সর্বশেষ

  শোকদিবস উপলক্ষে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ প্রদান   মাধবপুরে বিয়ে ঠেকাতে মায়ের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীর অভিযোগ   ব্রিটেনিয়া হোটেলে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন আম্বরখানা ব্যবসায়ী কমিটি   দিরাইয়ে হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণ নিয়ে মতবিনিময় সভা   দিরাইয়ে ৫ শিক্ষকের বিরুদ্ধে অবৈধ পদোন্নতির অভিযোগ: পুর্নাঙ্গ তদন্তে আসছেন এডিপিও   ফেঞ্চুগঞ্জে আইনশৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত   সিসিকের ৪৯৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ   কমলগঞ্জে ২টি লাশ উদ্ধার   অস্ত্রসহ একাধিক মামলার আসামী তানিম আহমেদ বাবুল কালিবাড়ি থেকে গ্রেফতার   ওসমানীনগরে ঈদ সামগ্রী ও ত্রাণ বিতরণে এগিয়ে এলো ২ দাতা সংস্থা   ওসমানীনগরে ৫ লাখ টাকার ভারতীয় নাসির বিড়িসহ আটক ২   মদনমোহন কলেজ ছাত্রসংসদের সাবেক ভিপি আলাউদ্দিন আহমদের মৃত্যুতে শোক   ছাত্রলীগ নেতা শাহীনের শয্যাপাশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান ও ব্যারিস্টার নওফেল   হবিগঞ্জে পাইপগানসহ ৩ শিবিরকর্মী গ্রেফতার : আহত ৩ পুলিশ   কানাডার অটোয়ায় বাংলাদেশ হাই-কমিশনে শোক দিবস পালন   চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ : ৫ গোলে কাবু বার্সেলোনা   ছেলে-মেয়েদের জন্যে বিমান টিকেট: মিথ্যা সংবাদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন অর্থমন্ত্রী   সহকর্মীর মৃত্যুতে শাবি কর্মচারী ইউনিয়নের শোক   মহাসড়কের দু’পাশে পল্লী বিদ্যুতের খাম্বা : চলাচলে বাধা, বড় দুর্ঘটনার আশংকা   যতদিন লাল-সবুজের পতাকা থাকবে ততদিন বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকবেন: বিশ্বনাথে লুৎফুর রহমান

সে এক না দেখা জীবন

-সিপাহী রেজা

প্রকাশিত : ২০১৫-০৭-২৯ ২৩:৫০:১৯

আপডেট : ২০১৫-০৭-২৯ ২৩:৫৭:২৮

সাহিত্য ডেস্ক : বুধবার, ২৯ জুলাই ২০১৫ ॥ জীবন গেলো। তাও গেলো সে বহু বছর আগে কোনো একদিন। ধাক্কা লেগেছে, অথবা কে জানে জীবনই ছুটে গিয়েছিল কিনা সে ধাক্কার কবলে, কে জানে! জীবন যায় এভাবেই, বহুবছর আগের মতো করে এখনো যায়। জগত ভেঙে অন্য জগতে কিংবা কোথাও না, শুধু অনন্ত পড়ে থাকা শূন্য সময়ে- যেদিকে জীবনের ভাষা ছিল, তার মতো করে অন্যদের জীবন ছিল অথবা অন্যদের মতো করে যার কিছু ছিল না। সেসব না থাকার কথা থেকে গেছে কবিতা হয়ে। কবিতার কি তাহলে এক জীবন আছে, যার যার জীবনের মতো? কতকিছুই তো থেকে গেছে, বহুল পঠিত সেইসব পেঁচা থেকে গেছে, চিল, দুপুরের, রাতের, ফাল্গুনের, কীর্তনখোলা শুয়ে আছে এখনো। কিছু কিছু আবার সেতু হয়ে ঝুলে আছে চলে যাওয়া সে জীবন আর এসব বেঁচে যাওয়া সব জীবনের মাঝে। সেসব সেতুরও জীবন আছে হয়ত, সে জীবন ফড়িঙের মতো দোয়েলের মতো, মানুষের সাথে যার দেখা হয় না। সে এক না দেখা জীবন।

বহুকাল পর্যন্ত জীবনবাবুর একটি কি দুইটি ফটোগ্রাফ দেখেছে মানুষ। জীবনবাবুর কবিতা পড়লে যে ছবি ফুটে উঠত তা এ বাংলার, তা এ বাংলার মধ্যে অনেকেরই না দেখা বাংলা। বড় বড় পাথরের ফাঁক ফোঁকরে থেকে যাওয়া ছোট ছোট নুড়িও যে দুইটি হাত ভরে স্থান নিতে পারে তা দেখিয়েছে জীবনানন্দ দাশ। কিন্তু জীবনবাবুর ছবিকে তো আর উলটে পালটে দেখা যায়নি। গানের দল ‘মেঘদল’ এর শিবু কুমার শীল একবার জীবনবাবুর একটি ছবিতে বিভিন্ন রঙ মেখে আলাদা আলাদা সেসব রঙিন ছবি পাশাপাশি বসিয়ে বৈচিত্র্য সৃষ্টি করেছিলেন।

অনেকেই এমন করতে চায়, যে এতো কিছু দেখিয়েছে ভাষায়, কবিতায়, জীবনে, তাকে নানাভাবে দেখতে চায়। তাই জীবনানন্দ দাশের আরো একটি ছবি খুঁজে পাওয়া মানে অনেক কিছু। তেমনি একটি ছবি যা কবির মৃত্যুর এক বছর আগে ১৯৫৩ সালে তোলা হয়েছিল দিল্লির রাজঘাটে। সে ছবিটি সবাইকে দেখানোটা সৌভাগ্য হিসেবেই দেখছি। ডানদিকের সাদাকালো ছবিটি দেখুন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত