সর্বশেষ

  জাকির হোসেনের সহায়তায় ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত রুমা ভারতে : চলতি সপ্তাহে অপারেশন   ভাস্কর্য অপসারণ ও শিক্ষক গ্রেফতারের প্রতিবাদে নিউইয়র্কে বিক্ষোভ   ভয়াবহ বিস্ফোরণ সাভারের ‘জঙ্গি আস্তানায়’   আর্জেন্টিনার কোচ সাম্পাওলিই   সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা’, পৌঁছেছে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল   ডাব দেবে গরমে সতেজ অনুভূতি   কুড়িয়ে পাওয়া নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন ওসি   গর্বিত রুনা লায়লা   হুমকিতে হাকালুকি হাওর এলাকার শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন   বড়লেখায় চেয়ারম্যান কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা   আবু সাঈদ হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে জাউয়ায় মানববন্ধন   আমাদের পরিচয় ঢাকা পড়ে গেছে বিদেশি পরিচয়ে : এম.এ মান্নান   ইসলামী ব্যাংকের সিলেট জোনের ব্যবসায় উন্নয়ন সম্মেলন অনুষ্ঠিত   সহায়তার হাতে মলিন মুখে খুশির ঝিলিক   সুতাংয়ের ভূয়া ডা. বেলালকে গ্রেফতারের দাবি   জকিগঞ্জে এসএসসি উত্তীর্ণদের সংবর্ধনা   জগন্নাথপুরে আইডিয়াল ভিলেজ ফোরামের আত্মপ্রকাশ ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ   মৌলভীবাজারে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার   বিশ্বনাথে মসজিদে তালা : প্রতিবাদে মানববন্ধন   হাওরে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে চণ্ডিপুর অ্যাসোসিয়েশন ইউকে

দেখা মিলবে ১৪ গুণ বড় রক্তিম চাঁদের

প্রকাশিত : ২০১৫-০৯-২৬ ১৫:৩০:৩৬

ফিচার ডেস্ক : শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ॥ মহাকাশ সম্পর্কে আগ্রহীরা যেন এখন থেকেই আকাশের দিকে চোখ রাখছেন। অবশ্য কোনো ভিনগ্রহবাসীর যান বা নতুন কোনো নক্ষত্র দেখার আশায় এই আকাশ পানে তাকানো নয়। চলতি বছরে পঞ্চমবারের মতো হতে যাচ্ছে সুপারমুন বা রক্তিম চাঁদ, আর সেই রক্তিম চাঁদ দেখার আশাতেই ওই আকাশ পানে তাকিয়ে থাকা। মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার পক্ষ থেকে আগামীকাল ২৭ সেপ্টেম্বর রাতের রক্তিম চাঁদকে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলা হচ্ছে। এই চাঁদের পিঠে সওয়ার হয়েই আসবে চলতি মাসের সর্বশেষ পূর্ণিমা।

রবিবার মধ্যরাতে স্বাভাবিক রাতগুলোর তুলনায় পৃথিবীর অনেকটাই কাছাকাছি চলে আসবে চাঁদ। ওই সময় চাঁদের সঙ্গে পৃথিবীর দূরত্ব হতে পারে আনুমানিক দুই লাখ ২১ হাজার ৭৫৪ মাইল। ঠিক ওই সময় পৃথিবী চাঁদ এবং সূর্যের মধ্যবর্তী স্থানে বিরাজ করবে। শুরুর দিকে চাঁদকে কিছুটা ধূসর থেকে শুরু হয়ে তামাটে বর্ণ ধারণ করলেও ক্রমশ রক্তিম বর্ণের দিকে যাবে। আবহাওয়াবিদদের মতে, রক্তিম চাঁদ পৃথিবীতে বিভিন্ন প্রাকৃতিক বিপর্যয় নিয়ে আসতে পারে। যদিও প্রকৃতিতে এখন পর্যন্ত সেরকম কোনো আলামত পাওয়া যায়নি।

চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি অবস্থান করার কারণে চাঁদকে অন্যান্য দিনের তুলনায় ১৪গুন বেশি বড় এবং অন্তত ৩০ শতাংশ বেশি উজ্জ্বল দেখাবে। তবে এই দৃশ্য সবচেয়ে বেশি ভালোভাবে দেখা যাবে উত্তর আমেরিকা, বিশেষ করে পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চল থেকে। তবে এশিয়া অঞ্চল থেকেও রক্তিম চাঁদ দেখা গেলেও অতটা উজ্জ্বল চাঁদের দেখা নাও মিলতে পারে। মহাকাশ বিজ্ঞানীদের পক্ষ থেকে উজ্জ্বল চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে চশমা ব্যবহার করার কথা জানিয়েছেন।

এদিকে, এই ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী হতে ইতোমধ্যেই অনেক দেশের মহাকাশ বিষয়ক সংস্থাগুলো জনসাধারণের জন্য এই রক্তিম চাঁদ দেখার আয়োজন করছে। নিউইয়র্কের ইন্টারপিড জাদুঘর থেকে হাডসন নদীর ধার থেকে চাঁদ দেখার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। নদীর ধারে রাখা থাকবে শক্তিশালী টেলিস্কোপ, যা দিয়ে চাঁদের শরীর স্পষ্ট দেখা যাবে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের দিল্লিতেও একই ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত