সর্বশেষ

  কানাইঘাটে লেগুনার ধাক্কায় নিহত ট্রাক চালকের দাফন সম্পন্ন   মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে আত্মপ্রকাশ করলো ‘হাত বাড়াও’   ছাতকে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার   মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে ছাতকে ভাই-বোনসহ আটক ৩   ছাতকে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১৫   বিশ্বভারতীতে শেখ হাসিনার জন্য প্রস্তুত উপহারের ডালি   সুধীজনদের মিলনমেলায় সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন   শাবিতে কর্মচারীকে বেধড়ক পিটুনী   বাহুবলে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে কৃষকের মৃত্যু   বিদ্রোহী কমিটি গঠন নিয়ে সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিবৃতি   মিসবাহ সিরাজকে শুভেচ্ছা জানালেন নবগঠিত সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দ   জমির উদ্দিন ভুলাই মেম্বারের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও ইফতার মাহফিল   বিশ্বনাথের দিঘলীতে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ শুরু   রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গে গল্প-খুনসুটিতে প্রিয়াংকা চোপড়া   ওসমানীতে ২ কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রাসহ আটক ১   রাজনগরে ভাইয়ের হামলায় আহত ভাইয়ের মৃত্যু   বনানীতে সমাহিত করা হবে তাজিন আহমেদকে   প্রকৌশলী আব্দুল কাদিরকে সংবর্ধনা   ফের সন্ত্রাসী সংগঠনের আখ্যা পেল বিএনপি   কুলাউড়ায় অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

মার্চে অনুষ্ঠিত হবে ছাত্রলীগের কাউন্সিল : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত : ২০১৮-০১-০৬ ১৭:০৪:১৬

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : শনিবার, ০৬ জানুয়ারি ২০১৮ ॥ ছাত্রলীগের কাউন্সিল কবে হবে- তা সংগঠনের নেতাদের ‘কানে কানে’ এতদিন জানিয়ে আসছিলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি সবাইকে জানিয়ে দিলেন, আগামী মার্চে অনুষ্ঠিত হবে কাউন্সিল।

২০১৫ সালের ২৬ জুলাই সম্মেলনে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন নেতৃত্বে আসেন।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী গত বছরের ২৬ জুলাই এই কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও সম্মেলন কিংবা কাউন্সিলের আয়োজন এখনও হয়নি।

কাউন্সিল করতে ছাত্রলীগের বর্তমান নেতৃত্বকে তাগিদ দিয়ে আসা ওবায়দুল কাদের গত অগাস্টে বলেছিলেন, “ছাত্রলীগের দুই নেতাকে (সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক) কানে কানে টেনটেটিভ টাইম বলে দেওয়া হয়েছে। হঠাৎ করে আপনারা শুনতে পাবেন ছাত্রলীগের সম্মেলনের ডেট।”

তাতেও কোনো দিনক্ষণের ঘোষণা না আসায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন ক্ষুব্ধ নেতা গত ৩ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছিলেন, পরে অবশ্য আওয়ামী লীগের নেতাদের আশ্বাসে তা স্থগিত করেন তারা।

এরপর শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা উদ্বোধনের সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, “একটা খবর দেব, সুখবর। আমি নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সঙ্গে কথা বলেছি। অনতিবিলম্বে ছাত্রলীগের নির্বাহী কমিটির সভা ডেকে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করুন। আগামী মার্চ মাসে, স্বাধীনতার মাসে সম্মেলন হোক- এটা নেত্রীর ইচ্ছা। সম্মেলনের প্রস্তুতি নিন, মার্চে সম্মেলন।”

ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কাদের বলেন, “ছাত্রলীগের নেতারা সম্মেলন দিয়ে পদ না ছাড়লে আওয়ামী লীগে তোমরা জুনিয়র হয়ে যাবে। আমরা চাই আওয়ামী লীগে তরুণ নেতৃত্ব আসুক।”

ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বের প্রশংসাও করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। 

“কিছু কিছু নেগেটিভ দিক থাকতে পারে, তবে তাদের অর্জন অনেক।”

ক্ষুব্ধ নেতারা এখন খুশি

কাউন্সিলের সময় জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা, যারা এতদিন ধরে ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছিলেন।

সম্মেলনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন (যা পরে স্থগিত হয়েছিল) আহ্বানকারী যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সায়েম খান সাংবাদিকদের বলেন, “নেত্রীর কাছে একটা বার্তা চাইছিলাম। সেই বার্তাটা আমরা পেয়েছি।

“সম্মেলন হওয়া-না হওয়াতে আমার খুশি-অখুশির কিছু নেই। কিন্তু যখন গঠনতান্ত্রিক বাধ্যবাধকতা আর সংগঠন গতিশীল করার জন্য নেত্রীর এই সিদ্ধান্তে খুশি।”

সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি বলেন, “আমরা নেত্রীর দৃষ্টি আর্কষণের জন্য সংবাদ সম্মেলন করতে চেয়েছিলাম। মাননীয় নেত্রী প্রতি পূর্ণ আস্থা রয়েছে। নেত্রীর দিকনির্দেশনায় আমরা সন্তুষ্ট।”

শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, “নেত্রীর এই নির্দেশনায় আমরা সন্তুষ্ট।”

আগামীতে নেতৃত্ব বাছাইয়ে শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন রাব্বানী।

“এবার যেন অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে, আমাদের শেষ আশ্রয়স্থল দেশরত্ন শেখ হাসিনা নিজে যাচাই-বাছাই করে, খোঁজ-খবর নিয়ে যেন যোগ্য প্রার্থীদের নেতা নির্বাচন করেন।”

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এমওআর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত