সর্বশেষ

  কানাইঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালিত   বৃটেন প্রবাসী বাঙালিরা বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় স্মরণ করল ভাষাশহীদদের   উলালমহল পূর্বপাড়া একতা সমিতির বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ক্রিকেট টুর্নামেন্টর পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   বিশ্বনাথে ১০ মামলার আসামী ডাকাত আবুল গ্রেপ্তার   মাতৃভাষা দিবসে বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভা   সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার : আজও চালু হয়নি পাঠাগার ও মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রহশালা   এমপি লিটন হত্যা : সুন্দরগঞ্জের সাবেক এমপি কাদের গ্রেপ্তার   শানে রিসালত মহাসম্মেলন সফলের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা কাল   আরডিআরএস বাংলাদেশ শ্রীমঙ্গল ইউনিটের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি   জেদ্দায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত   লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ   বলদী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন   দক্ষিণ এশিয়ান সাহিত্য সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন মাইস্নাম রাজেশ   বাইসাইকেলে বরযাত্রা!   ‘শিশুদের নিজেদের সংস্কৃতির শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে’   সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সভা   মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে খাদিমনগর যুব কল্যাণ পরিষদের শ্রদ্ধাঞ্জলি

কোটিপতির স্বপ্ন পূরণে দুই বন্ধুর কৃষি খামার?

প্রকাশিত : ২০১৫-০৯-১৩ ২৩:০৬:২১

নিজের চাষ করা লাউ হাতে অাব্দুল কাইয়ুম।

মো. মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ : রোববার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ॥ আব্দুল কাইয়ূম হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কৃষ্ণরামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজে অনার্সে লেখাপড়া করছেন। আর একই উপজেলার মশাজান গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ আব্দুল কাদির রাজিব ব্যবসা করছেন। সম্পর্কে তারা দুজন বন্ধু। বন্ধুত্বের সুবাধে তারা ২০১২ সালে যৌথ পুঁজিতে কৃষ্ণরামপুর গ্রামে খামার স্থাপন করেন। বহুমুখী এ খামারে মাছ ও বারমাসি সবজি চাষ করে প্রতিবছর তাদের দুই লাখ লাভ হচ্ছে। এদের এ খামার দেখে আশপাশের গ্রামের যুবকরা বেকার না থেকে নিজ পায়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন।

কৃষ্ণরামপুর পরিদর্শনকালে ধানের জমির ফাঁকে ফাঁকে দেখা গেছে ছোট ছোট পুকুর। এসব পুকুরে মাছ চাষ হচ্ছে। আর পানি শুকিয়ে গেলে চাষ হয় বোরো ধান। দুই বন্ধুর ন্যায় এসব পুকুরে বেকার অন্যান্য যুবকরাও মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। দুই বন্ধু বাড়ির আশপাশ কোন জমি পতিত রাখছেন। কিছু জমি পেলেই পেঁপে গাছ, শাক, সবজি গাছ রোপণ করছেন।
এসময় আলাপকালে জামাল নামে এক যুবক জানায়- ইট তৈরি করার জন্য জমি থেকে মাটি ক্রয় করেছে ব্রিকস ফিল্ড কর্তৃপক্ষ। এ ফাঁকে এসব জমিতে আমরা পুকুর করে মাছ চাষ করছি। আর পানি কমলে মাছ বিক্রি করে বোরো ধান চাষ করে থাকি।

পরে দুই বন্ধু মিলে তাদের স্বপ্নের খামার ঘুরে দেখান। এসময় অবলোকিত হয়, পুকুরের মাছ, জমিতে চাষ করা টমেটো, শিম, লাউ, কলা গাছ, শাক সবজি। এসব সবজি তারা স্থানীয় বাজারে বিক্রি করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন।

আলাপকালে আব্দুল কাইয়ূম বলেন- একসময় বেকার ছিলাম। ভেবে পাচ্ছিলাম না, কি করে জীবনের চাকা পরিচালিত করবেন। পরিকল্পনা মাফিক ২০১২ সালে দুই বন্ধু মিলে (কাইয়ূমের) নিজ পতিত জমিতে খামার গড়ে তুলে এখন সফলতা এগিয়ে যাচ্ছেন। এখন নেই বেকারত্ব। এ খামারের আয়ে চলছে সংসার। চলছে লেখাপড়া। তিনি আশাবাদ করে বলেন- তাদের স্বপ্ন কোটিপতির। এ লক্ষ্যে তারা কাজ করছেন।

সৈয়দ আব্দুল কাদির রাজিব বলেন- ইচ্ছায় উপায় বের হয়। এর প্রমাণ তারা দুই বন্ধু। তারা অস্বাধ্যকে সাধণ করতে চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না। এ খামারকে আরো অনেক দূর এগিয়ে নিতে চান। তিনি কৃষি বিভাগের সহযোগীর কথা স্বীকার করে বলেন- তারা সার্বক্ষণিক তাদের খামারে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তারা দুই বন্ধু হবিগঞ্জ কৃষিবিভাগ ও যুবউন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। যার ফলে বেকাররত্ব দূর করতে সহায়ক হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপ-সহকারী কৃষি অফিসার সামছুন্নাহার বেগম বলেন- তারা দুই বন্ধু খামার গড়ে তুলে বেকারত্ব দূর করে অন্যান্য বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানে অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন।

তিনি বলেন- এ খামারের উন্নয়নে তারা নানাভাবে কাজ করছেন। বড় কথা হলো এ খামারে সবজি চাষে কোন বিষ প্রয়োগ হচ্ছে না। এখানে গাছের উর্বর শক্তি বৃদ্ধিতে কম্পোস্ট সার, গোবর ও পোকা দমনে ব্যবহার হচ্ছে সেক্স ফেরুম্যান ফাদ। এসব ব্যবহার করে তারা সফলতা পাচ্ছেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমসিকে/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত