সর্বশেষ

  বিয়ানীবাজার পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে কে কতো ভোট পেয়ে নির্বাচিত হলেন   শাবিতে সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় সপ্তাহব্যাপী গণস্বাক্ষর কর্মসূচি সমাপ্ত   মাধবপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ফেঞ্চুগঞ্জে কুশিয়ারা নদীতে ভাসছে লাশ   কুলাউড়ার চাতলাপুর চা বাগানে নারী শ্রমিকদের কর্মবিরতি অব্যাহত : যোগ দিলেন পুরুষ শ্রমিকরাও   কেন বাংলাদেশে আসছে না পাকিস্তান?   গণভবনে হাসিনার সাথে ডেভিড ক্যামেরনের সাক্ষাৎ   শনিবার সুনামগঞ্জ আসছেন ওয়ার্কার্স পার্টি ও যুব মৈত্রীর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ   হিমালয়ে নিখোঁজ পবর্তারোহীকে ৪৭ দিন পর উদ্ধার   সিলেট মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রয়েছেন যারা   মদনমোহন কলেজে ডিগ্রি (পাস) কোর্সে রিলিজস্লিপে ভর্তির শেষ তারিখ ৩০ এপ্রিল   চাপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের জন্য শেষ আহ্বান   চলে গেলেন অভিনেতা বিনোদ খান্না   শ্রীমঙ্গলে র‌্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত   কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণে এলাকাবাসীর মধ্যে আনন্দের বন্যা   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শিক্ষা বিষয়ক গেøাবাল অ্যাকশন র‌্যালি শেষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   শায়েস্তাগঞ্জসহ ৬ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একঘণ্টা কর্মবিরতি   ছাতকে ব্যবসায়ীদের নিয়ে কাস্টম্স বিভাগের কর্মশালা সম্পন্ন   মোল্লারগাঁও ইউপি ৩নং ওয়ার্ড তালামীযের মতবিনিময় সভা   আব্দুস সামাদ আজাদের ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ইউরিন ইনফেকশনের লক্ষণ ও ৪টি ঘরোয়া চিকিৎসা

প্রকাশিত : ২০১৫-০৯-২৮ ১৫:১৯:২২

স্বাস্থ্য ডেস্ক : সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ॥ আমরা যখন পানি খাই তখন তা কিডনির মাধ্যমে ছেঁকে মূত্রনালি দিয়ে মূত্র হিসেবে বের হয়ে যায়। মানুষের শরীরের দুটি কিডনি, দুটি ইউরেটার, একটি ইউরিনারি ব্লাডার (মূত্রথলি) এবং ইউরেথ্রা (মূত্রনালি) নিয়ে মূত্রতন্ত্র গঠিত। আর এই মুত্রতন্ত্রের যেকোনো অংশে যদি জীবাণুর সংক্রমণ হয় তাহলে সেটাকে ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন বলা হয়। কিডনি, মূত্রনালি বা মূত্রথলি অথবা একাধিক অংশে একসঙ্গে এই ধরণের ইনফেকশন হতে পারে। এই ইনফেকশনকেই সংক্ষেপে ইউরিন ইনফেকশন বলা হয়। সাধারণত এই সমস্যাটি নারী পুরুষ উভয়ের মধ্যে হলেও নারীদের মধ্যে ইউরিন ইনফেকশনে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি।

ইউরিন ইনফেকশন হলে যে লক্ষণ গুলো দেখা যায় সেগুলো হলো-

    > প্রস্রাব গাঢ় হলুদ বা লালচে হওয়া
    > প্রস্রাবে বাজে গন্ধ
    > একটু পর পর প্রস্রাব লাগা কিন্তু ঠিক মতো না হওয়া
    > প্রস্রাব করার সময় জ্বালা পোড়া বা ব্যথা করা
    > তলপেটে বা পিঠে তীব্র ব্যথা
    > সারাক্ষণ জ্বর জ্বর ভাব অথবা কাঁপুনি দিয়ে ঘন ঘন জ্বর হওয়া
    > বমি ভাব বা বমি হওয়া

ইউরিন ইনফেকশনের কিছু ঘরোয়া প্রতিকার আছে যেগুলো মেনে চললে নিস্তার পাওয়া সম্ভব এই সমস্যা থেকে। আসুন জেনে নেয়া যাক ইউরিন ইনফেকশনের ঘরোয়া প্রতিকার গুলো সম্পর্কে।

প্রচুর পানি খাওয়া:
ইউরিন ইনফেকশন হলে কিংবা ঘন ঘন ইউরিন ইনফেকশন হওয়ার প্রবণতা থাকলে প্রতিদিন কম পক্ষে ৮ আউন্স পানি খাওয়া উচিত। কিছুক্ষন পর পর এক গ্লাস করে পানি খেলে অল্প সময়ের মধ্যেই ইউরিন ইনফেকশন ভালো করে ফেলা যায়। বিশেষ করে প্রসাবে হলুদ ভাব দেখা গেলেই দেরি না করে প্রচুর পরিমাণে পানি খাওয়া শুরু করা উচিত। আর যাদের প্রায়ই এই সমস্যা হয় তাঁরা সব সময়েই একটু বেশি পানি খাওয়ার অভ্যাস করবেন। সাধারণত প্রতি ৪ থেকে ৫ ঘন্টা পর পর প্রস্রাব হওয়া উচিত। প্রস্রাব হতে এর চাইতে বেশি দেরি হলে বার বার পানি খেতে থাকুন। বাসার বাইরে গেলেও সব সময় পানি রাখুন সাথে।

ভিটামিন সি
ইউরিন ইনফেকশন হলে অনেক ডাক্তারই রোগীদেরকে দৈনিক ৫০০০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ভিটামিন সি মুত্রথলীকে ভালো রাখে এবং প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া ভাব কমাতে সহায়তা করে। এছাড়াও ভিটামিন সি ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সহায়তা করে। তাই ইউরিন ইনফেকশন হলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি যুক্ত খাবার খান।

আনারস
আনারসে আছে ব্রোমেলাইন নামক একটি উপকারী এঞ্জাইম। গবেষণায় দেখা গেছে যে ইউরিন ইনফেকশনে আক্রান্ত রোগীদেরকে সাধারণত ব্রোমেলাইন সমৃদ্ধ অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হয় এবং তা ইউরিন ইনফেকশন ভালো করে দেয় খুব দ্রুত। তাই ইউরিন ইনফেকশন হলে প্রতিদিন এক কাপ আনারসের রস খান।

বেকিং সোডা
ইউরিন ইনফেকশন সাধারণত দুই দিনের বেশি সময় থাকে। আর এই সময়ে ইনফেকশন কিডনিতে ছড়িয়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই যত দ্রুত সম্ভব ইউরিন ইনফেকশন সারিয়ে ফেলা উচিত। বেকিং সোড়া দ্রুত ইউরিন ইনফেকশন সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। ১/২ চা চামচ বেকিং পাউডার এক কাপ পানিতে ভালো করে মিশিয়ে দিনে একবার করে খেলে প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া কমে এবং ইউরিন ইনফেকশন দ্রুত ভালো হয়।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/পি.কম/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত