সর্বশেষ

  একটি শিশুকে ঘিরে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও উৎসুক জনতা   বাবুল আখতার স্মরণে আরামবাগ ব্লক আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল   ‘অভিযাত্রী’ শায়েস্তাগঞ্জ শাখার আত্মপ্রকাশে শিশু-কিশোরদের মাঝে শিক্ষাউপকরণ বিতরণ   প্রবাসীরা অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন   মলাটের যাত্রা শুরু   আজ সুনামগঞ্জে দু’দিনের সফরে আসছেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম.এ মান্নান   শিক্ষকদের ন্যায্য দাবি আওয়ামী লীগ সরকার পূরণ করবে : কামরান   ছাতক পৌরসভায় ২৬ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে   দীর্ঘ ১৫ বছর পর আসছে ওসমানীনগর উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি   মেয়াদ পূর্ণ করে বিদায়, উপাচার্যবিহীন শাবি   ‘সরকারের পাশাপাশি, বিত্তশালী ও প্রবাসীরা বন্যার্তদের পাশে দাড়িয়ে মহত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন’   দক্ষিণ সুরমায় ছাত্রলীগ নেতা ‘ফাহিম স্মৃতি পরিষদ’র অনুষ্ঠানে গোলাগুলি: আহত ২   সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনসম্মুখে তুলে ধরতে হবে: আশফাক আহমদ   সরকার হাওর-দুর্যোগ মোকাবেলা ও কৃষকের স্বপ্ন বাস্তবায়নে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ : ড. জয়া সেনগুপ্তা   সিলেট জেলা শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে অসুস্থ শফিউলকে অনুদান প্রদান   ফেঞ্চুগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসনে মানিকোনা উন্নয়ন সংস্থা ইউকে’র অনুদান প্রদান   চুনারুঘাটে সাপের কামড়ে যুবতীর মৃত্যু   বালাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি গঠন   মাধবপুরে জাপার উপজেলা ও পৌর কমিটি অনুমোদন   সিলেটে ‘দ্যা সামিট অফ মেলোডি’ কনসার্টে মঞ্চ মাতালো অরফিয়াস ও ব্যান্ড 'লালন'

‘নিরাপদেই’ আছেন প্যারিসে বাংলাদেশিরা

প্রকাশিত : ২০১৫-১১-১৪ ২৩:২৪:৩৭

উত্তরপূর্ব ডেস্ক : শনিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৫ ॥ প্যারিস শহরের কয়েকটি স্থানে বোমা হামলা ও বন্দুকধারীদের গুলিতে প্রায় দেড় শতাধিক নিহত হয়েছেন, আহতের সংখ্যা আরো বেশি। তবে এখনো কোনো বাংলাদেশির হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্যারিসে বসবাসরত আব্দুল আজিজ নামে এক প্রবাসী ফেসবুকে বাংলামেইলকে জানান, এখানে বেশিরভাগ বাংলাদেশি রেস্টুরেন্টে কাজ করেন। তাদের গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করতে হয়। বোমা হামলার ঘটনায় সবাই আতঙ্কিত হলেও নিরাপদেই আছেন। তবে হামলার কারণে অনেকেই বাসায় ফিরতে পারেননি। কর্মস্থলেই রয়ে গেছেন।

এ হামলার পর ফ্রান্সে বসবাসরত মুসলিমদের হয়রানি করা হতে পারে বলেও আশঙ্কা করেন আব্দুল আজিজ। তিনি জানান, হামলাটি মুসলিম জঙ্গিরাই ঘটিয়েছে বলে সবার ধারণা। তাই এরপর মুসলিমদের চলাফেরায় বেশ কঠিন হবে। নিরাপত্তা জোরদারের কারণে জিজ্ঞাসাবাদ, তল্লাশি করাও হতে পারে।

শুক্রবার রাতে প্যারিসের রেস্টুরেন্ট, বার এবং  কনসার্টসহ কমপক্ষে ছয়টি স্থানে বন্দুক ও বোমা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত বাটাক্লঁ কনসার্ট হলেই কমপক্ষে ১১২ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ওই কনসার্টে হামলার আগে শতাধিক মানুষকে জিম্মি করেছিল বন্দুকধারীরা। পরে পুলিশি অভিযানে জিম্মি নাটকের অবসান ঘটে। এসময় চার হামলাকারীও নিহত হয়।

অন্য হামলাগুলো হয়েছে স্তাদে দে ফ্রান্স এবং কয়েকটি বার ও রেস্তোরাঁয়। এর মধ্যে স্টেডিয়ামের কাছের ঘটনাটি আত্মঘাতি বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে এ হামলার জন্য ইসলামি সন্ত্রাসীদের সন্দেহ করা হচ্ছে। ফরাসি রেডিওতে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, বাটাক্লঁ কনসার্টে বন্দুকধারীরা ‘আল্লাহু আকবার’ বলে  হামলা চালিয়েছিল। ওই হামলায় একে রাইফেল ব্যবহার করা হয়েছিল যা সাধারণত জঙ্গিরাই ব্যবহার করে থাকে।

হামলার পর গোটা দেশ জুড়ে সতর্ক অবস্থা জারি করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে হাজার হাজার সেনা পুলিশ। প্যারিসের বাসিন্দাদের ঘরে থাকারও অনুরোধ জানান হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামসহ বিশ্বের বিভিন্ন নেতারা এ হামলার ব্যাপক নিন্দা করেছেন।

উত্তরপূর্ব২৪ডটকম/ডেস্ক/টিআই-আর

এ বিভাগের আরো খবর


সর্বশেষ খবর


সর্বাধিক পঠিত