সর্বশেষ

  সাংবাদিক অমলকৃষ্ণ’র শাশুড়ির মৃতুতে বামাসাক’র শোক   মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে সৌদি আরবে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা   বাংলাদেশ এক্সট্রা মোহরার নকল নবিসদের চাকুরী স্থায়ী করার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ   শাবি থিয়েটার সাস্টের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন   লাউয়াছড়া উদ্যানে ট্রেনে কাটা পড়ে হরিণ, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে উল্লুকের মৃত্যু   জকিগঞ্জের বিরশ্রী ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস আলীর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া   সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের মাঝে জার্সি বিতরণ   মোগলগাঁও ইউনিয়নে ট্রান্সফরমার চুরির সময় জনতার হাতে চোর আটক, অতঃপর....   ধর্মপাশা মুক্ত দিবস পালিত   মাধবপুরে গোপনে জয়িতা তালিকা!   শ্রীমঙ্গলে ৪ বছরের মাথায় দুটি শাবকের জন্ম দিলো মেছো বাঘ   ভারতে বাংলাদেশী শ্রমিক হত্যায় তাহিরপুর উত্তাল: বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক বাতিল   অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সিটি ব্যাংক কর্মকর্তা আটক   ফেঞ্চুগঞ্জে ৫৬ লক্ষ টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন   মানবতাবিরোধী অপরাধ : মৌলভীবাজারের ৫ আসামির বিচার শুরু   মায়ানমারকে মালয়েশিয়ার সেনা প্রধানের হুমকি!   আজই অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন মুশফিকরা   দুর্নীতি মামলায় জেলা কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েলের জামিন   ফ্রেন্ডস পাওয়ার স্পোর্টিং ক্লাবের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী শুক্রবার   আজ মৌলভীবাজার মুক্ত দিবস

নাচ-গান, আতশবাজিতে বিপিএল’র উদ্বোধন

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২১ ০০:৫০:১৩

ক্রীড়া ডেস্ক : শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৫ ॥ বর্নাঢ্য এবং জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দিয়ে শুক্রবার হয়ে গেলো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) তৃতীয় আসরের আনুষ্ঠানিক যাত্রা। জমকালো অনুষ্ঠানের শুরু হয় সাদিয়া ইসলাম মৌয়ের নৃত্য পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। রাত দশটায় বলিউড হার্টথ্রব হৃত্বিক রোশনের পারফর্মের পর আতশবাজির আলো বিচ্ছুরণের মধ্য দিয়ে শেষ হলো জমজমাট উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি।

নিজের বিখ্যাতসব গানের সঙ্গে হৃত্বিকের পারফরম্যান্স দেখতে অবশ্য লম্বা সময় ধৈয্য ধরে অপেক্ষা করতে হয়েছে দর্শকদের। কারণ, বিদ্যুৎ দুর্ঘটনার কারণে নির্ধারিত সময়ের প্রায় ঘন্টা দেড়েক পর শুরু হয় বিপিএলের জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

তবে শেষটা হয়েছে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই। তবে, তাতে কারো আফসোস থাকার কথা নয়। কারণ মঞ্চে হাজির হতেই যে সুরে তাকে মিরপুরের গ্যালারি বরণ করে নেয়, বোধকরি হৃত্বিক এটা মনে রাখবেন বহুদিন। পারফর্ম করেন তার ব্যবসাসফল ছবিগুলোর বিখ্যাতসব গানের সঙ্গে। মিরপুরের গ্যালারি আক্ষরিত অর্থেই তখন উন্মাতাল হয়ে ওঠে হৃত্বিকের নাচের সম্বোহনীতে।

বলিউড সুপার স্টার হৃত্বিকের আগে মঞ্চ মাতিয়ে যান আরেক বলিউড কুইন, জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। লংকান এ সুন্দরীও তার জনপ্রিয় গানগুলোর সঙ্গে কোমর দোলালেন। দর্শকরা যেন এ সময় হারিয়ে গিয়েছিল পুরো বলিউডি সুরের মুর্ছনার মাঝে। তার আগে মঞ্চ মাতিয়ে যান জনপ্রিয় হিন্দি শিল্পি কেকে। গাইলে তার দর্শক নন্দিত বেশ কিছু গান।

এর আগে মঞ্চে হাজির হন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বাংলাদেশের দর্শকদের ধন্যবাদ দিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘ওয়ানডে ফরম্যাটে পৃথিবীর যে কোন দলই হোক না কেন এখানে এসে আমাদের হারানো কঠিন।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের এমন সফলতার অন্যতম কারণ বাংলাদেশের দর্শক। তবে টি২০তে আমাদের দলটা ভালো নয়। সামনে বিশ্বকাপ এ বিবেচনায় বিপিএলের টুর্নামেন্টটা খুবই গুরুত্বপূর্ন। আশা করছি এ টুর্নামেন্ট থেকে বিশ্বকাপের জন্য কয়েকজন খেলোয়াড় খুঁজে বের করতে পারবো।’

এরপর বিপিএল তৃতীয় আসরের উদ্বোধন ঘোষণা করেন অর্থন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সঙ্গে সঙ্গে আতশবাজির আলোয় ঝলসে ওঠে মিরপুরের আকাশ। লাল-নীল-হলুদ, শত আলোর বিস্ফোরণ ঘটে যেন পুরো মিরপুরের আকাশে।

এরপর একে একে মঞ্চে ডেকে নেয়া হয় ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজির আইকন ক্রিকেটারদের। সেখানে ছিলেন না কেবল সাকিব আল হাসান। তার পরিবর্তে রংপুরের হয়ে মঞ্চে আসেন সৌম্য সরকার। এছাড়া মাশরাফি বিন মর্তুজা, তামিম ইকবাল, নাসির হোসেন, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা আসেন মঞ্চ আলোকিত করে।

জমকালোর উদ্বোধনীতে নৃত্য পরিবেশনা দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু করেন সাদিয়া ইসলাম মৌ। মডেল, অভিনেত্রী ও জনপ্রিয় এ নৃত্য শিল্পী ও তার দলের মনোমুগ্ধকর নাচের ঝঙ্কারে মিপুরের ২০হাজার দর্শদের মাঝে আনন্দেও হিল্লোল বয়ে যায়।

এরপর বিপিএলের প্রথম দুই আসরের বিশেষ বিশেষ মুহূর্ত নিয়ে প্রচারিত হয় একটি ছোট ডকুমেন্টারি ফিল্ম। যার পরতে পরতে দর্শকদের স্মরণ করিয়ে দেয়া হয় বিপিএলের আগের দুই সময়কার বিভিন্ন চিত্র। তখনও দর্শকরা আসনে আসীন।

তবে যখনই এলআরবি নিয়ে মঞ্চে উদয় হলেন আয়ুব বাচ্চু, তখনই নড়েচড়ে ওঠে পুরো গ্যালারি। দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সেরা এ গিটারিস্ট আঙ্গুলের কাঁপনে সুর তোলেন গিটারে। সঙ্গে গলা তো মেলালেনই। মিরপুরে তখন সে কি মুগ্ধতা!

একে একে আয়ুব বাচ্চু গাইলেন তার বিখ্যাত সব গান। ‘রাখে আল্লাহ মারে কে’, ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে’, ‘হাসতে দেখ গাইতে দেখ’, ‘মন চাইলে মন পাবে দেহ চাইলে দেহ’, ‘আর বেশি কাঁদালে...’ এসব জনপ্রিয় গানের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন মিরপুরের হাজার হাজার দর্শকও।

আইয়ুব বাচ্চুর পর অন্যধারার ব্যান্ড চিরকুটের পারফরম্যান্স। দেশী ঢংয়ের গানের সঙ্গে দর্শকের হর্ষধ্বনিতে তাদের বিদাায়ের পর মঞ্চে হাজির ফোক সম্রাজ্ঞি মমতাজ ও তার দল। ‘ঘুম ভাঙ্গাইয়া গেলরে মরার কোকিলে’, ‘পোলাতো নয় যেন আগুনেরই গোলারে...’ তার এমন সব গানের সঙ্গে ছিল বিপিএল নিয়ে সাজানো নতুন একটি গানও।

মূল অনুষ্ঠান কিন্তু শুরু হয় বলিউড ধামাকা তিন পারফরর্মারারের ধারাবাহিক মঞ্চ কাঁপানো পারফরম্যান্সের দশ্য দিয়ে। ভারতের এই তিন তারকা শুক্রবার বাংলায় কথা বলে উপস্থিত দর্শকদের বিমোহিত করেছেন। হৃত্বিক রোশনের পারফর্মের পর প্রায় সাত মিনিট ধরে মিরপুরের আকাশ আতশবাজির আলোতে আলোকিত হয়ে ওঠে।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত