সর্বশেষ

  কোম্পানীগঞ্জ প্রবাসী সমাজকল্যাণ পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ   একটি চক্রের হাতে যেন জিম্মি ছাতকের ৩ গ্রামের মানুষ!   রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি   কমলগঞ্জের ইসলামপুরে টিভি কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সম্পন্ন   ‘মাতৃমৃত্যু রোধে মিডওয়াইফদের ভূমিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ’   সাদিপুর ইউপি ছাত্রদলের নব-গঠিত কমিটিকে সংবর্ধনা   সারিঘাট প্রবাসী সমাজকল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ   উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আ’লীগকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে: সাফিয়া খাতুন   এমসি কলেজ ছাত্রাবাস: নেই অাগুনে পোড়া গন্ধ, আছে ফুলের ঘ্রাণ   বিশ্বনাথে ‘দৌলতপুর ইউনিয়ন প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ’র উদ্বোধন   সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে: শফিক চৌধুরী   দক্ষিণ সুরমায় সড়ক দুর্ঘটনায় ইজতেমা ফেরত ৪ মুসল্লি নিহত   ‘সিলেট-২ আসনে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হবেন মুনতাসির আলী’   মুনতাসির আলীর সমর্থনে বিশ্বনাথে খেলাফত মজলিসের প্রচার মিছিল   প্রাণিসম্পদ সপ্তাহে বিশ্বনাথে র‌্যালি   কানাইঘাট প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণে তহবিল গঠনে সুধীজনদের নিয়ে সমাবেশ   বিশ্বনাথে ‘দৌলতপুর ইউনিয়ন প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ’র উদ্বোধন   আর্ত-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে ইয়াং স্টার : আশফাক আহমদ   কাল সিলেট আসছেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক ও সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ   ভাটি এলাকার কৃষি ও কৃষক রক্ষার দাবিত ঢাকায় মানববন্ধন

শিশুর অ্যাজমায় মা-বাবার জন্য অবশ্যই যা করণীয়

প্রকাশিত : ২০১৫-০৮-১৭ ১৫:১১:১৩

স্বাস্থ্য ডেস্ক : সোমবার, ১৭ আগস্ট ২০১৫ ॥ একটি শিশু পুরো পরিবারের ভালোবাসার প্রতীক। সকলের ভালোবাসাকে আশ্রয় করে বেড়ে ওঠা শিশুটি যখন রোগে আক্রান্ত হয়, তখন সবার মন দুঃখের কালো পর্দায় ঢেকে যায়। শিশুদের একটি ভয়ংকর রোগের নাম এ্যাজমা। কোন শিশু হয়ত ফুটবল খেলার সময় এ্যাজমায় আক্রান্ত হয়। আবার কোন শিশুর ক্ষেত্রে গভীর রাতে এ্যাজমা তার কালো থাবা বসিয়ে দেয়। মা বাবার জন্য শিশুদের সবসময় নজরবন্দি রাখা অনেক কঠিন বিষয়। কিন্তু এ্যাজমা আক্রান্ত শিশুটির দিকে নজর না রেখে উপায় কী? আর যদি মা বাবা অনেক আগে থেকেই সচেতন থাকেন তবে শিশুটি হয়ত একসময় এই কঠিন রোগ থেকে মুক্তি পায়। আসুন জেনে নিই শিশুর এ্যাজমায় মা বাবার করণীয় সম্পর্কে।

১. তৈরি করুন এ্যাজমা ডায়েরিঃ
একটা শিশুর চিকিৎসা ঠিকভাবে হওয়ার জন্য মা বাবার উচিত শিশুর এ্যাজমা বিষয়ক উন্নতি অবনতি লিপিবদ্ধ করা। ডাক্তার অবশ্যই জানতে চাইবে যে তার চিকিৎসা পদ্ধতি কাজ করছে কি না। তাই আপনার শিশুর রোগের দৈনন্দিন সব খুঁটিনাটি লিখে রাখার জন্য আজই এ্যাজমা ডায়েরি তৈরি করুন। আপনার শিশুর কখন এ্যাজমা এ্যাটাক হয়েছে, কোন কোন দিনে হয়েছে এবং লক্ষণগুলো কী কী ছিল সব বিস্তারিত লিখে রাখুন। অবশ্যই দিন তারিখ লিখতে ভুলবেন না। শিশু যদি নিয়মিত ঔষধ গ্রহণ করে তবে ঔষধের প্রতিক্রিয়া এবং ডোজের পরিমাণও লিখে ফেলুন। আর কোন পরিস্থিতিতে তার এ্যাজমা বেড়ে যায় সেটাও লিখতে হবে পরিপূর্ণভাবে।

২. পিক ফ্লো মিটার ব্যবহার করুনঃ
প্রতি মিনিটে ফুসফুসে কতটুকু বাতাস পরিবাহিত হয় এটা পরিমাপের জন্য পিক ফ্লো মিটার ব্যবহার করা হয়। এটা আপনাকে শিশুর ফুসফুসের অবস্থা জানতে সাহায্য করবে। আপনার ডাক্তার বা ডাক্তারের সহযোগীর কাছ থেকে পিক ফ্লো মিটার ব্যবহার পদ্ধতি জেনে নিন।

৩. ডাক্তারের সাথে মন খুলে কথা বলুনঃ
আপনার শিশুকে নিয়মিত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান। এমনকী যখন সে ভালো বোধ করে তখনও। ডাক্তার আপনার শিশুর শ্বাস প্রশ্বাস পরীক্ষা করবেন। যদি শিশুটি ঔষধ গ্রহণ করে থাকে, ডাক্তার বোঝার চেষ্টা করবেন ঔষধ ঠিকমত কাজ করছে কী না। ডাক্তার এ্যাজমা ডায়েরি দেখে রোগী সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন এবং এ বাদেও মা বাবাকে অনেক প্রশ্ন করবেন। ডাক্তারই মা বাবাকে একটি এ্যাজমা একশন প্ল্যান প্রদান করবেন যার মাধ্যমে মা বাবা শিশুর দেখ ভালের বিস্তারিত প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে পারবেন।

৪. ঔষধ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি সম্পর্কে জানুনঃ
আপনি যদি শিশুর এ্যাজমার ঔষধ সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা পান তবে সহজেই শিশুর যত্ন নিতে পারবেন। ঔষধ বিষয়ে মা বাবাকে যে সব জিনিস মনে রাখতে হবে তা হল-
• ঔষধ সম্পর্কে বিস্তারিত নির্দেশনা মেনে চলুন।
• সময়ের ঔষধ সময়ে প্রদান করুন।
• এ্যাজমার লক্ষণের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ঔষধ প্রদানের প্রয়োজন হতে পারে।
• শিশু যখন সুস্থ থাকে তখনও ঔষধ নিয়ে অবহেলা করবেন না।
• ঔষধের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে ডাক্তারকে বিস্তারিত জানান।

৫. এ্যাজমা বিষয়ে খুঁটিনাটি জানুনঃ
আপনিও আপনার শিশুর জন্য তৈরি করা মেডিকেল টিমের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। তাই ডাক্তার বা তার স্টাফের কাছ থেকে এ্যাজমা বিষয়ে খুঁটিনাটি জেনে নিন। যে সব জিনিসের সংস্পর্শে শিশুর এ্যাজমা বেড়ে যায়, সেসব থেকে শিশুকে দূরে রাখুন। ঠিকভাবে ইনহেলার ব্যবহারের পদ্ধতি জেনে নিন। আপনার শিশুকে সাহস প্রদান করুন, কারণ অনেক সময় দুঃশ্চিন্তাও এ্যাজমা বাড়িয়ে দিতে পারে। [সুত্রঃ Columbus Regional Health]

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/পি.কম/এসবি

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত