সর্বশেষ

  কানাইঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালিত   বৃটেন প্রবাসী বাঙালিরা বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় স্মরণ করল ভাষাশহীদদের   উলালমহল পূর্বপাড়া একতা সমিতির বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ক্রিকেট টুর্নামেন্টর পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   বিশ্বনাথে ১০ মামলার আসামী ডাকাত আবুল গ্রেপ্তার   মাতৃভাষা দিবসে বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভা   সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার : আজও চালু হয়নি পাঠাগার ও মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রহশালা   এমপি লিটন হত্যা : সুন্দরগঞ্জের সাবেক এমপি কাদের গ্রেপ্তার   শানে রিসালত মহাসম্মেলন সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা কাল   আরডিআরএস বাংলাদেশ শ্রীমঙ্গল ইউনিটের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   জেদ্দায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত   লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ   বলদী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন   দক্ষিণ এশিয়ান সাহিত্য সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন মাইস্নাম রাজেশ   বাইসাইকেলে বরযাত্রা!   ‘শিশুদের নিজেদের সংস্কৃতির শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে’   সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সভা   মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে খাদিমনগর যুব কল্যাণ পরিষদের শ্রদ্ধাঞ্জলি

সহজ লক্ষ্যে ঢাকা ডায়নামাইটসের কষ্টের জয়

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২৩ ০০:০২:৪৯

ক্রীড়া ডেস্ক : সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৫ ॥ বিপিএল সিজন থ্রি উদ্বোধনীর দ্বিতীয় ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটস ছয় উইকেটে হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে। মাত্র ১১১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে চার বল বাকী রেখে চার উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় ঢাকা।

২৯ রানের শামসুর রহমানকে মাশরাফি ফিরিয়ে দিলেও শ্রীলঙ্কার লিজেন্ড কুমার সাঙ্গাকারা ও পাকিস্তানের নাসের জামশেদের ৫৫ রানের জুটি জয়ের ভীত গড়ে দেয়।

দলের পক্ষে নাসির জামশেদ সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন। কুমিল্লার পক্ষে দুটি উইকেট নেন পেসার আবু হায়দার রনি।

এরআগে মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে আট উইকেটে ১১০ রান করে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই ওপেনার ইমরুল কায়েসকে তুলে নেয় পেসার আবুল হাসান। মিড অফে ফরহাদ রেজার ক্যাচ পরিণত হওয়ার আগে নিজের এবং দলের রানের খাতা না খুলেই সাজঘরে ফিরেন কায়েস।

দলীয় আট রানে সাজঘরে ফিরেন আরেক ওপেনার লিটন দাস। ফরহাদ রেজার বলে জোরে মারতে গিয়ে মিড অনে মুস্তাফিজের হাতে ধরা পড়েন লিটন।

দুই উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা কুমিল্লা আরো বিপদে পড়ে দলীয় ২২ রানে টপ অর্ডারে শুভাগত হোম আর ২৭ রানে মিডল অর্ডারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অভিজ্ঞ মারলন স্যামুয়েলসকে হারিয়ে। শুভাগতকে কভার পয়েন্টে ইয়াসির শাহর হাতে ক্যাচ বানিয়ে আর স্যামুয়েলসকে চমৎকার এক ডেলিভারিতে লেগ স্ট্যাম্পের বেল ফেলে দেন কাটার মুস্তাফিজ।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা কুমিল্লা থামে ১১০ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন অধিনায়ক মাশরাফি। ঢাকার পক্ষে আবুল হাসান তিনটি ও মোশাররফ রুবেল দুটি উইকেট নেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত