সর্বশেষ

  ছাতকে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক ১   শ্রীমঙ্গল বিজিবি’র বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন   মুক্তিযোদ্ধারা হচ্ছেন জাতির সূর্যসন্তান : শফিক চৌধুরী   বিয়ানীবাজার পৌর মেয়রের বাজেটে বড় চমক : সাড়ে ৪৬ কোটি টাকার বাজেটে উন্নয়ন ব্যয় ৯১ শতাংশের বেশি   দিরাইয়ে যুব নারীদের হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন   ডিএনএ রিপোর্টে সত্যতা মেলেনি : আতিয়া মহলে নিহতদের মধ্যে নেই জঙ্গি মুসা   বাহুবলে অবৈধ স্পিরিট বিক্রি করায় দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা   ছাতকে ১৬টি বিষধর সাপ আটক   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের অসহনীয় চাঁদাবাজী   যাকাতের অর্থ আয়বর্ধক কাজে ব্যয় করতে হবে: রাহাত আনোয়ার   বজ্রপাতের কারণে পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড় ধস   কমলগঞ্জে সংসদ সদস্য’র ঐচ্ছিক তহবিলের টাকা বিতরণ   এপেক্সিয়ান চন্দন দাসের মায়ের মৃত্যুতে সাবেক মেয়র কামরানের শোক   মওদুদের জন্য খাট পাঠাতে চান নাসিম   মসজিদ আল হারামে শবে কদরের রাতে ২০ লাখের বেশি মানুষ মোনাজাতে শরীক   পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের শুভেচ্ছা   জ্যেষ্ঠ সাংসদদের পাশে পাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী   গাজীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় ১ জনের মৃত্যু   গ্রামীনফোন’র ঈদ আয়োজনে আয়নাবাজি : ৪টি চ্যানেল, ২০টি নাটক   বৃষ্টির দিনে যেমন পোশাক

শেষ বলে রংপুরের নাটকীয় জয়

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২২ ২১:৫২:২২

ক্রীড়া ডেস্ক : রোববার, ২২ নভেম্বর ২০১৫ ॥ প্রথম ম্যাচেই জমে উঠল বিপিএল। রংপুর রাইডার্স বনাম চিটাগং ভাইকিংসের ম্যাচটা নির্ধারিত হয়েছে একেবারে শেষ বলে। মাত্র এক রান করেই সতীর্থদের আলিঙ্গনের ভিড়ে হারিয়ে গেলেন সাকলায়েন সজীব। এই একটা রানই যে শেষ বলে ২ উইকেট বাকি থাকতে জয় এনে দিয়েছে রংপুরকে। ডাগ আউট থেকে সবাই মিলে ছুটে গেলেন। গাঢ় নীল জার্সির ছোটখাটো উৎসবই যেন হয়ে গেল মাঠের মধ্যে।

ম্যাচটা চট্টগ্রামের মুখের গ্রাস থেকে বের করে এনেছে রংপুর। শেষ ছয় ওভারেও ম্যাচের পাল্লা ভালোমতোই হেলে ছিল চট্টগ্রামের দিকেই। ৩৬ বলে দরকার ৯১ রান। ওভারে ১৫-এর বেশি করে রান তোলার কঠিন সমীকরণটাই মিলিয়ে দিল রংপুর। তাতে প্রধান ভূমিকা রাখলেন মিসবাহ-উল হক। ‘টুকটুক’ নামের অপবাদ ঘুচিয়ে দেবেন এই প্রতিশ্রুতি ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই রাখলেন মিসবাহ। ৩৯ বলে চারটি ছক্কা ও তিন চারে করলেন ৬১।

তবে বড় ভূমিকা রেখেছেন আল-আমিন, থিসারা পেরেরা, এমনকি মাত্র ১৮ রান করা ড্যারেন স্যামিও। এই তিনজনের ইনিংস তিনটা না হলে মিসবাহর চেষ্টাই যে বৃথা যেত। ২৮ বলে ৩৮ করেছেন আল-আমিন, ১৭ বলে ৪৩ এসেছে পেরেরার ব্যাটে, মাত্র ৭ বলে ১৮ করেছেন স্যামি। শেষ ৬ ওভারে ঠিক ৯১ রানই তুলেছে রংপুর।

প্রথম দুই ওভারে মাত্র ৫ রান দিয়ে দুই উইকেট নেওয়া মোহাম্মদ আমির চেষ্টা করেছিলেন বটে। কিন্তু ইনিংসের ১৫তম ওভারে নিজের তৃতীয় ওভারটি করতে এসে হজম করলেন ১৭ রান। সেখান থেকেই রংপুরের ঘুরে দাঁড়ানোর শুরু। পাঁচ বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের আবহে ফিরে আমির শেষ ওভারে আরও দুটো উইকেট নিলেও দলের পরাজয় ঠেকাতে পারেননি।

আমিরের ১৯তম ওভারটি আবারও ম্যাচে ফিরিয়ে এনেছিল চট্টগ্রামকে। রংপুরের দুই সর্বোচ্চ স্কোরার পেরেরা-মিসবাহ দুজনেই পর পর দুই বলে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। ভেঙেছিল তাদের ৩৫ বলে ৮০ রানের জুটিটাও। শেষ ওভারে দরকার ছিল ১৪। উইকেটে এসেই তলোয়ারের মতো ব্যাট চালাতে শুরু করেন স্যামি। শফিউলের করা ওই ওভারের প্রথম বলটা ডট গেলেও পরের তিন বলে নেন ১২ রান। ২ বলে ২ দরকার এমন সময় স্যামির রান আউট আরও নাটক জমিয়ে তোলে। সজীব সোজা ব্যাটে খেলে এক রান নিয়েই তাই হয়ে যান সতীর্থদের নায়ক!

ব্যাটে বলে দিনটা একদমই খারাপ গেছে দীর্ঘ ভ্রমণ শেষে গতকালই বাংলাদেশে আসা সাকিব আল হাসানের। তবে অধিনায়ক হিসেবে নিশ্চয়ই তৃপ্ত তিনি। তামিম যেমন ৫১ রান করেও তাই পরাজিতের দলেই। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মিসবাহ।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত