সর্বশেষ

  শেখ হাসিনার সিলেট সফর সফল করার লক্ষ্যে গোলাপগঞ্জে কর্মিসভা   দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মিজানুর রহমান   বিয়ানীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৫   মাধবপুরে চেক ডিজঅনার মামলায় যুবলীগ নেতা গ্রেফতার   বিশ্বনাথে প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন ইউপি চেয়ারম্যান আমির আলী   বিশ্বনাথে ভ্রাম্যমাণ মোবাইল থেরাপি: ভ্যান দিয়ে প্রতিবন্ধীদের সেবা প্রদান   জৈন্তাপুরে ১৫ হাজার টাকার জাল নোটসহ যুবক অাটক   দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষক সঞ্জিতকে সম্মাননা প্রদান করা হবে   কুলাউড়ার স্বাধীনতা ক্রিকেট ক্লাবে ব্যাট প্রদান   শাবিতে ৬ষ্ঠ ‘মাহা-স্পোর্টস সাস্ট চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শুরু   পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে পুনরায় মনোনীত হলেন আশফাক আহমদ   শাবি ১ম বর্ষের নবীনবরণ ৭ ফেব্রুয়ারি, উপস্থিত থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী   সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা ২৫ জানুয়ারি   হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত   দেশের যুবসমাজ সু-সংগঠিত হলে রাষ্ট্র বিকশিত হয়: সিলেটে ওমর ফারুক চৌধুরী   কোম্পানীগঞ্জ প্রবাসী সমাজকল্যাণ পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ   একটি চক্রের হাতে যেন জিম্মি ছাতকের ৩ গ্রামের মানুষ!   রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি   কমলগঞ্জের ইসলামপুরে টিভি কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সম্পন্ন   ‘মাতৃমৃত্যু রোধে মিডওয়াইফদের ভূমিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ’

শুভ জন্মদিন হুমায়ূন আহমেদ

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৩ ০২:৩১:২১

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৫ ॥ নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ। সহজ ভাষায় লেখনির জাদুতে পাঠক হৃদয়ে তৈরি করেছেন এক আলাদা স্থান। বলা হয়, বাংলাদেশের স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় লেখক তিনি।

১৩ নভেম্বর (শুক্রবার) আধুনিক বাংলা সাহিত্যের এ পথিকৃতের জন্মদিন। ১৯৪৮ সালের এ দিনে পৃথিবীতে এসেছিলেন সাহিত্যাকাশের এ উজ্জ্বল নক্ষত্র।
 
ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, নাট্যকার ও গীতিকার হিসেবে হুমায়ূন আহমেদের আসল পরিচিতি। ভিন্নধর্মী নাটক ও চলচ্চিত্র নির্মাণ করেও মিডিয়াতে একটি নিজস্ব ধারা উন্মোচন করেছেন। যা আজও দর্শকদের কাছে বিশেষ আকর্ষণের।

পেশাজীবনে তিনি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক। পরবর্তীতে সাহিত্যের প্রতি মনোযোগ দিতে অধ্যাপনা ছেড়ে দেন।
 
দুই শতাধিক গ্রন্থের লেখক হুমায়ূন আহমেদের বিশেষ উপন্যাসগুলোর মধ্যে রয়েছে নন্দিত নরকে, মধ্যাহ্ন, জোছনা ও জননীর গল্প, মাতাল হাওয়া ইত্যাদি।

তার সৃষ্ট জনপ্রিয় চরিত্রগুলোর মধ্যে হিমু ও মিসির আলী অন্যতম।

হুমায়ুন আহমেদ নির্মিত উল্লেখযোগ্য ও জনপ্রিয় চলচ্চিত্র হচ্ছে দুই দুয়ারী, শ্রাবণ মেঘের দিন, দারুচিনি দ্বীপ, ঘেঁটুপুত্র কমলা ইত্যাদি।

২০১২ সালে নির্মিত ঘেঁটুপুত্র কমলা ছিলো হুমায়ূন আহমেদের পরিচালিত শেষ চলচ্চিত্র। দীর্ঘ নয় মাস মলাশয়ের ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে চিকিৎসাধীন  অবস্থায় ২০১২ সালের ১৯ জুলাই নিউ ইয়র্কের বেলেভ্যু হসপিটালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

হুমায়ূন আহমেদ তার সৃষ্টির মাধ্যমে পাঠক ও দর্শক মনে যে স্থান তৈরি করেছেন, তা অভিন্ন ও অপরিবর্তনীয়। তিনি আজও বেঁচে রয়েছেন তার লেখা ও তার সৃষ্ট চরিত্রগুলোর মধ্যে।

জন্মদিনে প্রিয় লেখকের জন্য রইলো শ্রদ্ধাঞ্জলি।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত