সর্বশেষ

  ছাতকে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক ১   শ্রীমঙ্গল বিজিবি’র বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন   মুক্তিযোদ্ধারা হচ্ছেন জাতির সূর্যসন্তান : শফিক চৌধুরী   বিয়ানীবাজার পৌর মেয়রের বাজেটে বড় চমক : সাড়ে ৪৬ কোটি টাকার বাজেটে উন্নয়ন ব্যয় ৯১ শতাংশের বেশি   দিরাইয়ে যুব নারীদের হস্তশিল্প প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন   ডিএনএ রিপোর্টে সত্যতা মেলেনি : আতিয়া মহলে নিহতদের মধ্যে নেই জঙ্গি মুসা   বাহুবলে অবৈধ স্পিরিট বিক্রি করায় দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা   ছাতকে ১৬টি বিষধর সাপ আটক   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের অসহনীয় চাঁদাবাজী   যাকাতের অর্থ আয়বর্ধক কাজে ব্যয় করতে হবে: রাহাত আনোয়ার   বজ্রপাতের কারণে পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড় ধস   কমলগঞ্জে সংসদ সদস্য’র ঐচ্ছিক তহবিলের টাকা বিতরণ   এপেক্সিয়ান চন্দন দাসের মায়ের মৃত্যুতে সাবেক মেয়র কামরানের শোক   মওদুদের জন্য খাট পাঠাতে চান নাসিম   মসজিদ আল হারামে শবে কদরের রাতে ২০ লাখের বেশি মানুষ মোনাজাতে শরীক   পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের শুভেচ্ছা   জ্যেষ্ঠ সাংসদদের পাশে পাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী   গাজীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় ১ জনের মৃত্যু   গ্রামীনফোন’র ঈদ আয়োজনে আয়নাবাজি : ৪টি চ্যানেল, ২০টি নাটক   বৃষ্টির দিনে যেমন পোশাক

ট্রেন বিকল করে দিল পিঁপড়া!

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২২ ১৩:২৯:৩৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রোববার, ২২ নভেম্বর ২০১৫ ॥ গত মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের একটি লোকাল ট্রেন পথের মধ্যে হঠাৎ করে ব্রেক ফেল করে। ট্রেনের ব্রেক বক্স খুলে দেখা যায় সেখানে বাসা বেঁধেছে হাজার হাজার পিঁপড়া।  

পিঁপড়ারা দলবেঁধে বাস করে, মানুষের মত তাদেরও একটা পিঁপড়া কলোনি থাকে। এরা অত্যন্ত পরিশ্রমী কিন্তু ক্ষুদ্র প্রাণী। কিন্তু দেখা যাচ্ছে এই ক্ষুদ্র প্রাণীটিই শত শত যাত্রী নিয়ে একটি ট্রেনকে বিকল করে দিয়েছে।

বেলা ১ টার দিকে মুম্বাই শহরতলীর একটি লোকাল ট্রেন 'কল্যাণ' মাতুংগা স্টেশানের কাছাকাছি আসলে চালক একে দুবে যাত্রী তোলার উদ্দেশে ট্রেনের ব্রেক চাপেন। কিন্তু এতে ট্রেন না থামলে তিনি দ্রুত বিদ্যুৎ চালিত শক্তিশালী ব্রেক চাপেন। কিন্তু এই ব্রেকও কাজ করেনি। কোন উপায় না দেখে শেষ অবলম্বন হিসেবে তিনি ট্রেনের জরুরী ব্রেক চাপেন এবং তীব্র ঝাঁকি দিয়ে শেষ পর্যন্ত ট্রেনটি থামে।

এই ঘটনার পরে চালক দুবে ট্রেনের ব্রেক বিকল হওয়ার কথা কন্ট্রোলরুমে জানাতে বলেন গার্ডদেরকে। মাতুঙ্গা থেকে করাখানা পর্যন্ত বাকি পথ ট্রেনটিকে খুব ধীর গতিতে চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

যাত্রীদেরকে নিরাপদে নামিয়ে দেয়ার পর ইঞ্জিনিয়াররা যখন ট্রেনটিকে আগাপাশতলা পরীক্ষা করেন তখন তারা আবিষ্কার করেন যে, ব্রেক বক্সের ভেতরে বাসা বেঁধেছে পিঁপড়ারা এবং তারা ব্রেকের তারগুলো কিভাবে যেন বিকল করে দিয়েছে।

ট্রেনে মুলত তিন ধরনের ব্রেকের ব্যাবস্থা থাকে। সাধারণ ব্রেক, বৈদ্যুতিক ব্রেক এবং জরুরী ব্রেক। সাধারণ ব্রেক এবং বৈদ্যুতিক ব্রেকের তার একই ব্রেক বক্সের ভিতর দিয়ে গিয়েছে। দেখা গেছে পিঁপড়ারা এই বক্সের তারগুলোর জায়গায় জায়গায় খেয়ে ফেলেছে। এতে করে চালক ব্রেক চাপলেও সেটা কাজ করেনি।

মজার ব্যপার হচ্ছে, ট্রেনটিকে গত মাসে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছিল মাতুঙ্গা কারখানায়। তখন কোনো খারাপ রিপোর্ট পাওয়া যায় নি। ভারতের কেন্দ্রীয় রেলওয়ের মুম্বাই অংশের চেয়ারম্যান ভিক্রাম সলাঙ্কি বলেছেন, এই ঘটনায় ট্রেনের রক্ষণাবেক্ষণ কর্মকাণ্ড নিয়ে মারাত্মক প্রশ্ন ওঠে। পিঁপড়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়াটা অস্বাভাবিক হলেও পোকামাকড় নিয়ন্ত্রণও ট্রেনের স্বাভাবিক রক্ষণাবেক্ষণের একটা অংশ।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত