সর্বশেষ

  রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকারের দাবীতে ছাত্র মজলিস সিলেট মহানগরীর বিক্ষোভ   'শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের যৌথ প্রচেষ্ঠায় মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা দরকার'   রিয়ালকে জয়ে ফেরালেন নবীন সেবায়োস   কমেছে চালের দাম, কমবে আরও   লন্ডনে আবারো এসিড হামলা, আহত ৬   তথ্য-প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে : ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল   মহিউদ্দিন শীরু’র ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী ২৫ সেপ্টেম্বর   ধর্ম যার যার, উৎসব সবার : কামরান   ওসমানীনগরে নিয়মিত বসে জুয়ার আসর, প্রশাসন নিরব   জগন্নাথপুরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু   ফেঞ্চুগঞ্জে সড়ক মেরামতের দাবিতে আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা   মৌলভীবাজারে ‘শিক্ষা দিবস’ পালিত   হত্যা মামলার আসামী টিটু ও সুলেমান এখনও অধরা   ফেঞ্চুগঞ্জে পরিবহণ শ্রমিক নেতাদের সাথে প্রশাসনের সভা   রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত   দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে সিলেট মহানগর পুলিশের গণবিজ্ঞপ্তি   নগরী থেকে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিখোঁজ   বর্তমান সরকারের সময়ে শিক্ষাখাতে ব্যাপক সাফল্য অর্জিত হয়েছে : এমপি আবু জাহির   সিলেটে ছিনতাইকারী বাবলু ও শরীফ আটক   সিলেটস্থ টাঙ্গাইল জেলা সমিতির আহবায়ক কমিটি গঠন

এবারের অর্থবছরে প্রথমবারের মত আসছে শিশু-বাজেট

প্রকাশিত : ২০১৫-০৫-২১ ১৫:৩৮:২৪

উত্তরপূর্ব ডেস্ক:
আসন্ন ২০১৫-১৬ বাজেটে প্রথমবারের মতো এবার আসছে শিশু বাজেট। শিশুদের কল্যাণ ও অধিকার সুরক্ষায় এ উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

বুধবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘গত বছর বলেছিলাম, এ বছর শিশুদের জন্য বাজেট ঘোষণা করা হবে। তাই করছি। তবে প্রথমবার বলে তেমন ভালো আর বড় হবে না।’
এর আগে অর্থমন্ত্রী শিশু অধিকার সম্পর্কিত সংসদীয় ককাসের সঙ্গে এক প্রাক-বাজেট বৈঠক করেন। ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া সংসদীয় ককাস প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন।
ককাস প্রাথমিকভাবে ৫টি মন্ত্রণালয়কে শিশু বাজেটের আওতায় আনার সুপারিশ করছে। এগুলো হচ্ছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।
প্রতিবন্ধী শিশুরা যাতে করে পড়তে পারে সেজন্য প্রতিটি স্কুলের ৫ থেকে ১০ শতাংশ শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান, কিশোরী-বয়ঃসন্ধি ও স্বামী পরিত্যক্তদের বিশেষ সুরক্ষা প্রদানের সুপারিশ করেন উপস্থিত সংসদ সদস্যরা।
শিশুদের কল্যাণে গত বছর বাজেটে ৫০ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল উল্লেখ করে তারা বলেন, ‘শিশুদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ কীভাবে ব্যয় হচ্ছে সেটা মনিটরিং করা দরকার।’
এ প্রসঙ্গে একটি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে শিশুদের সব বরাদ্দ দেয়া হলে ব্যয়ের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা বাড়বে বলে মত ব্যক্ত করা হয়।
সংসদীয় ককাস-এর এসব সুপারিশের জবাবে শিশুদের স্বাস্থ্য অধিকার নিশ্চিত করা, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা যাতে করে সাধারণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়তে পারে সেজন্য ১০ শতাংশ শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান ও শিশুদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয়ে মনিটরিং-এর বিষয়ে সায় দেন অর্থমন্ত্রী।

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত