সর্বশেষ

  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদোন্নতি পেলেন জ্যোতির্ময়   নগরী থেকে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার   জামিন পেলেন পৌর শ্রমিকলীগ নেতা তানিন   বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা   সরকারের পাশাপাশি অসহায়দের পাশে বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত: নাদেল   সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ফটোগ্রাফিক সোসাইটির নতুন কমিটি   নগরীতে পুলিশের অভিযানে ভারতীয় মদসহ গ্রেফতার ১   বাবনিয়া হাসিমপুর নিজামিয়া আলিম মাদ্রাসায় ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন   শুরুতেই সিলেটবাসীকে সুখবর দিলেন শাহজাহান কামাল   ‘শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে বাংলাদেশ ‘জঙ্গি-সন্ত্রাসমুক্ত’ রাষ্ট্র হয়েছে’   শহরতলীর তেমুখীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩   বাগবাড়ীতে শিক্ষকের বাসায় দুর্ধর্ষ চুরি   শাবিতে তিনদিনব্যাপী ‘উৎসবে অনিরুদ্ধ’ শুরু   জেলা বিএনপি নেতা ফারুকের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ   গোপালপুরে মাঠে শীতকালীন বিষমুক্ত সবজির বাম্পার ফলন   মনিপুরি পাড়ায় ৫ দিনব্যাপি মহানামযজ্ঞ উৎসব শুরু   কমরেড অমল সেনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা   আব্দুর রহমান বর্নী (রহঃ) ইছালে সওয়াব মাহফিল বাস্তবায়নে প্রস্তুতি সভা   ওসামানী স্মৃতি পরিষদ বাংলাদেশ’র শীতবস্ত্র বিতরণ   দি হলি চাইল্ড স্কুল এন্ড কলেজ’র নতুন ক্যাম্পাস উদ্বোধন

কোটিপতির স্বপ্ন পূরণে দুই বন্ধুর কৃষি খামার?

প্রকাশিত : ২০১৫-০৯-১৩ ২৩:০৬:২১

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : রোববার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ॥ আব্দুল কাইয়ূম হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কৃষ্ণরামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজে অনার্সে লেখাপড়া করছেন। আর একই উপজেলার মশাজান গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ আব্দুল কাদির রাজিব ব্যবসা করছেন। সম্পর্কে তারা দুজন বন্ধু। বন্ধুত্বের সুবাধে তারা ২০১২ সালে যৌথ পুঁজিতে কৃষ্ণরামপুর গ্রামে খামার স্থাপন করেন। বহুমুখী এ খামারে মাছ ও বারমাসি সবজি চাষ করে প্রতিবছর তাদের দুই লাখ লাভ হচ্ছে। এদের এ খামার দেখে আশপাশের গ্রামের যুবকরা বেকার না থেকে নিজ পায়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন।

কৃষ্ণরামপুর পরিদর্শনকালে ধানের জমির ফাঁকে ফাঁকে দেখা গেছে ছোট ছোট পুকুর। এসব পুকুরে মাছ চাষ হচ্ছে। আর পানি শুকিয়ে গেলে চাষ হয় বোরো ধান। দুই বন্ধুর ন্যায় এসব পুকুরে বেকার অন্যান্য যুবকরাও মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। দুই বন্ধু বাড়ির আশপাশ কোন জমি পতিত রাখছেন। কিছু জমি পেলেই পেঁপে গাছ, শাক, সবজি গাছ রোপণ করছেন।
এসময় আলাপকালে জামাল নামে এক যুবক জানায়- ইট তৈরি করার জন্য জমি থেকে মাটি ক্রয় করেছে ব্রিকস ফিল্ড কর্তৃপক্ষ। এ ফাঁকে এসব জমিতে আমরা পুকুর করে মাছ চাষ করছি। আর পানি কমলে মাছ বিক্রি করে বোরো ধান চাষ করে থাকি।

পরে দুই বন্ধু মিলে তাদের স্বপ্নের খামার ঘুরে দেখান। এসময় অবলোকিত হয়, পুকুরের মাছ, জমিতে চাষ করা টমেটো, শিম, লাউ, কলা গাছ, শাক সবজি। এসব সবজি তারা স্থানীয় বাজারে বিক্রি করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন।

আলাপকালে আব্দুল কাইয়ূম বলেন- একসময় বেকার ছিলাম। ভেবে পাচ্ছিলাম না, কি করে জীবনের চাকা পরিচালিত করবেন। পরিকল্পনা মাফিক ২০১২ সালে দুই বন্ধু মিলে (কাইয়ূমের) নিজ পতিত জমিতে খামার গড়ে তুলে এখন সফলতা এগিয়ে যাচ্ছেন। এখন নেই বেকারত্ব। এ খামারের আয়ে চলছে সংসার। চলছে লেখাপড়া। তিনি আশাবাদ করে বলেন- তাদের স্বপ্ন কোটিপতির। এ লক্ষ্যে তারা কাজ করছেন।

সৈয়দ আব্দুল কাদির রাজিব বলেন- ইচ্ছায় উপায় বের হয়। এর প্রমাণ তারা দুই বন্ধু। তারা অস্বাধ্যকে সাধণ করতে চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না। এ খামারকে আরো অনেক দূর এগিয়ে নিতে চান। তিনি কৃষি বিভাগের সহযোগীর কথা স্বীকার করে বলেন- তারা সার্বক্ষণিক তাদের খামারে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তারা দুই বন্ধু হবিগঞ্জ কৃষিবিভাগ ও যুবউন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। যার ফলে বেকাররত্ব দূর করতে সহায়ক হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপ-সহকারী কৃষি অফিসার সামছুন্নাহার বেগম বলেন- তারা দুই বন্ধু খামার গড়ে তুলে বেকারত্ব দূর করে অন্যান্য বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানে অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন।

তিনি বলেন- এ খামারের উন্নয়নে তারা নানাভাবে কাজ করছেন। বড় কথা হলো এ খামারে সবজি চাষে কোন বিষ প্রয়োগ হচ্ছে না। এখানে গাছের উর্বর শক্তি বৃদ্ধিতে কম্পোস্ট সার, গোবর ও পোকা দমনে ব্যবহার হচ্ছে সেক্স ফেরুম্যান ফাদ। এসব ব্যবহার করে তারা সফলতা পাচ্ছেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমসিকে/এসবি

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত