সর্বশেষ

  ছাতকের চেলা নদী নৌকা বাইচ অনুষ্টিত   মিয়ানমারের রাখাইনে হিন্দু গণকবর : ২৮ মরদেহ উদ্ধারের দাবি সেনাবাহিনীর!   'শিক্ষার ভীত মজবুত করতে সরকার প্রাথমিক শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে'   শাবিপ্রবিতে কারিকুলাম উন্নয়ন বিষয়ে সেমিনার   বিয়ের প্রলোভন দিয়ে অনাথ কিশোরী ধর্ষণ : ২০ হাজারে মিটমাটের চেষ্টা   রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকারের দাবীতে ছাত্র মজলিস সিলেট মহানগরীর বিক্ষোভ   'শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের যৌথ প্রচেষ্ঠায় মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা দরকার'   রিয়ালকে জয়ে ফেরালেন নবীন সেবায়োস   কমেছে চালের দাম, কমবে আরও   লন্ডনে আবারো এসিড হামলা, আহত ৬   তথ্য-প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে : ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল   মহিউদ্দিন শীরু’র ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী ২৫ সেপ্টেম্বর   ধর্ম যার যার, উৎসব সবার : কামরান   ওসমানীনগরে নিয়মিত বসে জুয়ার আসর, প্রশাসন নিরব   জগন্নাথপুরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু   ফেঞ্চুগঞ্জে সড়ক মেরামতের দাবিতে আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা   মৌলভীবাজারে ‘শিক্ষা দিবস’ পালিত   হত্যা মামলার আসামী টিটু ও সুলেমান এখনও অধরা   ফেঞ্চুগঞ্জে পরিবহণ শ্রমিক নেতাদের সাথে প্রশাসনের সভা   রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

ট্রেন বিকল করে দিল পিঁপড়া!

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২২ ১৩:২৯:৩৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রোববার, ২২ নভেম্বর ২০১৫ ॥ গত মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের একটি লোকাল ট্রেন পথের মধ্যে হঠাৎ করে ব্রেক ফেল করে। ট্রেনের ব্রেক বক্স খুলে দেখা যায় সেখানে বাসা বেঁধেছে হাজার হাজার পিঁপড়া।  

পিঁপড়ারা দলবেঁধে বাস করে, মানুষের মত তাদেরও একটা পিঁপড়া কলোনি থাকে। এরা অত্যন্ত পরিশ্রমী কিন্তু ক্ষুদ্র প্রাণী। কিন্তু দেখা যাচ্ছে এই ক্ষুদ্র প্রাণীটিই শত শত যাত্রী নিয়ে একটি ট্রেনকে বিকল করে দিয়েছে।

বেলা ১ টার দিকে মুম্বাই শহরতলীর একটি লোকাল ট্রেন 'কল্যাণ' মাতুংগা স্টেশানের কাছাকাছি আসলে চালক একে দুবে যাত্রী তোলার উদ্দেশে ট্রেনের ব্রেক চাপেন। কিন্তু এতে ট্রেন না থামলে তিনি দ্রুত বিদ্যুৎ চালিত শক্তিশালী ব্রেক চাপেন। কিন্তু এই ব্রেকও কাজ করেনি। কোন উপায় না দেখে শেষ অবলম্বন হিসেবে তিনি ট্রেনের জরুরী ব্রেক চাপেন এবং তীব্র ঝাঁকি দিয়ে শেষ পর্যন্ত ট্রেনটি থামে।

এই ঘটনার পরে চালক দুবে ট্রেনের ব্রেক বিকল হওয়ার কথা কন্ট্রোলরুমে জানাতে বলেন গার্ডদেরকে। মাতুঙ্গা থেকে করাখানা পর্যন্ত বাকি পথ ট্রেনটিকে খুব ধীর গতিতে চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

যাত্রীদেরকে নিরাপদে নামিয়ে দেয়ার পর ইঞ্জিনিয়াররা যখন ট্রেনটিকে আগাপাশতলা পরীক্ষা করেন তখন তারা আবিষ্কার করেন যে, ব্রেক বক্সের ভেতরে বাসা বেঁধেছে পিঁপড়ারা এবং তারা ব্রেকের তারগুলো কিভাবে যেন বিকল করে দিয়েছে।

ট্রেনে মুলত তিন ধরনের ব্রেকের ব্যাবস্থা থাকে। সাধারণ ব্রেক, বৈদ্যুতিক ব্রেক এবং জরুরী ব্রেক। সাধারণ ব্রেক এবং বৈদ্যুতিক ব্রেকের তার একই ব্রেক বক্সের ভিতর দিয়ে গিয়েছে। দেখা গেছে পিঁপড়ারা এই বক্সের তারগুলোর জায়গায় জায়গায় খেয়ে ফেলেছে। এতে করে চালক ব্রেক চাপলেও সেটা কাজ করেনি।

মজার ব্যপার হচ্ছে, ট্রেনটিকে গত মাসে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছিল মাতুঙ্গা কারখানায়। তখন কোনো খারাপ রিপোর্ট পাওয়া যায় নি। ভারতের কেন্দ্রীয় রেলওয়ের মুম্বাই অংশের চেয়ারম্যান ভিক্রাম সলাঙ্কি বলেছেন, এই ঘটনায় ট্রেনের রক্ষণাবেক্ষণ কর্মকাণ্ড নিয়ে মারাত্মক প্রশ্ন ওঠে। পিঁপড়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়াটা অস্বাভাবিক হলেও পোকামাকড় নিয়ন্ত্রণও ট্রেনের স্বাভাবিক রক্ষণাবেক্ষণের একটা অংশ।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত