সর্বশেষ

  মাধবপুরে স্ত্রী হত্যা : চাঁদপুর থেকে স্বামী গ্রেফতার   চুনারুঘাটে শ্যামলী পরিবহনের বাস চাপায় নিহত ১   হামজা চৌধুরী, ইংলিশ ফুটবলের বড় আসরে প্রথম বাংলাদেশী!   রোনালদোও পারলেন না রিয়ালকে বাঁচাতে!   ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় ইমরানের জামিন   রেড ক্রিসেন্টের ত্রাণবাহী ট্রাক খাদে : নিহত ৯   তাহিরপুরের সোয়েব হত্যা মামলায় দুই আসামী গ্রেফতার   বিশ্বনাথে ‘প্রেমিকা’র অনশন, সিলেটে ‘প্রেমিক’ ইউপি সদস্য আটক   রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আজকের দিন   রোহিঙ্গা সংকটের দ্রুত সমাধান করুন : ডোনাল্ড ট্রাম্প   ফেঞ্চুগঞ্জ বাজারের জলাবদ্ধতা দুর করতে ব্যবসায়ীরা স্বেচ্ছাশ্রমে মাটি ভরাট   রাজনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১   ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা   রোহিঙ্গাদের জন্য নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান   রোহিঙ্গা হত্যার প্রতিবাদে দিরাইয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন   ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় মানবিক সমাজ বির্নিমানে নাট্য আন্দোলনের বিকল্প নেই’   বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ : বিভাগীয় কমিশনার   সুনামগঞ্জ থেকে হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার   রত্নাগর্ভা সম্মাননা পেলেন সুনামগঞ্জের মমতা   শ্রমিক নেতা সুজনের রিমাণ্ড আবেদন না’মঞ্জুর

সঙ্গী হত্যার প্রতিশোধ নিতে আসা বিষাক্ত গোখরোকে রুখে দিলো পোষা বিড়াল!

প্রকাশিত : ২০১৫-১০-০১ ২২:৫৩:২৬

আপডেট : ২০১৫-১০-০১ ২৩:০২:৪০

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০১৫ ॥ মানুষের হাতে নিহত সঙ্গীর প্রতিশোধ নিতে অপর একটি সাপের ক্রুদ্ধ তৎপরতা দেখা গেছে সিলেট নগরীর খাদিমপাড়ার দিগন্ত আবাসিক এলাকার একটি বাসায়।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার ঐ এলাকার শফিক মিয়ার ৪৫ নং বাসায়। 

গত ১ সেপ্টেম্বর শফিক মিয়ার বাসার পেছনে একটি লিচু গাছের ডালে একটি বিষাক্ত ‘আলদ’ (গোখরো) সাপকে বসে থাকতে দেখা যায়। এভাবে একটানা তিন তিন একই স্থানে অবস্থান করার পর এক পর্যায়ে সাপটি চলে যায়। এর একদিন পর আবার একই স্থানে সাপটিকে দেখা যায়। এতে সংশ্লিষ্ট বাসাসহ আশপাশের বাসার লোকজন আতংকিত হয়ে বন বিভাগের শরনাপন্ন হন। 


কিন্তু বন বিভাগ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মী না থাকায় এ ব্যাপারে কোন সহায়তা করতে অপারগতা প্রকাশ করে। এ অবস্থায় সাপুড়ে অর্থাৎ ওঝাকে খবর দেয়া হয়। কিন্তু ওঝাও না আসায় এলাকার লোকজন এই ভীতিকর অবস্থা থেকে রেহাই পেতে সাপটিকে মেরে ফেলে। 

এরপরই ঘটে বিপত্তি। মৃত সাপটির সঙ্গী অপর একটি ‘গেছো আলদ’ (গোখরো সাপ) পরের দিন সকাল এগারোটার দিকে ৭ ফুট উঁচু দেয়াল টপকে ঐ বাসার আঙ্গিনায় চলে আসে এবং ঘরের ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে। কিন্তু বাসার পোষা বিড়ালটি এই মারমুখী হিংস্র আগন্তুক প্রাণীটিকে ঢুকতে দেখে রুখে দাঁড়ায়। সাপটি বার বার ঘরে ঢুকতে চেষ্টা করলেও বিড়ালটি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। প্রায় আড়াইঘন্টা চলে এই সাপ-বিড়ালের লড়াই। 

এ সময় বাসার লোকজন দোতলার বারান্দায় দাঁড়িয়ে এই অভিনব লড়াইয়ের দৃশ্য প্রত্যক্ষ করেন। কিন্তু এ সময় ঐ বাসা কিংবা আশপাশের বাসায় শুধু শিশু ও মহিলারা থাকায় বিড়ালটিকে সাহায্য করতে কেউ সাহসী হননি। যা-ই হোক, এক পর্যায়ে সাপটি রণে ভঙ্গ দিয়ে পিছু হটে। অর্থাৎ পোষা বিড়াল সাপটিকে তাড়িয়ে দিতে সক্ষম হয়। 

এ খবর পেয়ে গৃহকর্তা সাপুড়ে বা ওঝার সাথে যোগাযোগ করেন। এ পর্যায়ে তারা আর কালবিলম্ব না করে দ্রুত ঘটনাস্থলে চলে আসেন। পরদিন বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টায় ওঝা ইব্রাহীম তার সঙ্গীদের নিয়ে চলে আসেন। 

দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর যে সাপটি সঙ্গী হত্যার প্রতিশোধ নিতে এসেছিলো তাকে ধরতে সক্ষম হন ওঝা ইব্রাহীম। এছাড়া ইব্রাহীম ও তার সঙ্গীরা তার ছেলে আল মামুন এবং মেছয়ার আলী, মাহিদুল হোসেন ও আবুল কালাম পাশের খালি প্লট থেকে ‘ভীম আলদ’ নামে আরেকটি বিষাক্ত সাপ ধরেন। 

উৎসুক লোকজন সাপ ধরার দৃশ্য দেখার জন্য আশপাশের এলাকা থেকে এসে ভিড় করেন। বিষাক্ত সাপ দু’টি ধরার পর শফিক মিয়ার পরিবারে স্বস্তি নেমে এসেছে।

উল্লেখ্য, কোথাও সাপ দেখলে উঝা ইব্রাহীম আলীর মোবাইলে ০১৭৪৭-৩১৫ ৮১১ ও উঝা মেছের আলীর মোবাইল নং ০১৭৩২ ৮৬৩ ২৯৮ এ যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/প্রেবি/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত