সর্বশেষ

  শ্রমিক সংগঠনে বিভক্তি: এবার শ্রমিকলীগ নেতা এজাজকে বহিষ্কারের দাবি   চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ড. মোমেন   ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাচন: ভোটারদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি কী রাখতে পারবেন প্রার্থীরা?   আমেরিকা আমাদের ট্যাক্সেও চলে : শেখ হাসিনা   ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ বিভাগের যাত্রা শুরু   স্কুলছাত্রীকে ‘দলবেঁধে ধর্ষণ’ : আটক ১   সিলেট-জকিগঞ্জ সড়ক সংস্কারের দাবিতে নিসচা’র মানববন্ধন   ধর্মপাশায় তলিয়ে গেছে ২৫০ একর জমির ফসল   হজরত রকীব শাহ (রহ.)-এর ৫১তম বার্ষিক ওরস শরিফ ২৮ ফেব্রুয়ারি শুরু   তাহিরপুরে ব্র্যাকের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত   খুব সস্তা ছিল তাই গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে : সিলেটে অর্থমন্ত্রী   ওসমানীনগরে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাত   কক্সবাজারে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫   বাঁধ নির্মাণ হয়নি : হুমকির মুখে সমসার হাওর   ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা মিরাজ   বায়োস্কোপের নেশায় আমায় ছাড়ে না...   যুক্তরাজ্যে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের আন্দোলনে নব্বই শতাংশ লোকই ছিলেন সিলেটের   সিলেট ফিরে বদরুলের শাস্তি চাইলেন খাদিজা   সিলেটের উন্নয়নে সহায়তা দেবে ভারত   শাহ আবদুল করিম লোক উৎসব ৩ মার্চ

পিঠাপুলি উৎসবে মাতলো হেলসিংকি

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২৩ ০০:২৯:৫৯

জামান সরকার, ফিনল্যান্ড : সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৫ ॥ প্রবাসজীবনেও বাঙালি সংস্কৃতির ছোঁয়া এনে দিতে হেলসিংকিতে পিঠাপুলি উৎসবে মাতলো ফিনল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশীরা। প্রবাসজীবনেও দেশীয় স্বাদ আর ঐতিহ্যের পিঠা মুখে তুলতে ভোললো না বাংলাদেশিরা।

শীতের সাথে পিঠার সম্পর্ক নিবিড়। বাংলাদেশের সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ পিঠা। এই উৎসবে-আনন্দে মিশে গেলো নানা নামের রকমারি পিঠা। প্রবাসে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মের কাছে এই পিঠাপুলি উৎসব বাংলার গ্রামীণ সংস্কৃতির কথা মনে করিয়ে দেবে।

ফিনল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশি মহিলাদের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘অনন্যা’ বাঙালির আদি সংস্কৃতির অঙ্গ পিঠাপুলির এ উৎসবের আয়োজক।

সৈয়দা জেসমীন আরা বীথির সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ও আবেরা সুলতানা ন্যান্সীর সঞ্চালনায় (২১ নভেম্বর) শনিবার দুপুর ১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত একটানা খোলা ছিল উৎসবের আঙিনাটি। সঙ্গে ছিল কচিকণ্ঠের গানে গানে মাতোয়ারা পরিবেশন।

হেলসিংকির এই বর্ণিল পিঠা উৎসবে প্রধান অতিথির আসন অংলকৃত করেন ফিনল্যান্ডে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত মিঃ অশোক কুমার শর্মা।

অতিথিদের মধ্যে আরো ছিলেন, ফিনল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের সরকারের অনারারী কনস্যুল জেনারেল মিঃ হ্যারী ব্লেসার, স্থানীয় সিটি কাউন্সিলর মিঃ রনবীর সদহী, পরিবেশ ও মানবাধিকার বিশেষজ্ঞ মিঃ কাই লাকশনেন প্রমুখ।

উৎসবে- আলো, পলি, হাসনা ও বীথি ভাবীদের পসরায় সাজানো ছিল বাংলাদেশের প্রচলিত প্রায় ৩০ রকমের পিঠা। এর মধ্যে দুধ চিতই পিঠা, ভাপা পিঠা, গোলাপ পিঠা, মুগ পাক্কন, পাটিসাপ্টা, তেলের পিঠা, মাংসের পিঠা, ডালের পিঠা, ঝিলমিল পিঠা, সাগুর পিঠা, ফুল পিঠা, তালের পিঠা, মেরা পিঠা, বিবিখানা পিঠা, ভাজা কলই পিঠা, ডিম রোল পিঠা, ছিটরুটি পিঠা, নিমকি পিঠা, চিড়া পিঠা, ভাপ কলই পিঠা, ভর্তা চিতি পিঠা, ডিম ছিট রুটি, ডিম মেরা পিঠা, ছাচের পিঠা, প্যান কেক, পুডিং, দই বড়া, চালের রুটি, দই পিঠা, সেমাই পিঠা, সরু পিঠা, গরুর কারি, আমলকি আচারসহ আরও বাহারি নামের পিঠা।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/জেএস/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত