সর্বশেষ

  কানাইঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালিত   বৃটেন প্রবাসী বাঙালিরা বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় স্মরণ করল ভাষাশহীদদের   উলালমহল পূর্বপাড়া একতা সমিতির বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ক্রিকেট টুর্নামেন্টর পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   বিশ্বনাথে ১০ মামলার আসামী ডাকাত আবুল গ্রেপ্তার   মাতৃভাষা দিবসে বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভা   সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার : আজও চালু হয়নি পাঠাগার ও মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রহশালা   এমপি লিটন হত্যা : সুন্দরগঞ্জের সাবেক এমপি কাদের গ্রেপ্তার   শানে রিসালত মহাসম্মেলন সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা কাল   আরডিআরএস বাংলাদেশ শ্রীমঙ্গল ইউনিটের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   জেদ্দায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত   লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ   বলদী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন   দক্ষিণ এশিয়ান সাহিত্য সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন মাইস্নাম রাজেশ   বাইসাইকেলে বরযাত্রা!   ‘শিশুদের নিজেদের সংস্কৃতির শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে’   সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সভা   মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে খাদিমনগর যুব কল্যাণ পরিষদের শ্রদ্ধাঞ্জলি

ট্রেন বিকল করে দিল পিঁপড়া!

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২২ ১৩:২৯:৩৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রোববার, ২২ নভেম্বর ২০১৫ ॥ গত মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের একটি লোকাল ট্রেন পথের মধ্যে হঠাৎ করে ব্রেক ফেল করে। ট্রেনের ব্রেক বক্স খুলে দেখা যায় সেখানে বাসা বেঁধেছে হাজার হাজার পিঁপড়া।  

পিঁপড়ারা দলবেঁধে বাস করে, মানুষের মত তাদেরও একটা পিঁপড়া কলোনি থাকে। এরা অত্যন্ত পরিশ্রমী কিন্তু ক্ষুদ্র প্রাণী। কিন্তু দেখা যাচ্ছে এই ক্ষুদ্র প্রাণীটিই শত শত যাত্রী নিয়ে একটি ট্রেনকে বিকল করে দিয়েছে।

বেলা ১ টার দিকে মুম্বাই শহরতলীর একটি লোকাল ট্রেন 'কল্যাণ' মাতুংগা স্টেশানের কাছাকাছি আসলে চালক একে দুবে যাত্রী তোলার উদ্দেশে ট্রেনের ব্রেক চাপেন। কিন্তু এতে ট্রেন না থামলে তিনি দ্রুত বিদ্যুৎ চালিত শক্তিশালী ব্রেক চাপেন। কিন্তু এই ব্রেকও কাজ করেনি। কোন উপায় না দেখে শেষ অবলম্বন হিসেবে তিনি ট্রেনের জরুরী ব্রেক চাপেন এবং তীব্র ঝাঁকি দিয়ে শেষ পর্যন্ত ট্রেনটি থামে।

এই ঘটনার পরে চালক দুবে ট্রেনের ব্রেক বিকল হওয়ার কথা কন্ট্রোলরুমে জানাতে বলেন গার্ডদেরকে। মাতুঙ্গা থেকে করাখানা পর্যন্ত বাকি পথ ট্রেনটিকে খুব ধীর গতিতে চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

যাত্রীদেরকে নিরাপদে নামিয়ে দেয়ার পর ইঞ্জিনিয়াররা যখন ট্রেনটিকে আগাপাশতলা পরীক্ষা করেন তখন তারা আবিষ্কার করেন যে, ব্রেক বক্সের ভেতরে বাসা বেঁধেছে পিঁপড়ারা এবং তারা ব্রেকের তারগুলো কিভাবে যেন বিকল করে দিয়েছে।

ট্রেনে মুলত তিন ধরনের ব্রেকের ব্যাবস্থা থাকে। সাধারণ ব্রেক, বৈদ্যুতিক ব্রেক এবং জরুরী ব্রেক। সাধারণ ব্রেক এবং বৈদ্যুতিক ব্রেকের তার একই ব্রেক বক্সের ভিতর দিয়ে গিয়েছে। দেখা গেছে পিঁপড়ারা এই বক্সের তারগুলোর জায়গায় জায়গায় খেয়ে ফেলেছে। এতে করে চালক ব্রেক চাপলেও সেটা কাজ করেনি।

মজার ব্যপার হচ্ছে, ট্রেনটিকে গত মাসে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছিল মাতুঙ্গা কারখানায়। তখন কোনো খারাপ রিপোর্ট পাওয়া যায় নি। ভারতের কেন্দ্রীয় রেলওয়ের মুম্বাই অংশের চেয়ারম্যান ভিক্রাম সলাঙ্কি বলেছেন, এই ঘটনায় ট্রেনের রক্ষণাবেক্ষণ কর্মকাণ্ড নিয়ে মারাত্মক প্রশ্ন ওঠে। পিঁপড়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়াটা অস্বাভাবিক হলেও পোকামাকড় নিয়ন্ত্রণও ট্রেনের স্বাভাবিক রক্ষণাবেক্ষণের একটা অংশ।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত