সর্বশেষ

  হাওরবাসীর দুর্যোগ নিয়ে তামাশা করবেন না   “আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, আমার কোন চাওয়া পাওয়া নেই”   গোলাপগঞ্জে বিদ্যুতায়িত হয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু   রশিদিয়া দাখিল মাদরাসায় বিশ্ব বই দিবস উদযাপন   এনইইউবিতে ‘ক্যারিয়ার ক্লাব’র যাত্রা শুরু   ধর্মপাশা সদর ইউনিয়নের বাজেট ঘোষণা   জামালগঞ্জে এক কিশোরীর দুই জন্ম নিবন্ধন: বাল্যবিবাহ সম্পন্ন, এলাকায় তোলপাড়   বিশ্বনাথে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে র‌্যালী   কাউন্সিলর আফতাবকে ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সংর্বধনা   সব চেষ্টা ব্যর্থ, তলিয়ে গেল শনি: হাওরপাড়ে চলছে কৃষকের আহাজারি   হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার পাবে মাসে ৩০ কেজি চাল ও নগদ অর্থ   মহাজনী ও এনজিও ঋনের চাপ: সব হারিয়ে দিশেহারা হাওরবাসী   বাবাকে ছাপিয়ে যেতে চান টাইগার শ্রফ   বাজারে আসুসের তিন জেনফোন   সুনামগঞ্জে শনির হাওরের বাঁধে ৩টি স্থানে ভাঙন   মহামতি লেনিনের জন্মবার্ষিকীতে সিলেটে লাল পতাকা মিছিল   ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে   লাখাইয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ ৩ ডাকাত গ্রেফতার   আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন তারেকের শাশুড়ি সিলেটের সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানু   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি হয়েছে : সিলেটে খাদ্যমন্ত্রী

ক্লাসিকোতে মেসি বনাম রোনালদো

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২০ ১৭:৩১:৪৯

ক্রীড়া ডেস্ক : শুক্রবার, ২০ নভেম্বর ২০১৫ ॥ আগামী শনিবার এল ক্লাসিকোতে বিশ্বসেরা দুই ক্লাব বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ মুখোমুখি হবে। ম্যাচটি যতোটা না বার্সা-রিয়ালের, তার চেয়ে বেশি লিওনেল মেসি বনাম ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর লড়াই। সময়ের দুই বিশ্বসেরা তারকা লড়াই দেখার জন্য মুখিয়ে আছে ফুটবলবিশ্ব।

আগের মৌসুমগুলোর মতো এবারও বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের মধ্যকার এল ক্লাসিকোর লড়াই লা লিগার শিরোপা নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তবে দর্শকদের বিশেষ করে নিরপেক্ষ দর্শকদের কাছে ম্যাচটি তার চেয়েও বেশি কিছু। এটি শুধু একটি ক্লাসিকোর লড়াই নয়; বরং সময়ের দুই সেরা খেলোয়াড় রোনালদো ও মেসির মধ্যকার লড়াই।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর লাস পালমাসের বিপক্ষে লা লিগা ম্যাচে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়ার পর থেকেই দলের বাইরে রয়েছেন লিওনেল মেসি। ইনজুরি কাটিয়ে সম্প্রতি তিনি বার্সেলোনার অনুশীলনে ফিরেছেন। কাতালান ক্লাবটি আশাবাদী, আগামী শনিবার প্রতিপক্ষের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে মর্যাদার এল ক্লাসিকোর আগেই পুরো ফিট হয়ে উঠবেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

চলতি মৌসুমে পুরো ছন্দে নেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ১১টি লা লিগা ম্যাচে ৮ গোল করেন তিনি। এই ৮ গোলের পাঁচটিই তিনি এক ম্যাচে এসপানিওলের বিপক্ষে করেন। বাকি তিনটি গোল তিন ম্যাচে করেন। আরো সহজ করে বললে, চলতি মৌসুমের ১১ ম্যাচের সাতটিতেই গোল করতে ব্যর্থ হন সিআর সেভেন। তবে বার্সেলোনার বিপক্ষে ঘরের মাঠে রোনালদো জ্বলে উঠলে আগের ব্যর্থতা নিশ্চিতভাবে সবাই ভুলে যাবে।

 ২০০৯-১০ মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সেই থেকেই মেসির সঙ্গে রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা শুরু। গেল কয়েক বছর ধরে তো এই দুজনের মধ্যে কে সেরা সেটি নিয়ে তুমুল আলোচনা ও তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়।

যদি মেসি এল ক্লাসিকোতে মাঠে ফিরেন তবে সবার প্রশ্ন একটাই, আগামী শনিবার এল ক্লাসিকোতে কে ম্যাচজয়ীর ভূমিকা পালন করবেন- মেসি নাকি রোনালদো? আসুন তার আগে এল ক্লাসিকোতে মেসি ও রোনালদোর পারফরম্যান্স ও পরিসংখ্যান দেখে নেয়া যাক।

রোনালদো স্প্যানিশ লিগে যোগ দেয়ার পর এল ক্লাসিকোতে লিওনেল মেসি পর্তুগিজ সুপারস্টারের চেয়ে দুটি গোল বেশি করেছেন। তবে একটি ম্যাচ বেশি খেলেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। রোনালদো ২৩টি এল ক্লাসিকো ম্যাচে ১৫টি গোল করেন। আর মেসি ২৪ ম্যাচে করেন ১৭ গোল।

পেনাল্টিতে সফলতায় মেসির চেয়ে কিছুটা এগিয়ে রয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পেনাল্টিতে রোনালদোর সফলতার হার ৯০.৩৮ শতাংশ। আর মেসির সফলতার হার ৮৬.১১ শতাংশ।

তবে ফ্রি-কিকে রিয়াল মাদ্রিদ সুপারস্টারের চেয়ে কিছুটা এগিয়ে রয়েছেন। ফ্রি-কিকে আর্জেন্টিনা অধিনায়কের সফলতার হার ৭.১৯ শতাংশ। আর পর্তুগাল অধিনায়কের সফলতার হার ৬.৭৪ শতাংশ।

ড্রিবলিংয়ে রোনালদোর চেয়ে দ্বিগুণ এগিয়ে লিওনেল মেসি। ম্যাচপ্রতি মেসি ৪.৬৫টি ড্রিবলিং করেছেন। আর রোনালদোর ড্রিবলিংয়ের হার ২.০৪। তবে গোলমুখে শট নেয়ায় মেসির (৪.৯৯) চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন সিআর সেভেন (৭.০০)।

এল ক্লাসিকোতে মুখোমুখি লড়াইয়ে রোনালদোর রিয়ালের চেয়ে বেশ এগিয়ে রয়েছে লিওনেল মেসির বার্সেলোনা। ২০০৯-১০ মৌসুমে রোনালদো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে স্প্যানিশ লিগে আসার পর বার্সেলোনা ১২টি এল ক্লাসিকো ম্যাচে জয় পেয়েছে। রোনালদোর দল জয় পেয়েছে ৭টি ম্যাচে। অপর পাঁচটি ম্যাচ ড্র হয়।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এমওআর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত