে মুশফিকুর রহিম- মিস্টার ডিপেন্ডেবল। কিন্তু অফস্ট্যাম্পের সামান্য বাইরে পরা বল সুইং করে ঢুকে যায় স্ট্যাম্পে। আক্ষরিক অর্থেই ভেঙে দেয় মুশফিকের মিডল স্ট্যাম! বেল মাটিতে পড়ার আগেই দেখা যায় মুশফিকের স্ট্যম্পের ভাঙা অংশ উড়ছে বাতাসে!

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত