সর্বশেষ

  সাংবাদিক অমলকৃষ্ণ’র শাশুড়ির মৃতুতে বামাসাক’র শোক   মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে সৌদি আরবে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা   বাংলাদেশ এক্সট্রা মোহরার নকল নবিসদের চাকুরী স্থায়ী করার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ   শাবি থিয়েটার সাস্টের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন   লাউয়াছড়া উদ্যানে ট্রেনে কাটা পড়ে হরিণ, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে উল্লুকের মৃত্যু   জকিগঞ্জের বিরশ্রী ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস আলীর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া   সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের মাঝে জার্সি বিতরণ   মোগলগাঁও ইউনিয়নে ট্রান্সফরমার চুরির সময় জনতার হাতে চোর আটক, অতঃপর....   ধর্মপাশা মুক্ত দিবস পালিত   মাধবপুরে গোপনে জয়িতা তালিকা!   শ্রীমঙ্গলে ৪ বছরের মাথায় দুটি শাবকের জন্ম দিলো মেছো বাঘ   ভারতে বাংলাদেশী শ্রমিক হত্যায় তাহিরপুর উত্তাল: বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক বাতিল   অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সিটি ব্যাংক কর্মকর্তা আটক   ফেঞ্চুগঞ্জে ৫৬ লক্ষ টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন   মানবতাবিরোধী অপরাধ : মৌলভীবাজারের ৫ আসামির বিচার শুরু   মায়ানমারকে মালয়েশিয়ার সেনা প্রধানের হুমকি!   আজই অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন মুশফিকরা   দুর্নীতি মামলায় জেলা কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েলের জামিন   ফ্রেন্ডস পাওয়ার স্পোর্টিং ক্লাবের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী শুক্রবার   আজ মৌলভীবাজার মুক্ত দিবস

অবশেষে স্থাপিত হলো দৃষ্টিহীন সুরঞ্জনের স্বপ্নের দোকান

প্রকাশিত : ২০১৫-০৯-০২ ২২:২১:০৫

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫ : ॥ সুরঞ্জন সরকার (২৬)। সে দৃষ্টিহীনহলেও তার স্বপ্ন দোকান প্রতিষ্ঠা করা। এ দোকানের আয়ে সে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবে। কিন্তু দোকান দেওয়ার মতো টাকা তার কাছে নেই। কি করবে ভেবে পাচ্ছিল না। খুব কষ্ট করে দুই হাজার টাকা জমা করে। কিন্ত এ টাকায় দোকান ঘর নির্মাণ করা কঠিন হয়ে পড়ে। তার স্বপ্ন যেন বাস্তবে রুপ নিচ্ছে না। তারপরও হাল ছাড়েনি। মনের শক্তি দিয়ে উপায় বের করতে মরিয়া সুরঞ্জন।

এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে একদিন সে সিদ্ধান্ত নেয় হবিগঞ্জ-সিলেট জেলার সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরীর কাছে যাবে। এ সিদ্ধান্তে সে দেখা করে তার এ স্বপ্নের কথা খুলে বলে। তিনি তাকে আর্থিক অনুদান দিয়ে দোকান নির্মাণ করার কথা বলেন।বাস্তবেও তিনি তাকে ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেন। এ টাকায় সে দোকান নির্মাণ করে।
 
সরেজমিন পরিদর্শনে গেলে আলাপকালে হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার শংকরপুর গ্রামের বাসিন্দা রবি সরকারের ছেলে সুরঞ্জন সরকার এসব কথা এ প্রতিবেদকের কাছে প্রকাশ করে। 

বর্তমানে তার দোকান থেকে গ্রামবাসী মুদিমাল ক্রয় করে নিচ্ছে। পুরোদমে চলছে তার দোকান। আশ্চার্য্য সে চোখে না দেখলেও মনের শক্তি দিয়ে মুদিমাল পাল্লায় ওজন করে বিক্রি করছে। পণ্যমূল্য নেয়ার বেলা সে বিশ্বাস করে লোকজনকে। তার বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে পণ্য ক্রয় করে লোকেরা হিসাব করে টাকা দিয়ে থাকেন।

দোকান দেয়ায় অবশেষে তার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়েছে। নিজ বাড়ির সামনে স্থাপিত দোকানে বসে সে ব্যবসা করে যাচ্ছে।  এতে তার আনন্দের শেষ নেই। এ কথা লিখে শেষ করার নয়। তার আনন্দ উপভোগ করতে ঘটনাস্থলে আসতে হবে। তাতে অনুভব করা যাবে।

দোকানে ডাল ক্রয় করতে আসা সবুজ মিয়া বলেন- সুরঞ্জন সৎভাবে ব্যবসা করছে। তার কাছ থেকে সূলভমূল্যে পণ্য ক্রয় করে নিতে পারছি। আমরাও পণ্য ক্রয় করে নিয়ে তার প্রাপ্য মূল্য পরিশোধ করে দিচ্ছি।

আলাপকালে সুরঞ্জন জানায়, তার পরিবারে ভাই,বোন, মা, স্ত্রী, সন্তান রয়েছে। সে এক সময় ঘালমুড়ি বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেছে। দৃষ্টিহীন হওয়ায় তার পক্ষে ঘুরেফিরে ঝালমুড়ি বিক্রি করা কঠিন ছিল। তাই সে স্বপ্ন দেখেছিল বসে ব্যবসা করার। আর বাস্তবেই তার স্বপ্ন পূরণ হলো।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/প্রতিনিধি/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত