সর্বশেষ

  শাবি উপাচার্য অসুস্থ, ঢাকায় প্রেরণ   ঈদে রাস্তায় থাকবে বিআরটিসির ৯০০ বাস   দিরাইয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ   টস জিতে ফিল্ডিংয়ে টাইগাররা   সিলেট বিভাগকে বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষণা   দীর্ঘ ১৭ বছর পর এফডিসিতে ফিরছেন শাবানা?   শ্রীমঙ্গলে উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচন   বিশ্বনাথে স্বামীর হাতে খুন হলেন স্ত্রী   অভিযোগের পাহাড় শিক্ষার্থীদের : হল থেকে বিতাড়িত শাবির সেই ‘অপরাধ সম্রাট’   কুসিক মেয়র সাক্কুর স্থায়ী জামিন   গোয়াইনঘাটের রুস্তমপুর ইউনিয়নের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা   শিক্ষক শ্যামল কান্তির বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা   অর্ধেক বৃত্তে মৌলভীবাজার শহীদ মিনার!   যুক্তরাজ্যে আরও সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা করছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে   মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য গড়ার খাবার   আজ মাশরাফি চোখ রাখছেন জয়ে   জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৩টি বাড়ি ঘেরাও   সিলেটে বজ্রপাতে শ্যালক-দুলাভাইসহ নিহত ৩   মৌলভীবাজারের মোস্তফাপুর ইউনিয়নের বাজেট ঘোষণা   চরগাঁওয়ে রাস্তা উদ্বোধন করলেন এমপি কেয়া চৌধুরী

নিজের ক্ষতি না করেই দেহের যে অঙ্গগুলো বিক্রয়যোগ্য!

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৫ ১৩:৩২:৫৭

স্বাস্থ্য ডেস্ক : রোববার, ১৫ নভেম্বর ২০১৫ ॥ মানুষ টাকার জন্যে কিই না করে প্রতিদিন। মাথার ঘাম পায়ে ফেলে শরীরের বারোটা বাজিয়ে ফেলে, চিন্তা করতে করতে ব্রেইন স্ট্রোক করে ফেলে। তবুও প্রতিনিয়ত জীবিকার তাগিদে উপার্জন করতে চায় সবাই। সেটা যেভাবেই হোক, আর যে পথেই হোক। তবে আপনি কি জানেন আপনার শরীর নিজেই আস্ত একটা টাকার গাছ? বাস্তবে মানুষের শরীর তার এমন একটি সম্পদ, যেখান থেকে কিছু জিনিস ছাড়াই সে বিক্রি করতে পারে অন্যের কাছে, নিজের কোন রকম ক্ষতি করা ছাড়াই। আর আজ জেনে নিন মানবদেহের এমনই কিছু বিক্রিযোগ্য উপাদান সম্পর্কে, যেগুলো বিশ্বজুড়ে মানুষ কেনাবেচা করছে। অবৈধ নয়, বৈধ উপায়েই!
 
১. রক্তরস বা প্লাজমা
ডোনেটিং প্লাজমা. অর্গানাইজেশনের মতে নার্স বা ডাক্তার কর্তৃক আপনার রক্ত সংগ্রহ করে নেওয়ার পর যদি সেদিকে খেয়াল করেন, দেখবেন তলায় বেশ স্পষ্ট দেখতে প্লাজমা বা রক্তরস রয়েছে। এটিকে আপনার শরীর থেকে খানিকটা বের করে নিলে আপনার কোন সমস্যাই হবেনা। তবে সাহায্য হবে অন্যদের। অনেক জীনগত সমস্যার অন্যতম চিকিত্সার শুরু হয় রক্তরস দিয়ে। আর সেজন্যে রক্তরসের চাহিদাটাও বেশ ভালো। তবে আপনার রক্তরসের মূল্য কত হবে সেটা সবসময় নির্ভর করবে আপনার ওজনের ওপর। ওজন বেশি হলে আপনার রক্তরসের দামটাও খানিকটা বেশিই পাবেন আপনি।
 
২. চুল
বিশ্বের সব স্থানেই চুল বিক্রির বেশ ভালো চাহিদা রয়েছে। আপনি ইচ্ছে করলেই আপনার চুলগুলো বিক্রি করে আয় করতে পারেন বেশ কিছু টাকা। এক্ষেত্রে আপনাকে রাখতে হবে যতটা সম্ভব দীর্ঘ আর প্রাকৃতিক চুল। এরমানে কোন ক্ষতিকারক হেয়ার ড্রায়ার বা রাসায়নিক প্রসাধনী ব্যবহার করা যাবেনা যেটা আপনার চুলকে নষ্ট করতে পারে। (বিজনেস ইনসাইডার)
 
৩. পুরোটা শরীর
অনেকসময় নতুন কোন পদ্ধতি বা যন্ত্র পরীক্ষা করতে চিকিত্সকদের দরকার পড়ে মানব দেহের। আর এক্ষেত্রে তারা সেই নির্দিষ্ট সময় আর পরীক্ষার জন্যে কিনে নিতে পারে একটি মানবদেহ। এক্ষেত্রে টাকার বিনিময়ে আপনার শরীরের ওপর পরীক্ষা চালাতে দেবেন আপনি। তবে এগিয়ে যাওয়ার আগে অবশ্যই সম্ভাব্য ঝুঁকিগুলোর কথা মাথায় রাখা দরকার। (বিজনেস ইনসাইডার)
 
৪. শুক্রাণু
ভিকি ডোনার চলচিত্রটির কথা মনে আছে যেখানে নায়ক নিজের শুক্রাণু বিক্রি করে টাকা আয় করতেন? আর এই স্পার্মগুলো সাধারণত তাদেরকেই দেওয়া হয় যারা সন্তান জন্মদানে অক্ষম। এটি কেবল আপনার নিজের আয়ই বাড়াবে না, হাসি ফোটাবে অন্যদের মুখেও। স্পার্ম ব্যাংক অব ক্যালিফোর্নিয়ার মতে এ পদ্ধতিতে মাসে আপনি নিজের আয় প্রায় ৬০০ ডলার বাড়াতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে বেশকিছু শর্ত পূরণ করতে হবে আপনাকে। যার ভেতরে পড়বে বয়স থেকে শুরু করে চিকিত্সার প্রতিবেদন পর্যন্ত।
 
৫. বোন ম্যারো বা অস্থি মজ্জা
অন্যান্য অঙ্গ বিক্রি করার ক্ষেত্রে নানারকম ঝামেলা থাকলেও উপরের কিছু ব্যাপার ছাড়া শরীরের আর যে জিনিসটি বিক্রি করতে একদমই সমস্যা নেই সেটি হচ্ছে বোন ম্যারো। (বিজনেস ইনসাইডার)।  মানুষের সুস্থ থাকার জন্যে বোন ম্যারোর দরকার পড়ে যেটা অনেকের ক্ষেত্রে নেই হয়ে যায়। আর তাদেরকে সাহায্য করার পাশাপাশি বোনম্যারো বিক্রি করে বেশ ভালো আয় করতে পারেন আপনি।
 
৬. রক্ত
এটাতো প্রায় সবারই বেশ জানা কথা যে রক্ত আমাদের কতটা দরকারী আর বিপদের সময় সবারই অন্যতম আশ্রয় হয়ে দাঁড়ায় ব্লাড ব্যাংক। কিন্তু এই ব্লাড ব্যাংকের রক্তগুলো আসে কোথা থেকে? নিশ্চয় কারো না কারো শরীর থেকে। রক্ত কয়েক মাস পরপর নতুন করে তৈরি হয় দেহে। আর তাই একটুও চিন্তা না করে আপনি রক্ত বিক্রি করতে পারেন বেশ ভালো দামে। তবে রক্ত দেওয়ার সময়ের ভেতরে ৫৬ দিনের বিরতি থাকাটা বাঞ্ছনীয়। (দি রিচেস্ট)

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/পি.কম/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত