সর্বশেষ

  বিশ্বনাথে সিএনজি ও রিক্সা শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় আহত ২০   প্রত্যাশার চেয়েও বেশি এগিয়েছে সদর উপজেলা স্পোর্টস একাডেমি: আশফাক আহমদ   মীরেরগাঁওয়ে বজ্রপাতে নিহত ৩ কিশোরের জানাজা সম্পন্ন : অনুদান প্রদান   মৌলভীবাজারে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আটক ৩   সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সাত্তার আর নেই: এমপি মানিকের শোক   ছাতকে আওয়ামী লীগ নেত্রীর মাতৃ বিয়োগ : এমপিসহ বিভিন্ন মহলের শোক   বিশ্বনাথের খেলাফত মজলিসের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন   বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১   শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আজ দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ :শফিক চৌধুরী   সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু   মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে ৩ ভাইয়ের মৃত্যু   সিলেটে ছাত্রলীগ কর্মী মিন্নতের কব্জিকর্তন মামলার প্রধান আসামী শাহীনসহ গ্রেফতার ২   ছাতকে সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের   কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি-লিট ডিগ্রি পেলেন শেখ হাসিনা   ছাতকে পৃথক সংঘর্ষে আহত ৫০, গ্রেফতার ১   জকিগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার   এতিমদের নিয়ে ক্যাডেট কলেজ ক্লাব সিলেটের ইফতার মাহফিল   শাবিতে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ওয়েবসাইট উদ্বোধন   শাবির স্বপ্নোত্থানের ঈদবস্ত্র বিতরণ   সেই কলকাতাকে হারিয়ে ফাইনালে সাকিবদের হায়দরাবাদ

ইসলামে সৎ আচরণ ও সততার গুরুত্ব

প্রকাশিত : ২০১৭-০৭-১৪ ১৬:৫১:৪৪

মাওলানা শাহ আবদুস সাত্তার : শুক্রবার, ১৪ জুলাই ২০১৭ ॥ মানুষের সৎ আচরণের মধ্যে সততা অন্যতম গুণ। ইসলাম সৎ স্বভাব, সৌজন্যবোধ, সত্যনিষ্ঠা ও সততার যে শিক্ষা আমাদের দিয়েছে, তা আমরা সমাজ-জীবনের পারস্পরিক ব্যবহারের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলতে পারি। সততা রক্ষা করা এবং সততা অর্জন করা একজন মোমিনের জন্য শ্রেষ্ঠতম কাজ। মানুষের সৎ স্বভাব বা সৎ আচরণ কিংবা সত্যাবাদিতার মধ্যেই সততা নিহিত। পবিত্র কোরআন মজিদে বলা হয়েছে, আল্লাহ তায়ালা সত্যনিষ্ঠ ও বাস্তবপরায়ণ লোকদের সম্পর্কে তাদের সত্যনিষ্ঠা ও বাস্তবতা তথা সততা সম্বন্ধে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। আমরা সততার মাধ্যমে বাস্তব জীবনকে কল্যাণময়ী করে তুলতে পারি। সততার গুণে মানুষ বিভূষিত হন এবং সমাজের উচ্চস্থান লাভ করেন। শুধু তাই নয়; সততার বদৌলত সততা রক্ষাকারীর মর্যাদা আরও বহু গুণে বেড়ে যায়।

সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হলো, আমাদের হজরত রাসূলে মকবুলের (সা.) কর্মবহুল জীবনে আমরা সততার অপূর্ব মহিমা দেখতে পাই। মক্কায় অবস্থানকালে, সেই যুবক বয়সে 'হিলফুল ফুজুল' নামে একটি সংগঠন গড়ে তুলে তার কর্মকান্ডে মাধ্যমে মক্কার সাধারণ মানুষের কাছে বিশ্বস্ততা অর্জন করেন এবং সততার যে পরিচয় দেন তা আমাদের সর্বকালের জন্য অনুসরণীয়। নবুয়ত লাভের পর যখন মক্কার কোরাইশ গোষ্ঠী রাসূলুল্লাহর পরম শত্রু হয়ে ওঠে, তখনও তারা তাদের মূল্যবান জিনিসপত্র আমানত রাখত রাসূলুল্লাহর কাছে। কারণ তারা জানত, তারা তার ওপর জুলুম-অত্যাচার করলেও তিনি তাদের আমানত কখনও নষ্ট করবেন না। মক্কাবাসীদের জুলুমে অতিষ্ঠ হয়ে যখন তিনি মক্কা ত্যাগ করতে বাধ্য হন, তখনও অন্য ধর্মালম্বীদের কিছু জিনিসপত্র গচ্ছিত ছিল তার কাছে। যারা এসব জিনিস আমানত রেখেছিল তাদের কাছে সেগুলো ফেরত দেওয়ার জন্য তিনি মক্কায় রেখে যান হজরত আলীকে। উপযুক্ত সময়ে আমানত খেয়ানত না করে নবী করিম (সা.) এসব অর্থকরী সম্পদ ফিরিয়ে দিয়ে যে সততার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন, তা ইসলামের ইতিহাসে বিরল। নবী করিমের (সা.) এই সততার গুণে মুগ্ধ হয়ে আরবের বিপুল বিত্তশালী মহিলা হজরত খাদিজা (রা.) তার বিরাট বাণিজ্য পরিচালনার দায়িত্ব অর্পণ করেন। হজরত খাদিজা (রা.) হজরত মুহাম্মদের (সা.) সুষ্ঠু বাণিজ্য পরিচালনা ও সততার পরিচয় পেয়ে তাকে স্বামী হিসেবে বরণ করে নেন।
 
জীবনের সর্বক্ষেত্রে আমাদের সততা রক্ষা করে চলা উচিত। সততার মাধ্যমেই মহানুভবতা ও উদার চিত্তের পরিচয় পাওয়া যায়। বুখারি শরীফে আছে, তোমাদের মধ্যে যে স্বভাব-চরিত্র ও সততায় উত্তম, সে আমার নিকট সর্বাপেক্ষা প্রিয়। হাদিসে আহমদে বর্ণিত আছে; আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস, লোকের সঙ্গে সৎ আচরণ তথা সততার মাধ্যমেই একজন মুসলমানের প্রকৃত পরিচয় জানা যায়। হজরত নবী পাক (সা.) অন্য এক হাদিসে বর্ণনা করেছেন- তোমরা মানুষকে অর্থ দ্বারা বশীভূত করো না বরং তাদের সৎ আচরণ, উত্তম ব্যবহার এবং সততা দ্বারা বশীভূত কর। তিনি আরও বলেছেন, যে ব্যক্তি ভেজাল মিশ্রিত দ্রব্যের কথা প্রকাশ না করে ওই দ্রব্য বিক্রয় করবে সে ব্যক্তি চিরকাল আল্লাহর গজব ভোগ করবে এবং অনন্তকাল ধরে ফেরেশতারা তার ওপর লানত বর্ষণ করবে। ব্যবসা-বাণিজ্য এবং সর্বক্ষেত্রে সততা রক্ষা করা উত্তম কাজের পর্যায়ভুক্ত। পবিত্র কোরআন মজিদে বলা হয়েছে, সত্যপরায়ণ পুরুষ ও নারী বহু পুরস্কার লাভ করবেন। বুখারি শরীফে আছে, সত্য কথা বলা নেকির রাস্তা। সত্যভাষী মানুষই সততা প্রদর্শন করতে পারে। নিজের স্বার্থ ত্যাগ করে সততার পরাকাষ্ঠা দেখানোই সততার নামান্তর।

আমরা ব্যক্তিগত কর্মকান্ড ও জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে পারস্পরিক সততা প্রদর্শনে একে অপরের প্রতি সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আমরা যেন এক পরিপূর্ণ ভালোবাসার জগৎ গড়ে তুলতে পারি। এই তওফিক আল্লাহ পাক আমাদের দান করুন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমওআর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত