সর্বশেষ

  শেখ হাসিনার সিলেট সফর সফল করার লক্ষ্যে গোলাপগঞ্জে কর্মিসভা   দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মিজানুর রহমান   বিয়ানীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৫   মাধবপুরে চেক ডিজঅনার মামলায় যুবলীগ নেতা গ্রেফতার   বিশ্বনাথে প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন ইউপি চেয়ারম্যান আমির আলী   বিশ্বনাথে ভ্রাম্যমাণ মোবাইল থেরাপি: ভ্যান দিয়ে প্রতিবন্ধীদের সেবা প্রদান   জৈন্তাপুরে ১৫ হাজার টাকার জাল নোটসহ যুবক অাটক   দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষক সঞ্জিতকে সম্মাননা প্রদান করা হবে   কুলাউড়ার স্বাধীনতা ক্রিকেট ক্লাবে ব্যাট প্রদান   শাবিতে ৬ষ্ঠ ‘মাহা-স্পোর্টস সাস্ট চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শুরু   পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে পুনরায় মনোনীত হলেন আশফাক আহমদ   শাবি ১ম বর্ষের নবীনবরণ ৭ ফেব্রুয়ারি, উপস্থিত থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী   সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা ২৫ জানুয়ারি   হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত   দেশের যুবসমাজ সু-সংগঠিত হলে রাষ্ট্র বিকশিত হয়: সিলেটে ওমর ফারুক চৌধুরী   কোম্পানীগঞ্জ প্রবাসী সমাজকল্যাণ পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ   একটি চক্রের হাতে যেন জিম্মি ছাতকের ৩ গ্রামের মানুষ!   রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি   কমলগঞ্জের ইসলামপুরে টিভি কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সম্পন্ন   ‘মাতৃমৃত্যু রোধে মিডওয়াইফদের ভূমিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ’

অগ্ন্যাশয় ক্যানসার প্রতিরোধে করলা

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২১ ১৪:২০:৩৪

স্বাস্থ্য ডেস্ক : শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৫ ॥ ভারতীয় উপমহাদেশে করলা অত্যন্ত পরিচিত একটি সবজি। এশিয়‍া, পূর্ব আফ্রিকা, দক্ষিণ আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে এ সবজিটি জন্মে বেশি। তিতা স্বাদের করলার নানা ভেষজ ও ওষুধি গুণাগুণ রয়েছে।

বৈজ্ঞানিক গবেষণায় দেখা যায়- করলা ডায়াবেটিস ও কয়েক প্রকার ক্যানসারের চিকিৎসায় কার্যকরী। করলা ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। এন্টিভাইরাল এ সবজিটি ফ্যাট কমাতেও কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

ধারণা অনুযায়ী, ফল ও সবজির মধ্যে করলা সবচেয়ে তিতা। এটি পেটে ব্যথা, জ্বর, চর্মরোগ ও পোড়া ক্ষত সারিয়ে তুলতে প্রাকৃতিক নিরাময়ক হিসেবে বহুকাল ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

অনেকেই জানেন- অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসার অন্যান্য ক্যানসারের তুলনায় অনেক দ্রুত বাড়ে। কলোরাডো বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায়, অগ্ন্যাশয়ে ক্যান্সারের ওপর করলার ওষুধি প্রভাব পরীক্ষা করে দেখা যায়- করলার রস ক্যানসার সেল তৈরি হওয়া বন্ধ করে ও নিষ্ক্রিয় করে দেয়।

কোনো প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই এটি বেড়ে ওঠা টিউমারকে ৬০ শতাংশ হারে কমায়।

সহজলভ্য ও উপকারী হওয়ায় করলা প্রায়শই ডায়েট মেন্যুতে থাকে। তবে সুস্থ থাকতে ঠিক কী পরিমাণ করলা খাবেন তা জেনে নেওয়া ভালো। একজন ব্যক্তির প্রতিদিন দুই আউন্স বা ৫৭ গ্রামের বেশি খাওয়া উচিত নয়। বেশি খেলে পেটে ব্যথা বা ডায়রিয়া হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, গর্ভবতী নারীদের করলা খাওয়া ঠিক নয়। এটি গর্ভপাতের কারণ হতে পারে। (তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।)

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি



সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত