সর্বশেষ

  অনাথ ও অটিস্টিক শিশুরা আঁকলো এক কিলোমিটার আল্পনা   মৌলভীবাজারে আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পলিয়ে যাওয়া সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার   দিরাইয়ে হাওর রক্ষা বাঁধের কাজে গাফিলতি: ৭ পিআইসিকে শোকজ   ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ৩   কানাইঘাট গাছবাড়ীতে শতাধিক গাছ কেটে ফেলার অভিযোগ   সুনামগঞ্জ পৌরসভার উপনির্বাচন ২৯ মার্চ: মেয়র পদে আলোচনায় ৮ প্রার্থী   দক্ষিণ সুরমা কলেজে দু’দিন ব্যপী বইমেলা ও পিঠা উৎসবের উদ্বোধন   বিএনপির বড় অংশ আসছে জাতীয় পার্টিতে : এরশাদ   তাহিরপুরে শনির হাওরে বাধের কাজ পরিদর্শন করলেন রঞ্জিত সরকার   প্যারিসে বেস্ট বিজনেসম্যান এওয়ার্ড লাভ পেলেন ফেঞ্চুগঞ্জের লাভলু   ইস্পা হত্যার বিচারের দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন   বিশ্বনাথে বখাটে সুমনের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন   তালামীযে ইসলামিয়ার ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সম্মেলন সম্পন্ন   প্রবাসী শ্রমিকদের উপর আরোপকৃত লেভি বাতিলের আবেদন   বিশ্বনাথে প্রবাসীর উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা   স্মারকলিপি প্রদানের জের ধরে হামলা, অতঃপর মামলা   সম্মিলিত নাট্য পরিষদের একুশের প্রভাতফেরি ভোর ৫.৪৫ মিনিটে   কেউ ভোটে না এলে করার কিছু নেই : হাসিনা   ফোর জি যুগে বাংলাদেশ   এবার নারী ‘পীর’কে বিয়ে করলেন ইমরান খান

অ্যালপাসো কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন আরো ১২ বাংলাদেশী

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৮ ২২:০৮:৩৯

নিউইয়র্ক থেকে এনা : বুধবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৫ ॥ টেক্সাসের অ্যালপাসোর ডিটেনশন সেন্টার থেকে আরো ৯ জন বাংলাদেশী মুক্তি পেয়েছেন। গত সপ্তাহে তাদের মুক্তি দেয়া হয়। গত ১৭ নভেম্বর ১ জন এবং ১৮ নভেম্বর আরো ২ জন বাংলাদেশীকে মুক্তি দেয়া হয়। তাদের প্রয়োজনী কাজপত্রের কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। টেক্সাসের অ্যালপাসো কারাগারে ৪৮ জন বাংলাদেশী মুক্তির জন্য অনশনে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ওয়াশিংটন বাংলাদেশ দূতাবাসের এক শীর্ষ কর্মকর্তা তাদের অনশন ভঙ্গ করান। শর্ত থাকে তাদের পর্যায়ক্রমে প্যারোলে মুক্তি দেয়া হবে।

ড্রামের কর্মকর্তরা কাজী ফৌজিয়া এনাকে জানান- অনশন শেষে প্রথমেই অক্টোবর মাসে ১৬ জন বাংলাদেশীকে মুক্তি দেয়া হয়। এরপর বেশ কিছুদিন কাউকে মুক্তি দেয়া হয়নি। নভেম্বর মাসে দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রথমে ৯ জনকে মুক্তি দেয়া হয়, ১৭ নভেম্বর মুক্তি দেয়া ১ জনকে এবং ১৮ নভেম্বর মুক্তি দেয়া হবে আরো ২ জনকে। সবমিলিয়ে ৪২ জন বাংলাদেশীর মধ্যে ২৮ জন বাংলাদেশীকে মুক্তি দেয়া হলো। এই মুক্তি প্রক্রিয়ায় কাজ করছে ড্রামসহ আরো কয়েকটি মূলধারার মানবাধিকার সংগঠন।

কাজী ফৌজিয়া আরো জানান- যারা মুক্তি পেয়েছেন তাদের প্রায় সকলেই নিউইয়র্ক এসে পৌঁছেছেন। গত সপ্তাহে যারা মুক্তি পেয়েছেন তাদের মধ্যে ৯ জন ইতিমধ্যেই নিউইয়র্ক এসেছেন। এদের টিকেটের টিকেট দিচ্ছেন মুক্তিপ্রাপ্তদের আত্মীয়-স্বজনরা। আর যাদের আত্মীয়-স্বজন পাওয়া যাচ্ছে না তাদের টিকেটের ব্যবস্থা করছেন বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম হাওলাদার ও কাজী ফৌজিয়া। তারা নিজেরা সহযোগিতা করছেন এবং মানুষে কাছ থেকে অর্থ নিচ্ছেন।

মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশীরা হচ্ছেন- দেলোয়ার হোসেন, এমডি আজগর আলী, কামরান আহমেদ, আব্দুল মান্নান, নূরুল আলম, সাব্বির আহমেদ, মোহাম্মদ নাজিম আহমেদ, ধনু মিয়া, আঙ্গসু দেব।

এছাড়াও মাসুদ রহমানকে ক্যালিফোর্নিয়া, আলআমিন হোসাইন, আমিনুল ইসলাম ও আবুল কাশেমকে মায়ামি ডিটেনশন সেন্টারে স্থানান্তির করা হয়েছে।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/এ/টিআই-আর

সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত