সর্বশেষ

  কানাইঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালিত   বৃটেন প্রবাসী বাঙালিরা বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় স্মরণ করল ভাষাশহীদদের   উলালমহল পূর্বপাড়া একতা সমিতির বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ক্রিকেট টুর্নামেন্টর পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   বিশ্বনাথে ১০ মামলার আসামী ডাকাত আবুল গ্রেপ্তার   মাতৃভাষা দিবসে বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভা   সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার : আজও চালু হয়নি পাঠাগার ও মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রহশালা   এমপি লিটন হত্যা : সুন্দরগঞ্জের সাবেক এমপি কাদের গ্রেপ্তার   শানে রিসালত মহাসম্মেলন সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা কাল   আরডিআরএস বাংলাদেশ শ্রীমঙ্গল ইউনিটের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   জেদ্দায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত   লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ   বলদী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন   দক্ষিণ এশিয়ান সাহিত্য সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন মাইস্নাম রাজেশ   বাইসাইকেলে বরযাত্রা!   ‘শিশুদের নিজেদের সংস্কৃতির শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে’   সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সভা   মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে খাদিমনগর যুব কল্যাণ পরিষদের শ্রদ্ধাঞ্জলি

নবজীবন দিল ৩৫ লাখ বছরের পুরনো জীবাণু!

প্রকাশিত : ২০১৫-১০-০১ ২১:৪৩:০৭

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০১৫ ॥ সাইবেরিয়ার সাখা প্রজাতন্ত্রে প্রাচীন বরফস্তরের নিচে সন্ধান মিলেছিল ৩৫ লাখ বছরের পুরনো ‘ব্যাসিলাস এফ’ ব্যাক্টেরিয়ার। এই জীবাণু শরীরে নিয়ে নবজীবন পেলেন মস্কোর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওক্রাইওলজি বিভাগের প্রধান বিজ্ঞানী আনাতোলি ব্রৌচকভ।

দুই বছরেরও আগে পরীক্ষামূলকভাবে নিজের শরীরে সেই ব্যাক্টেরিয়া ইনজেক্ট করেন তিনি। রক্তে এই প্রাচীন ব্যাক্টেরিয়া মেশার পর কী প্রতিক্রিয়া হয়, তা দেখতেই এই পরীক্ষা। 

অধ্যাপক ব্রৌচকভ জানান, লক্ষ লক্ষ বছর ধরে জীবিত এই ব্যাক্টেরিয়ার মধ্যে আয়ু বৃদ্ধি করার ক্ষমতা রয়েছে। পরীক্ষায় জানা গেছে, ব্যাসিলাস এফ ব্যাক্টেরিয়ার সাহায্যে বয়স্ক স্ত্রী ইঁদুর সন্তানধারণে সক্ষম হয়েছে। এমনকি এর সাহায্যে চরম শীতল আবহাওয়াতেও ফসল ফলানো সম্ভব হয়েছে।

২০০৯ সালে প্রত্যন্ত সাখা প্রজাতন্ত্রের ম্যামথ মাউন্টেনে তুষারস্তরের ভেতরে এই ব্যাক্টেরিয়া আবিষ্কার করেন ব্রৌচকভ। তার দাবি, শরীরে এই ব্যাক্টেরিয়া প্রবেশ করানোর পর গত দুই বছরে সর্দি-কাশিতে ভোগেননি। সেই সঙ্গে প্রতিদিন তার কাজের সময়ও দীর্ঘায়িত হয়েছে।

তবে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে কি না তা পরীক্ষা সাপেক্ষ। ব্রৌচকভ জানিয়েছেন, বিস্তারিত জানতে বিশেষজ্ঞদের সাহায্যে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে পরীক্ষা করা জরুরি। পরীক্ষা সফল হলে ব্যাসিলাস এফ মানুষের আয়ু বৃদ্ধির অমোঘ দাওয়াই হয়ে উঠবে বলে মনে করছেন তিনি।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত