সর্বশেষ

  কানাইঘাটে লেগুনার ধাক্কায় নিহত ট্রাক চালকের দাফন সম্পন্ন   মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে আত্মপ্রকাশ করলো ‘হাত বাড়াও’   ছাতকে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার   মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে ছাতকে ভাই-বোনসহ আটক ৩   ছাতকে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১৫   বিশ্বভারতীতে শেখ হাসিনার জন্য প্রস্তুত উপহারের ডালি   সুধীজনদের মিলনমেলায় সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন   শাবিতে কর্মচারীকে বেধড়ক পিটুনী   বাহুবলে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে কৃষকের মৃত্যু   বিদ্রোহী কমিটি গঠন নিয়ে সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিবৃতি   মিসবাহ সিরাজকে শুভেচ্ছা জানালেন নবগঠিত সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দ   জমির উদ্দিন ভুলাই মেম্বারের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও ইফতার মাহফিল   বিশ্বনাথের দিঘলীতে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ শুরু   রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গে গল্প-খুনসুটিতে প্রিয়াংকা চোপড়া   ওসমানীতে ২ কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রাসহ আটক ১   রাজনগরে ভাইয়ের হামলায় আহত ভাইয়ের মৃত্যু   বনানীতে সমাহিত করা হবে তাজিন আহমেদকে   প্রকৌশলী আব্দুল কাদিরকে সংবর্ধনা   ফের সন্ত্রাসী সংগঠনের আখ্যা পেল বিএনপি   কুলাউড়ায় অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

সিয়াম সাধনার মাস : ২৫ রমজান

প্রকাশিত : ২০১৭-০৬-২১ ১৪:০৪:০০

মীর্জা সোহেল : বুধবার, ২১ জুন ২০১৭ ॥ জীবন সাজানোর মাস রমজানের শেষ মুহূর্ত চলছে। সংযম অনুশীলনের এ মাসের শেষ মুহূর্তটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ সময়ের চর্চা ও অনুশীলনের ওপর নির্ভর করে পুরো রমজানের ফল নির্ধারণের বিষয়টি। রমজান মুমিনের জন্য পরীক্ষার মতোই। পরীক্ষার্থী যেমন শেষ মুহূর্তটি যথাযথ কাজে লাগানোর ব্যাপারে আন্তরিক; মুমিনেরও তা-ই হওয়া উচিত।
 
রমজানকে ‘সহানুভূতির মাস’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। শেষের দিনগুলোতে দান-সদকার হাতকে প্রসারিত করে এ গুণটি অর্জন করার বিশেষ সুযোগ রয়েছে। গরিব-দুঃখী-অসহায়দের প্রতি সহানুভূতির হাত বাড়িয়ে দিলে আল্লাহতায়ালার দয়া ও অনুগ্রহ নিশ্চিত হয়। হাদিসে কুদসিতে আল্লাহতায়ালা বলেন- “যারা আমার সৃষ্টির প্রতি দয়া করে, আমি তাদের প্রতি দয়াশীল হই।” সৃষ্টিকুলের প্রতি দয়ার্দ্র হওয়ার উপযুক্ত সময় রমজান। এ গুণটি কোনো মুমিনের মধ্যে এসে গেলে তিনি সফল। মানবতার প্রতি কোমল ও সদাচার হওয়ার অনেক উপলক্ষ রয়েছে রমজানে। যারা এ উপলক্ষগুলো যথাযথ কাজে লাগাতে পারবেন, তারাই রমজানের পুরো ফজিলত লাভের আশা করতে পারেন।

কার জীবনের শেষ রমজান এটা তা বলা যায় না। প্রত্যেকেই এবারের রমজানকে শেষ রমজান মনে করে এর পুরোপুরি হক আদায়ে সচেষ্ট হই। রমজানের বিশেষ মুহূর্তের ইবাদতগুলোই পরকালীন মুক্তির সম্ভাবনাকে প্রবল করে। রাসূল (সা.) রমজানের শেষদিকে এসে আমলের মাত্রা বাড়িয়ে দিতেন। সাহাবিদের আরও সংযমী হওয়ার এবং আমলের মাত্রা বাড়ানোর পরামর্শ দিতেন। আমাদেরও উচিত রাসূলের পরামর্শ অনুযায়ী রমজানের শেষ মুহূর্তটি সংযম ও আমলের মধ্যে কাটানো।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমএস/এসবি

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত