সর্বশেষ

  মাধবপুরে স্ত্রী হত্যা : চাঁদপুর থেকে স্বামী গ্রেফতার   চুনারুঘাটে শ্যামলী পরিবহনের বাস চাপায় নিহত ১   হামজা চৌধুরী, ইংলিশ ফুটবলের বড় আসরে প্রথম বাংলাদেশী!   রোনালদোও পারলেন না রিয়ালকে বাঁচাতে!   ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় ইমরানের জামিন   রেড ক্রিসেন্টের ত্রাণবাহী ট্রাক খাদে : নিহত ৯   তাহিরপুরের সোয়েব হত্যা মামলায় দুই আসামী গ্রেফতার   বিশ্বনাথে ‘প্রেমিকা’র অনশন, সিলেটে ‘প্রেমিক’ ইউপি সদস্য আটক   রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আজকের দিন   রোহিঙ্গা সংকটের দ্রুত সমাধান করুন : ডোনাল্ড ট্রাম্প   ফেঞ্চুগঞ্জ বাজারের জলাবদ্ধতা দুর করতে ব্যবসায়ীরা স্বেচ্ছাশ্রমে মাটি ভরাট   রাজনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১   ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা   রোহিঙ্গাদের জন্য নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান   রোহিঙ্গা হত্যার প্রতিবাদে দিরাইয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন   ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় মানবিক সমাজ বির্নিমানে নাট্য আন্দোলনের বিকল্প নেই’   বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ : বিভাগীয় কমিশনার   সুনামগঞ্জ থেকে হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার   রত্নাগর্ভা সম্মাননা পেলেন সুনামগঞ্জের মমতা   শ্রমিক নেতা সুজনের রিমাণ্ড আবেদন না’মঞ্জুর

বিএনপি ছাড়লেন শাহরিয়ার রুমী

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৫ ১৯:০২:৫৬

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : রোববার, ১৫ নভেম্বর ২০১৫ ॥ ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী দল ছাড়ার পর দুই সাপ্তাহ না যেতেই পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এম এম শাহরিয়ার রুমী।

একসময় আওয়ামী লীগ থেকে বিএনপিতে আসা এই রাজনীতিক এখন আবার বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতিতে ফিরতে চান।

রোববার তিনি জানান, কুরিয়ার করে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বরাবরে তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন। ফরিদপুর জেলা কমিটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকেও তিনি ইস্তফা দিয়েছেন।

“আমি মনে করি, মুক্তিযুদ্ধের শক্তি, যারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দেশকে স্বাধীন করেছিলাম, আজ আমাদের সবার এক হওয়া উচিৎ। সেই কারণে বিএনপি থেকে আমি পদত্যাগ করেছি।”

২০০১ সালের নির্বাচনে ফরিদপুর-৫ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে পরের বছর ৪ মে বিএনপিতে যোগ দেন রুমী। ওই আসনে সে সময় সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে পরাজিত হন রুমী।

পুরো পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তার বাবা শামসুদ্দিন মোল্লা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট বন্ধু ছিলেন।

রুমী জানান, ২০০৭ সালের ২২ জানুয়ারি যে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল, তাতে বিএনপির মনোনয়ন পেয়েছিলেন তিনি। পরে ওই নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়।

এখন আওয়ামী লীগে যোগ দেবেন কিনা জানতে চাইলে রুমী বলেন, “আমাদের পুরো পরিবারই আওয়ামী লীগ করে। আমি ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগ করেছি।

“২০০২ সালে কেবল আমিই পরিবারের বাইরে এসে বিএনপিতে যোগ দিয়েছিলাম। এটা নিয়ে এতোদিন অস্বস্তিতে ছিলাম। এই পদত্যাগে তা কেটে গেল। এখন কী করব সে সিদ্ধান্ত নিইনি।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফরিদপুর জেলা বিএনপির সভাপতি জহুরুল হক শাহজাদা মিয়া বলেন, “উনি অনেকদিন ধরেই রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন না। কেন পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা জানি না।”

তিনি বলেন, “রুমী সাহেব যখন বিএনপিতে আসেন তখন কোনো চাপে আসেননি, নিজ ইচ্ছায় এসেছিলেন। বিএনপি অনেক বড় দল, দুই একজন চলে গেলে দলের কিছু হয় না।”

চলতি মাসের প্রথম দিকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী স্বাস্থ্যগত কারণ দেখিয়ে দল ছেড়ে রাজনীতি থেকে অবসরের ঘোষণা দেন।

আওয়ামী লীগ নেতারা সে সময় বলেছিলেন, বিএনপিতে এখনও যারা মুক্তিযুদ্ধে বিশ্বাসী আছেন, তারাও একে একে দল ছাড়বেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এমওআর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত