সর্বশেষ

  মৌলভীবাজারে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আটক ৩   সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সাত্তার আর নেই: এমপি মানিকের শোক   ছাতকে আওয়ামী লীগ নেত্রীর মাতৃ বিয়োগ : এমপিসহ বিভিন্ন মহলের শোক   বিশ্বনাথের খেলাফত মজলিসের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন   বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১   শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আজ দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ :শফিক চৌধুরী   সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু   মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে ৩ ভাইয়ের মৃত্যু   সিলেটে ছাত্রলীগ কর্মী মিন্নতের কব্জিকর্তন মামলার প্রধান আসামী শাহীনসহ গ্রেফতার ২   ছাতকে সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের   কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি-লিট ডিগ্রি পেলেন শেখ হাসিনা   ছাতকে পৃথক সংঘর্ষে আহত ৫০, গ্রেফতার ১   জকিগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার   এতিমদের নিয়ে ক্যাডেট কলেজ ক্লাব সিলেটের ইফতার মাহফিল   শাবিতে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ওয়েবসাইট উদ্বোধন   শাবির স্বপ্নোত্থানের ঈদবস্ত্র বিতরণ   সেই কলকাতাকে হারিয়ে ফাইনালে সাকিবদের হায়দরাবাদ   ‘আদর্শ সমাজ গঠনে রমজানের শিক্ষাকে কাজে লাগাতে হবে’   সাচনা বাজারে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানপাঠ পরিদর্শনে রঞ্জিত সরকার   জামালগঞ্জে আগুনে পুড়ে ছাই ৯ দোকান: দেড় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

এমসি কলেজ ছাত্রাবাস: নেই অাগুনে পোড়া গন্ধ, আছে ফুলের ঘ্রাণ

প্রকাশিত : ২০১৮-০১-২৩ ০০:২০:১০

সোহেল আহমদ, এমসি কলেজ: মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ ॥ শতবর্ষী মুরারিচাঁদ কলেজের ঐতিহ্যবাহী ছাত্রাবাসের অবস্থান সিলেট নগরীর বালুচরে। ১৯২০ সালে প্রায় ৬০০ শতক জায়গার ওপর নির্মিত হয় আসাম প্যাটার্নের সেমি পাকা আদলের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ ছাত্রাবাস।

ছাত্রলীগ-শিবির দ্বন্ধ আর অস্থির ছাত্ররাজনীতির উত্থাপে ২০১২ সালে ভস্মীভূত হয় ঐতিহ্যবাহী ছাত্রাবাসটির ৪২ টি কক্ষ। সংস্কারের পর ২০১৬ সালে কলেজ কর্তৃপক্ষের শিক্ষার্থী উঠানোর বিজ্ঞপ্তিতে তেমন সাড়া মেলেনি, যদিও আগুনের পোড়া গন্ধের স্মৃতি আর স্নায়ুচাপ নিয়ে আবাসিক শিক্ষার্থীরা উঠে চার তলা বিশিষ্ট নতুন ভবনসহ সাতটি ব্লকের ছাত্রাবাসে।

২০১৭ সালের জুলাইয়ে আবারও কলেজ ছাত্রলীগের দু'গ্রুপের দ্বন্ধে ভাঙচুর হয় ছাত্রাবাসটির তিনটি ব্লকের ৩৯টি কক্ষ। এসময় ভাঙচুরে ক্ষতিগ্রস্থ হয় ছাত্রাবাসের ৫নং ব্লকের ১৪টি রুমের দরজা-জানালা। শিক্ষার্থীদের দাবীতে কয়েকমাস পরেই টিন, শীট দিয়ে সংস্কার করা হয় ব্লকটির ভাঙা দরজা-জানালা।

অাঘাতে অাঘাতে বিধ্বস্ত হওয়া ব্লকটির শিক্ষার্থীদের প্রচেষ্টায় আগুনে পোড়ার গন্ধ এখন আর না মিললেও পাওয়া যায় ফুলের ঘ্রাণ।

সরেজমিনে ছাত্রাবাস ঘুরে দেখা যায়- ছাত্রাবাসের পঞ্চম ব্লকের সামনে করা বাগানে গোলাপ, সূর্যমূখী, ডালিয়া, বেলী, গাঁধা প্রভৃতিসহ বাহারি রঙের ফুল। পাশাপাশি সবজি হিসেবে পেঁপে, টমেটো আর লালশাক সৌন্দর্য বৃদ্ধি করেছে ফুল বাগানের, সাথে সাথে পুরো ছাত্রাবাসের।

ফুল বাগানের পরিচর্যার জন্য বাগানেই সংগ্রহ করে রাখা হয়েছে গোবরের স্তুপ। ব্লকটির শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গেলো নভেম্বরে শুরু করা ফুল বাগানের পরিচর্যা কাজ প্রতিদিন সকালে মিলেমিশে করেন ব্লকটির শিক্ষার্থীরা। ফুল বাগান তৈরীতে অর্থায়ন ও সহযোগীতা করেছেন ছাত্রাবাসের তত্বাবধায়ক জামাল উদ্দিন।

ছাত্রাবাসের দুর্বিষহ স্মৃতি মুছতে ফুলের বাগান করেছে ৩নং ব্লকের শিক্ষার্থীরাও। ঘুরে দেখা মিললো বাহারি রঙের ফুল ফুঁটেছে এ বাগানেও।

৫নং ব্লকের আবাসিক ও মাস্টার্স শেষ পর্ব  শিক্ষার্থী মতিউর রহমান বলেন- 'দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার ফলে ছাত্রাবাস তার জৌলুস হারিয়ে ফেলেছিলো। আমাদের ফুল বাগান সেখান থেকে উত্তরণের একটি পদক্ষেপ। ছাত্রাবাসটি বন্ধ থাকাকালীন সময়ে জন মানবশূন্য ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছিলো, আমরা পঞ্চম ছাত্রাবাসের শিক্ষার্থীরা এর থেকে উত্তরণে ফুল বাগান করার মাধ্যমে সেটির শুরু করতে পেরেছি।'

এমসি কলেজ ছাত্রাবাস তত্বাবধায়ক জামাল উদ্দিন বলেন- 'ছেলেরা ফুল বাগান করতে আগ্রহী ছিল। তাদের উদ্যোগী মনোভাব, পরিশ্রম দিয়ে সার্বক্ষনিক বাগানের পরিচর্যা করায় অাজ ফুল বাগানের এ সৌন্দর্য।'

শিক্ষার্থীদের এ কাজে সহযোগিতার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন- সবদিক দিয়েই কাজটি ভালো, কোনো ধরনের ক্ষতি নেই। ছেলেরা ফুল বাগানের পরিচর্যা করবে, আর এমনিভাবে তাদের মন মানসিকতাও সুন্দর হবে।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এসএ/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত