সর্বশেষ

  ফুলতলীতে পদদলিত হয়ে নিহত দু’জনের পরিচয় সনাক্ত: থানায় অপমৃত্যু মামলা   “২০১০ সালের শিক্ষানীতি পাশ কাটিয়ে যাওয়া হচ্ছে”   দেবপুর রাধাগোবিন্দ জিউ মন্দিরে ১৬ প্রহরব্যাপী হরিনাম সংকীর্ত্তণ ১৯ জানুয়ারি শুরু   শাবিতে প্রজেক্ট ফেয়ার ২৬ জানুয়ারি   শাবিতে ৩ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন সম্পন্ন   মোবাইল নিয়ে দেশের বাজারে টিসিএল   বিকাশে প্রতারক চক্র : ‘বস’ নাজমুল শোভনকে খুঁজছে র‌্যাব-৯   টাঙ্গাইল-৩’র এমপি রানাসহ ৪ ভাই আ’লীগ থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ   দক্ষিণ সুরমায় র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১   জকিগঞ্জে কলেজছাত্রীর ওপর ‘হামলাকারীর’ ভাই আটক   এত প্রাপ্তির পরও হারলো বাংলাদেশ   মাঘের শীতে কাবু সিলেটের জনজীবন   নারায়ণগঞ্জে ৭ খুন : নূর হোসেনসহ ২৬ আসামির ফাঁসির রায়   নারায়ণগঞ্জের ৭ খুন মামলার রায় আজ   সিলেট সদর উপজেলা ছাত্রদল নেতা জুনায়েদের বিদেশ গমণ উপলক্ষে বিদায়ী সংবর্ধনা   নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিবের সাথে জেলা পরিষেদের সদস্য আলেয়ার সৌজন্য সাক্ষাৎ   প্রবাসী সাংবাদিকদের সাথে কাউন্সিলর শামীমের মতবিনিময়   ছাতকে বিল-হাওরে বোরো ধানের চারা রোপণের ধূম   কানাইঘাটে সালিশ বৈঠকে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে : আওয়ামী লীগ নেতাসহ ১০ আহত   দিনাজপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার মুক্তিযোদ্ধাদের ‘‘বীর নিবাস’’ হস্তান্তর

লাশের সঙ্গে দেয়া হবে জীবন্ত সাপ!

প্রকাশিত : ২০১৫-০৫-১৮ ১৫:৩৬:১৬

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : ॥ সাপ ধরতে পারলে খুব আনন্দ পেতেন কৃষক আব্দুল হালিম। মাঝে মধ্যে তিনি সাপ ধরে খেলা করতেন। কে জানে সেই সাপই তার কাল হয়ে দাঁড়াবে। অবশেষে এই সাপের কামড়েই চলে যেতে হয়েছে পৃথিবী ছেড়ে। তবে তিনি একাই পৃথিবী ছেড়ে যাচ্ছেন না, সঙ্গে যাচ্ছে তাকে কামড় দেয়া জীবন্ত সাপও। সাপটিকে তার সঙ্গে দেয়ার ব্যবস্থা তার পরিবারের পক্ষ থেকেই করা হয়েছে।

রোববার কৃষি জমিতে কাজ করছিলেন রাজধানীর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের সুভাঢ্যা ইউনিয়নের চুনকুঠিয়া গ্রামের কৃষক আব্দুল হালিম (৪৫)। কাজ করার সময় হঠাৎ করে একটি বিষধর সাপ তাকে কামড় দেয়। সঙ্গে সঙ্গে তিনি বিষধর সাপটিকে ধরেও ফেলেন। এরপর তিনি প্লাস্টিকের ব্যাগে সাপটি রেখে দেন। তার অবস্থা অবনতি হতে থাকলে স্বজনরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সোমবার সকাল ৭টায় তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মারা যাওয়ার পর তার লাশটি ঢামেক হাসপাতাল মর্গে নিয়ে রাখা হয়েছে। কিন্তু পরিবারের লোকজন সেই সাপটিকে তার লাশের ট্রলিতে করে মর্গে রেখে দিয়েছেন।

মর্গের লোকজন জানতে চায় এই ব্যাগে কি? তখন পরিবারের লোকজন জানায়, যে সাপটির কামড়ে তিনি মারা গেছেন সেই সাপটি ব্যাগে রাখা আছে। তার সঙ্গে সাপটিকেও দিয়ে দেয়া হবে। এ নিয়ে মর্গে হৈ চৈ শুরু হয়ে যায়। কারণ এমনিতেই এ বিষধর সাপ একজনকে কামড়িয়েছে। সে জন্য অনেককেই ভয়ে দৌড়াতে দেখা গেছে। কেউ কেউ প্যাকেটটি খুলতে চাইলেও সাপের মড়মড়ানির শব্দে কেউ আর সাহস পাননি। এ প্রতিবেদন লেখার সময় সাপটি লাশের সঙ্গে ট্রলিতেই রাখা ছিল।

এদিকে ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা সাপটিকে দেখার জন্য মর্গ এলাকায় ভীড় জমায়। তবে মর্গের অনেকেই বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো আতঙ্কিত।

স্বজনরা জানিয়েছেন, এই সাপটি কৃষক আব্দুল হালিমের লাশের সঙ্গে কবরে দিয়ে দেয়া হবে। সেটা জীবন্ত হোক আর মর্গ থেকে ময়না তদন্ত করার পর হোক।

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত