সর্বশেষ

  যাদুকাটা নদীর তীরে পণতীর্থ বারুণী স্নান আজ   ধন্যবাদ ১৭ পদাতিক ডিভিশনকে : আতিয়া মহলের বাসিন্দারা উদ্ধার   সিলেটের জঙ্গি আস্তানায় অপারেশন ‘স্প্রিং রেইন’ চলছে   সিলেটে জঙ্গি আস্তানায় প্যারা-কমান্ডোর অভিযান শুরু   সিলেটে জঙ্গি আস্তানা : ঘটনাস্থলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম   ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে সদর উপজেলা যুবলীগের বিক্ষোভ   আজ জাতীয় গণহত্যা দিবস   আতিয়া মহলের বাসিন্দার প্রশ্ন : আমরা কি জিম্মি?   পুলিশ বক্সে ঢোকার চেষ্টা করেছিল আত্মঘাতী যুবক!   টুকের বাজারে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন   কী আছে জঙ্গি আস্তানার আতিয়া মহলের জিম্মিদের ভাগ্যে?   ঢাকায় বিমানবন্দরের সামনে আত্মঘাতী হামলায় এক জঙ্গি নিহত   আতিয়া মহলে অভিযান এসেস করতে ঘটনাস্থলে প্যারা-কমান্ডো দল   আতিয়া মহলে জিম্মি আছেন দু’শতাধিক মানুষ   জঙ্গি আস্তানায় অভিযান: উৎকণ্ঠায় অপেক্ষা উৎসুক জনতার   অশ্রুসিক্ত নয়নে স্বামী মহসীন আলীর স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করলেন স্ত্রী সায়রা মহসীন   জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে সোয়াত, অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশ   দক্ষিণ সুরমায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘিরে ফেলেছে সোয়াত: যে কোন সময় অভিযান   সিলেট পৌঁছেছে সোয়াত টিম : চলছে মূল অভিযানের প্রস্তুতি   কমলগঞ্জে গুরু নীলেশ্বর মুখার্জী স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

দেশটাকে সামনে রেখে সকলে মিলে কাজ করতে হবে : ড. এ কে আব্দুল মোমেন

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-২০ ১২:৫৭:২৭

লন্ডন প্রতিনিধি : শুক্রবার, ২০ নভেম্বর ২০১৫ ॥ এক অসাধারণ সফল কুটনীতিকের নাম ড. এ কে আব্দুল মোমেন। সদ্য বিদায়ী জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি যিনি তার দায়িত্ব পালনে অনেকগুলো যুগান্তকারী পদক্ষেপের কারণে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। বরেণ্য শিক্ষাবিদ, অর্থনীতিবিদ আজীবন শিক্ষকতা পেশায় আকড়ে থাকা ড. মোমেনকে কুটনৈতিক আঙ্গিনায় নিয়ে আসেন বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি সেই দায়িত্ব পালনে কতটা সফল তার সাক্ষী জাতিসংঘ সদর দপ্তর, আর যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংলাদেশের কয়েক লক্ষ মানুষ।

২০১৩ সালের নভেম্বরে ড. মোমেনের সহপাঠী ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমারসের সাবেক প্রেসিডন্ট অধ্যাপক শাহাগীর বক্ত ফারুকের নেতৃত্বে ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের  ডেলিগেশনে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে গিয়ে ড. মোমেনের কেরেসমেটিক ব্যক্তিত্ব ও নেতৃত্বের সাথে পরিচিত হন। তিনি তাঁর সময়ে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বাংলাদেশ মিশনের জন্য স্থায়ী ভবন এবং রাষ্ট্রদূতের বাস ভবন কিনে নেন। এমডিজি এবং পিস কিপিংয়ে বাংলাদেশের জন্য তাঁর অর্জন ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। আর তার যে কাজটির প্রশংসা না করলেই নয় তা হলো জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে যাঁরা প্রবাসী তাঁদের মৃত্যুতে মিশনগুলোর উদ্যোগে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ও রাষ্টীয় মর্যাদায় দাফনের বিষয়টি তিনিই সূচনা করেছেন আমেরিকা থেকে।

৬ বছর সফল দায়িত্ব পালন শেষে তিনি সেখান থেকে সদ্য অবসরপ্রাপ্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর আহবানে দেশে ফিরেছেন গতকাল। যাত্রাবিরতিতে তিনি নিজের স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও প্রবাসীদের সাথে মিলিত হতে লন্ডনে অবস্থান করেছিলেন সপরিবারে।

তাঁর সম্মানে পূর্ব লন্ডনের হোয়াইট হাউসে নাগরিক সংবর্ধনা। সেখানে কয়েকশ’ প্রবাসীর উপস্থিতি ছিল  লক্ষনীয়।

ব্রিটেনের শীর্ষ ব্যবসায়ীদের সংগঠন ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ গত ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার হাউজ অব লর্ডসে তাঁর সম্মানে এক সংবর্ধনা সভার আয়োজন করা হয়। ব্যারনেস পলা উদ্দিনের পরিচালায় চেম্বারের প্রসিডেন্ট মাতাব চৌধুরী সভাপতিত্বে ড. মোমেনের কর্মময় জীবনের উপর আলোকপাত করে বক্তব্য রাখেন- চেম্বারের ডাইরেক্টর বশির আহমদ, ডাইরেক্টর মাহতাব মিয়া, ডাইরেক্টর এন্ড  এক্স প্রসিডেন্ট শাহাগীর বক্ত ফারুক, ফাইন্যান্স ডাইরেক্টর সাইদুর রহমান রেনু, ডাইরেক্টর সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম, অথিতিদের মধ্যে ড. আলালউদ্দিন আহমদ, ড. মোমেনের সহধর্মিনী সেলিনা মোমেন, বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন ও মিসেস হাফছা ইসলাম।

বক্তারা ড. মোমেনকে একটি বড় রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব দিয়ে বাংলাদেশের জন্য আরো বড় পরিসরে কাজ করার সুযোগ দানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানান।
ড. মোমেন তাঁর সম্মানে হাউজ অব লর্ডসে এই আয়োজনের জন্য চেম্বারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন- “আমরা যে রাজনীতিই করিনা কেন, দেশটাকে সামনে রেখে সকলে মিলে কাজ করতে হবে।”  

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এমসি/এসবি

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত