সর্বশেষ

  নব্য জেএমবি’র সমন্বয়ক জঙ্গি মুসা সিলেটের আতিয়া মহলে!   আতিয়া মহলের পাশের ভবন থেকে নারী ও শিশুসহ উদ্ধার ৬   শিববাড়িতে আবারও সকাল থেকে গুলি-বিস্ফোরণের শব্দ   মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত   বিবিআইএস’র স্বাধীনতা দিবস উদযাপন ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ   আতঙ্ক-উৎকণ্ঠা আর দিনভর পটাস-পটাস, ধিড়িম-ধাড়িম   রশিদিয়া দাখিল মাদরাসায় স্বাধীনতা দিবস উদযাপন   শাবিতে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন   আবাহনী ক্রীড়া চক্রের সভাপতিকে সংবর্ধনা   পশ্চিম সদর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন   শহরতলীর ‘দি সান মুন মেরিট হোম’র উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন   স্বাধীনতার পরাজিত শত্রুরা দেশকে নিয়ে এখনো গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত: শফিকুর রহমান চৌধুরী   শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট টিম বাসে হামলায় জড়িত জঙ্গি নিহত   মাধবপুরে ব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার   স্বাধীনতা দিবসে মহানগর আওয়ামী লীগের পুষ্পস্তবক অর্পণ   আতিয়া মহলে ‘অপারেশন টোয়াইলাইট’: ২ জঙ্গি নিহত, অভিযান চলবে   মাধবপুরে নানা আয়োজনে স্বাধীনতা দিবস পালন   মহান স্বাধীনতা দিবসে কমলগঞ্জে ছাত্রলীগের পুস্পস্তবক অর্পন   মহান স্বাধীনতা দিবসে প্লাটুন টুয়েলভ এর শ্রদ্ধাঞ্জলী

‘নিরাপদেই’ আছেন প্যারিসে বাংলাদেশিরা

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৪ ২৩:২৪:৩৭

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : শনিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৫ ॥ প্যারিস শহরের কয়েকটি স্থানে বোমা হামলা ও বন্দুকধারীদের গুলিতে প্রায় দেড় শতাধিক নিহত হয়েছেন, আহতের সংখ্যা আরো বেশি। তবে এখনো কোনো বাংলাদেশির হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্যারিসে বসবাসরত আব্দুল আজিজ নামে এক প্রবাসী ফেসবুকে বাংলামেইলকে জানান, এখানে বেশিরভাগ বাংলাদেশি রেস্টুরেন্টে কাজ করেন। তাদের গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করতে হয়। বোমা হামলার ঘটনায় সবাই আতঙ্কিত হলেও নিরাপদেই আছেন। তবে হামলার কারণে অনেকেই বাসায় ফিরতে পারেননি। কর্মস্থলেই রয়ে গেছেন।

এ হামলার পর ফ্রান্সে বসবাসরত মুসলিমদের হয়রানি করা হতে পারে বলেও আশঙ্কা করেন আব্দুল আজিজ। তিনি জানান, হামলাটি মুসলিম জঙ্গিরাই ঘটিয়েছে বলে সবার ধারণা। তাই এরপর মুসলিমদের চলাফেরায় বেশ কঠিন হবে। নিরাপত্তা জোরদারের কারণে জিজ্ঞাসাবাদ, তল্লাশি করাও হতে পারে।

শুক্রবার রাতে প্যারিসের রেস্টুরেন্ট, বার এবং  কনসার্টসহ কমপক্ষে ছয়টি স্থানে বন্দুক ও বোমা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত বাটাক্লঁ কনসার্ট হলেই কমপক্ষে ১১২ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ওই কনসার্টে হামলার আগে শতাধিক মানুষকে জিম্মি করেছিল বন্দুকধারীরা। পরে পুলিশি অভিযানে জিম্মি নাটকের অবসান ঘটে। এসময় চার হামলাকারীও নিহত হয়।

অন্য হামলাগুলো হয়েছে স্তাদে দে ফ্রান্স এবং কয়েকটি বার ও রেস্তোরাঁয়। এর মধ্যে স্টেডিয়ামের কাছের ঘটনাটি আত্মঘাতি বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে এ হামলার জন্য ইসলামি সন্ত্রাসীদের সন্দেহ করা হচ্ছে। ফরাসি রেডিওতে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, বাটাক্লঁ কনসার্টে বন্দুকধারীরা ‘আল্লাহু আকবার’ বলে  হামলা চালিয়েছিল। ওই হামলায় একে রাইফেল ব্যবহার করা হয়েছিল যা সাধারণত জঙ্গিরাই ব্যবহার করে থাকে।

হামলার পর গোটা দেশ জুড়ে সতর্ক অবস্থা জারি করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে হাজার হাজার সেনা পুলিশ। প্যারিসের বাসিন্দাদের ঘরে থাকারও অনুরোধ জানান হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামসহ বিশ্বের বিভিন্ন নেতারা এ হামলার ব্যাপক নিন্দা করেছেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত